মূলত রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ৩০ °C
 
২৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ব্লগার ওয়াশিকুর হত্যা মামলার চার্জশীট দাখিল আদালতে

প্রকাশিত : ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫

কোর্ট রিপোর্টার ॥ রাজধানীর তেজগাঁও এলাকায় ব্লগার ওয়াশিকুর রহমান ওরফে বাবু হত্যা মামলায় আনসারুল্লাহ বাংলাটিমের ৫ জনকে অভিযুক্ত করে ঢাকার চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চার্জশীট দাখিল করেছেন ডিবি পুলিশ। ঢাকার চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বুধবার বিকেল পৌনে পাঁচটায় চার্জশীট দাখিল করা হয়। আদালতে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চলের দায়িত্বে থাকা জিআরও আলতাফ হোসেন চার্জশীটপ্রাপ্তির খবর নিশ্চিত করেন। চার্জশীটভুক্ত আসামিরা- জিকরুল্লাহ ওরফে হাসান, আরিফুল ইসলাম ওরফে এরফান, সাইফুল ইসলাম ওরফে মানসুর, মাওলানা জুনায়েদ ওরফে তাহের ও আব্দুল্লাহ ওরফে আকরাম। আসামিদের মধ্যে জিকরুল্লাহ ওরফে হাসান, আরিফুল ইসলাম ওরফে এরফান ও সাইফুল ইসলাম ওরফে মানসুর কারাগারে আটক আছেন। মাওলানা জুনায়েদ ও আব্দুল্লাহ পলাতক।

ডিবি পুলিশ চার্জশীটভুক্ত ৫ আসামি ছাড়াও মাসুম ওরফে ইকবাল, শরিফ ও আবরার নামে আরও তিনজন এ হত্যাকা-ে জড়িত থাকার প্রমাণ পায়। কিন্তু তাদের নাম-ঠিকানা না পাওয়ায় তাদের মামলায় দায় থেকে অব্যাহতি চাওয়া হয়েছে। নাম-ঠিকানা পাওয়া গেলে পরবর্তীতে তাদের বিরুদ্ধে সম্পূরক চার্জশীট দেয়া হবে মর্মে উল্লেখ করা হয়েছে। চার্জশীটে ৪০ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে। চার্জশীটে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০১৪ সালের মাঝামাঝি থেকে ব্লগার ওয়াশিকুরকে হত্যার পরিকল্পনা করে তারা। সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকের মাধ্যমে ঘাতকরা বাসা থেকে মতিঝিল অফিসে যাওয়ার বিষয়টি জানতে পারে। ফেসবুক থেকে ছবি সংগ্রহ করে তারা ওয়াশিকুরকে চিনে রাখে।

হত্যার আগে তারা কয়েকদফা চাপাতি দিয়ে হত্যা করার বিষয়ে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে ও কয়েক দফা মহড়া দেয়। বাসা থেকে মতিঝিল যাওয়া- আসার পথে হত্যার জন্য উপযুক্ত জায়গা হিসেবে বেগুনবাড়ি এলাকার দিপীকার মোড় এলাকা বেছে নেয়। পরিকল্পনা মোতাবেক গত ৩০ মার্চ ব্লগার ওয়াশিকুরকে হত্যা করে। চলতি বছরের ৩০ মার্চ সকাল সাড়ে দশটায় তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার ৪/২ দক্ষিণ বেগুনবাড়ি বাসার সামনের রাস্তায় চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে ব্লগার ওয়াশিকুর রহমানকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় নিহতের দুলাভাই মনির হোসেন রাজধানীর শিল্পাঞ্চল থানায় এ মামলা দায়ের করেন। নিহত ওয়াশিকুর রহমান ওয়াশিক বাবু নামে ব্লগে লেখালেখি করতেন। তাকে হত্যার একমাস আগে ব্লগার-বিজ্ঞান লেখক অভিজিত রায়কে কুপিয়ে হত্যা করে আনসারুল্লাহ বাংলাটিমের সদস্যরা। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি বইমেলা থেকে বের হওয়ার সময় টিএসসি মোড়ে মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা বিজ্ঞান লেখক অভিজিত রায়কে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। হামলাকারীদের চাপাতির আঘাতে আহত হন তার স্ত্রী ব্লগার রাফিদা আহমেদ বন্যা। নিহত ওয়াশিকুর রহমান মতিঝিলের ফারইস্ট এ্যাভিয়েশন ট্রাভেল এজেন্সিতে ট্রেনার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ওয়াশিকুররা দুই ভাই-বোন। তিনি দু’বছর আগে তেজগাঁও কলেজ থেকে স্নাতক পাস করে একটি ট্রাভেল এজেন্সিতে চাকরি করতেন। নিহতের পিতার নাম টিপু সুলতান। তার বাড়ি লক্ষীপুর জেলার রামগঞ্জ থানার উত্তর হাজিপুর গ্রামে। তিনি বেগুনবাড়ি দিপীকার মোড় এলাকায় থাকতেন। একই কায়দায় ড. হুমায়ুন আজাদ ও ব্লগার আসিফ মহিউদ্দিনকে হত্যার উদ্দেশে কুপিয়ে গুরুতর আহত করার ঘটনাও একই কায়দায় ঘটেছিল।

২০১৩ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি একই কায়দায় ব্লগার ও গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক আহমেদ রাজীব হায়দারকেও রাজধানীর মিরপুরে তার বাড়ির সামনে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

প্রকাশিত : ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫

০৩/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: