আংশিক রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২০ °C
 
২৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ভোলা-লক্ষ্মীপুর ফেরি ফের বন্ধ ॥ দীর্ঘ যানজট

প্রকাশিত : ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫
  • চার দিন পর ফেরিঘাট বিধ্বস্ত

নিজস্ব সংবাদদাতা, ভোলা, ২ সেপ্টেম্বর ॥ সংস্কারের পর ৪ দিন না যেতেই মেঘনার প্রবল স্রোতের তোড়ে আবারও ভোলা ইলিশা বিশ্ব রোডের মাথার ফেরিঘাট বিধ্বস্ত হয়েছে। এতে বুধবার দুপুর থেকে ভোলা-লক্ষ্মীপুর নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। গত এক মাসের মধ্যে এই নিয়ে তৃতীয়বারের মতো ফেরি চলাচল বন্ধ হলো। এদিকে ফেরি চলাচল বন্ধ হওয়ার পর ভোলা ইলিশা ও লক্ষ্মীপুরের মজু চৌধুরীর হাট পাড়ে আটকা পড়েছে কয়েকশত পণ্যবাহী ট্রাকসহ বিভিন্ন যানবাহন। পণ্টুনে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন পরিবহন শ্রমিক, মালিক ও সাধারণ যাত্রীরা। পণ্টুনে প্রত্যক্ষদর্শী কামাল জানান, সকাল থেকে উত্তাল মেঘনার জোয়ারের পানি ফেরির পণ্টুনে আঘাত হানে। জোয়ারের পানিতে পাইলিং ছুটে যায়। দুপুরের দিকে নদী ভাঙ্গন রোধের বালি ভর্তি একটি কার্গো জাহার পণ্টুনে আঘাত করে। এ সময় সংযোগ সড়ক থেকে ফেরিঘাটের পণ্টুন গ্যাংওয়ে সরে যায়। বিআইডব্লিউটিএ’র ফেরি ঘাটের সারেং আবুল হোসেন জানান, তিনি ফেরিঘাট বিধ্বস্ত হওয়ার খবর তার উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন। তবে কবে নাগাদ ফেরিঘাট মেরামত হবে তা বলতে পারেননি। স্থানীয় ইলিশা ইসলামীয়া মডেল কলেজের অধ্যক্ষ নিজাম উদ্দিনসহ এলাকাবাসী জানান, স্থায়ীভাবে ইলিশায় ফেরিঘাট নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া না হলে এ ঘাটকে মেঘনার ভাঙ্গনের হাত থেকে এভাবে বার বার মেরামত করে রক্ষা করা যাবে না। এদিকে বিআইডব্লিউটিসির ভোলা ফেরি সার্ভিসের ব্যবস্থাপক আবু আলম হাওলাদার জানান, ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটের ভোলা অংশের ইলিশা চডার মাথার ফেরিঘাটে বুধবার জোয়ারের চাপে ধসে পড়ে। এতে সংযোগ সড়ক থেকে পণ্টুন, র‌্যাম বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এর ফলে ফেরি চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়ে। দুর্ঘটনার আশঙ্কায় ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। মেরামতের জন্য কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে মামলা

স্টাফ রিপোর্টার, সাতক্ষীরা ॥ সাতক্ষীরার ছফুরননেছা মহিলা কলেজের লাইব্রীয়ান ও আখড়াখোলা আইডিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ আসাদুজ্জামান মোহনের বিরুদ্ধে স্কুলছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে আদালতে মামলা হয়েছে। ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে সাতক্ষীরা চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এই মামলাটি দায়ের করেন। বিচারক মামলাটি এফআইআর করার জন্য সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, সাতক্ষীরা সদর উপজেলার দেবনগর গ্রামের আসাদুজ্জামান মোহন সাতক্ষীরা ছফুরননেছা মহিলা কলেজের লাইব্রেয়ীন ও আখড়াখোলা আইডিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে কর্মরত আছেন। তার বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুরসহ একাধিক মামলা রয়েছে। এ সব মামলায় তিনি জেলহাজত খেটেছেন। অভিযোগ, গত ২৭ আগস্ট সকাল ১০টার দিকে ওই ছাত্রী স্কুলে যাওয়ার পথে আসাদুজ্জামান মোহনের বাড়ির সামনে পৌঁছানো মাত্র মোহন তাকে জাপটে ধরে টানা হেচড়া করে শ্লীলতাহানি ঘটায়।

প্রকাশিত : ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫

০৩/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ:
ছাতকে কওমি ও আলিয়া মাদ্রাসা ছাত্রদের সংঘর্ষ ॥ হত ১ আহত শতাধিক || সমতাভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠায় আসছে এবারের বাজেট || রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে প্রথম প্রবন্ধ লেখেন আবদুল হক || মিতু হত্যা-তদন্ত কোন্্দিকে মোড় নেবে- যা লিখেছে বাবুল ফেসবুকে || ২৮ কোম্পানির ওষুধ উৎপাদন বন্ধের নির্দেশ হাইকোর্টের || সামুদ্রিক মৎস্য আইনের খসড়ায় মন্ত্রিসভার নীতিগত অনুমোদন || কিলারদের সঙ্গে মোবাইলে সারাক্ষণ যোগাযোগ রাখত কাদের খান || জুলাই থেকে নতুন ভ্যাট আইন কার্যকর হবে || পিলখানা হত্যাযজ্ঞে দ-িত ২২ পলাতক বিডিআর সদস্যকে ধরার নির্দেশ || মোবাইল ব্যাংকিং ॥ লেনদেন সীমা কমিয়ে দেয়ায় বিপাকে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা ||