আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২৭.২ °C
 
২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬, ১২ আশ্বিন ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

যুদ্ধাস্ত্র যখন সাপ

প্রকাশিত : ৮ জানুয়ারী ২০১৬
  • ইব্রাহিম নোমান

প্রাচীন গ্রীক যোদ্ধারা সমুদ্র যুদ্ধে প্রতিপক্ষকে আতঙ্কিত ও বিভ্রান্ত করার জন্য এক প্রকার সাপ ব্যবহার করতেন। ইতালির গবেষকরা হাজার বছর আগে ব্যবহৃত এই সর্প প্রজাতির সন্ধান পেয়েছেন। জ্যাভেলিন স্যান্ড বোয়া নামের সাপটি ইতালিতে দাফতরিকভাবে ৮০ বছর যাবত বিলুপ্ত। কিন্তু স্থানীয়রা বলছেন, এই প্রজাতির সাপ ইতালির সিসিলি দ্বীপের দুর্গম অঞ্চলে বাস করে। গ্রীকরা যুদ্ধ শুরুর আগে শত্রু জাহাজে সাপ ছুড়ে তাদের বিভ্রান্ত ও ভয় দেখাত। সর্পবিশারদগণ এই প্রজাতির সাপ নিয়ে গবেষণা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সাপটির বৈজ্ঞানিক নাম এরিক্স জাকুলাস। এটি সিসিলির দক্ষিণ উপকূলের বালুভূমি ও ঘন জঙ্গলে বসবাস করে।

ধারণা করা হয়, প্রাচীনকালে সিসিলি গ্রীকদের দখলে থাকাকালীন সময়ে এ সাপটির আবির্ভাব ঘটেছিল। ইতিহাসের ২টি বিখ্যাত যুদ্ধক্ষেত্রের পাশে সাপটি খুঁজে পেয়েছেন গবেষকরা। একটি খ্রিস্টপূর্ব ৫ম শতাব্দীর যুদ্ধক্ষেত্র এবং অন্যটি ৪র্থ শতাব্দীর যুদ্ধক্ষেত্র। গবেষকরা বলেন, যুদ্ধজয়ের পরে ধর্মীয় বা যুদ্ধ প্রথার কারণে যুদ্ধক্ষেত্রে সাপগুলো বসবাসের জন্য ছেড়ে দেয়া হতো। ইতালির বৈজ্ঞানিক পত্রিকা আক্টা হেরপেটোলজিকায় সাপটির পুনরায় আবির্ভাবের কথা প্রকাশ করা হয়। গবেষকরা ৬টি সাপ খুঁজে পেয়েছেন যার মধ্যে ৩টি জীবিত ও ৩টি মৃত। মাত্র ২০ ইঞ্চি লম্বা সাপগুলো টিকটিকি, ইঁদুর ও শামুক খায়।

সূত্র : দ্য টেলিগ্রাফ

রোবট সঙ্গী

কার্ড খেলতে সঙ্গীর অভাববোধ করছেন? আপনার সঙ্গীর অভাব দূর করবে ‘মিন’। মিন কিন্তু সাধারণ কোন মানুষ না! বন্ধুভাবনাপন্ন এই নারী রোবটের দেখা পাওয়া যাবে চীনের ম্যাকাউয়ে অবস্থিত প্যারাডাইস এন্টারটেইনমেন্টের প্রধান কার্যালয়ে। এ প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে রোবট ডিলার মিনকে কিনতেও পাওয়া যাবে।

সূত্র : ডেইলি মেইল

প্রকাশিত : ৮ জানুয়ারী ২০১৬

০৮/০১/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: