কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

চিকিৎসাসেবায় ইসরাইল?

প্রকাশিত : ২৫ ডিসেম্বর ২০১৫

সিরিয়ায় ইসলামিক স্টেটের (আইএস) আহত জঙ্গীদের চিকিৎসাসেবা দিচ্ছে ইসরাইল। সিরিয়া সীমান্তবর্তী গোলান হাইটে ইসরাইল পরিচালিত হাসপাতালে তাদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। ব্রিটিশ প্রভাবশালী দৈনিক ডেইলি মেইলে একটি ভিডিও ফুটেজসহ তথ্যটি প্রকাশ করেছে। ডেইলি মেইল জানায়, রাতের আঁধারে ইসরাইলী সেনারা নিয়মিত গোপন অভিযান চালায় সিরিয়ায়। সেখান থেকে আহত যোদ্ধাদের নিয়ে ফেরত আসে গোলান হাইটের হাসপাতালে। প্রতিবেদনে বলা হয়, এই যোদ্ধা ইসরাইলী সৈন্য নয়, এরা ইসলামী জঙ্গী। তবে ইসরাইলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তারা আইএসকে সেবা দিচ্ছে না। সিরিয়ায় ইরানের মিত্র সরকার বাশার আল আসাদের বিরুদ্ধে লড়াইরত সুন্নী বিদ্রোহীদের চিকিৎসাসেবা দিচ্ছে।

এদিকে প্রতিবেদনে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আইএস জঙ্গীদের সেবা দিচ্ছে ইসরাইল। ইসরাইলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদ আইএসকে সৃষ্টি করেছে বলে শক্তিশালী প্রমাণ রয়েছে। মোসাদ আইএস জঙ্গীদের প্রশিক্ষণও দিয়ে থাকে। সুন্নী বিদ্রোহীরা আসাদবিরোধী হলেও ইহুদী রাষ্ট্র ইসরাইলের প্রতি সরাসরি শত্রুতা পোষণ করে। ডেইলি মেইলকে এ কথা জানিয়েছে, খোদ ওই হাসপাতালের চিকিৎসকরা। তাহলে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ইসরাইল সৈন্যরা কেন যুদ্ধক্ষেত্রে যোদ্ধাদের উদ্ধারে গোপন অভিযান চালাবে?

২০১৩ সাল থেকে এ পর্যন্ত দুই হাজার ইসলামী যোদ্ধার প্রাণ বাঁচিয়েছে ইসরাইলী সৈন্যরা। এতে ব্যয় হয়েছে কমপক্ষে ১ কোটি ৪০ লাখ ডলার। এছাড়া ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে ওই হাসপাতাল সফর করে আত্মঘাতী স্কোয়াডের এক জঙ্গী নেতার সঙ্গে করমর্দন করেছিলেন ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু। এ নিয়ে ইসরাইলের জঙ্গী সংশ্লিষ্টতার সন্দেহ দৃঢ় হয়।

যোদ্ধা ॥ আইএসে প্রায় এক লাখ সক্রিয় যোদ্ধা রয়েছে বলে মার্কিন কর্মকর্তাদের ধারণা। তবে আগস্টের শুরুর দিকে আইএসে প্রায় ৩০-৫০ হাজার যোদ্ধা ছিল। এর মধ্যে ৩০ শতাংশ মতাদর্শগত যোদ্ধা। অন্যরা ভয়ে বা বাধ্য হয়ে আইএসে যোগ দিয়েছে। তবে কারও কারও মতে, আইএসের প্রায় ৮০ হাজার প্রশিক্ষিত যোদ্ধা আছে। এর মধ্যে সিরিয়ায় আছে ৫০ হাজার এবং ইরাকে ৩০ হাজার।

আইএস যোদ্ধাদের একটা বড় অংশ ইরাক ও সিরিয়া সীমান্তে যুদ্ধ করছে। এই জঙ্গীগোষ্ঠীটিতে ৮১টি দেশেরও বেশি বিদেশী যোদ্ধা রয়েছে। পশ্চিমা দেশগুলো থেকে এসেছেও এদের যোদ্ধা।

অস্ত্র ॥ আইএসের যোদ্ধারা হালকা থেকে ভারি সব ধরনের অস্ত্র চালনায় পারদর্শী। তারা ট্রাকে স্থাপিত মেশিনগান, রকেট লঞ্চার, বিমানবিধ্বংসী অস্ত্র, ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহারে সক্ষম। তাদের কাছে জঙ্গী হেলিকপ্টার, পরিবহন বিমান ও অত্যাধুনিক সব সমরাস্ত্র আছে। সিরিয়া ও ইরাকী বাহিনীর কাছ থেকে দখল করা ট্যাঙ্ক ও সাঁজোয়া যান ব্যবহার করছে আইএস।

প্রকাশিত : ২৫ ডিসেম্বর ২০১৫

২৫/১২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

আইএস || একবিংশ শতকের বর্বর দানব



ব্রেকিং নিউজ: