মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২২.৮ °C
 
২ মার্চ ২০১৭, ১৮ ফাল্গুন ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

৫ জানুয়ারি নির্বাচন না হলে দেশে মার্শাল ল’ হতো ॥ নাসিম

প্রকাশিত : ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচন না হলে দেশে মার্শাল ল’ হতো। নির্বাচন হয়েছে বলে দেশে উন্নয়ন হচ্ছে। মানুষ শান্তিতে আছে। গণতন্ত্রের বিকল্প গণতন্ত্র, তেমনি শেখ হাসিনার বিকল্প শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার বিকেলে বাগমারায় রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। নাসিম বলেন, এক সময় বাগমারা ছিল বাংলাভাইয়ের ভূমি।

বাংলাভাইয়ের দৌরাত্ম্যে এখানকার নারীরা ঘর থেকে বেরুতে ভয় পেতেন। এখন আর বাংলাভাইয়ের দৌরাত্ম্য নেই। কারণ খালেদা জিয়ার জঙ্গীবাদী সরকার ক্ষমতায় নেই। শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় থাকায় মানুষ শান্তিতে আছে। তাই নারীরা সবখানে বের হচ্ছে নির্বিঘেœ। নারীর ক্ষমতায়ন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নারীরা এখন দেশের সবক্ষেত্রে কাজ করছে। শেখ হাসিনার সরকার নারীর ক্ষমতায়নে কাজ করছে। ফলে নারীরা সবদিক থেকে এগিয়ে যাচ্ছে।

রাজশাহী জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মর্জিনা খাতুনের সভাপতিত্বে সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আশরাফুন্নেসা, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, সাংসদ এনামুল হক, সাংসদ আখতার জাহান প্রমুখ।

এর আগে সকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসক ও বিএমএ নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। তিনি চিকিৎসকদের নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানান এবং চিকিৎসক ও নার্সদের বিভিন্ন সমস্যার কথা শোনেন।

এ সময় মন্ত্রী রামেককে বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তরের বিষয়ে বলেন, রাজশাহীতে মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় করার জন্য আইন পাস হয়ে গেছে। এটি এখন আর কোন স্বপ্ন নয়, এটি বাস্তব। রামেক হাসপাতাল ও কলেজকে হাত না দিয়ে রাজশাহীতে আলাদা জায়গায় মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি করার কথা ভাবা হয়েছে। এজন্য প্রয়োজনীয় জায়গার খোঁজ চলছে। জায়গা পেলেই মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় তৈরির কাজ শুরু হয়ে যাবে।

প্রকাশিত : ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫

০৪/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: