আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
২৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

গণতন্ত্রহীন এদেশ এখন পুলিশী রাষ্ট্রে পরিণত

প্রকাশিত : ২ সেপ্টেম্বর ২০১৫
গণতন্ত্রহীন এদেশ এখন পুলিশী রাষ্ট্রে পরিণত
  • বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় খালেদা জিয়া

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিভিন্ন কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে দলের ৩৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করেছে বিএনপি। এ উপলক্ষে মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের নিয়ে শেরেবাংলানগরে দলের প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। আর সন্ধ্যায় ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে বিএনপি আয়োজিত আলোচনাসভায় সভাপতির বক্তব্যে দলের চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া অভিযোগ করেন, দেশে আইনের শাসন, মৌলিক অধিকার, বাক স্বাধীনতা ও মানবাধিকার নেই। গণতন্ত্রহীন এ দেশ পুলিশী রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে। তিনি বলেন, আমরা ক্ষমতায় গেলে প্রতিহিংসার রাজনীতি করব না। প্রতিহিংসা ও প্রতিশোধের রাজনীতি নয়, আমরা ঐক্যের রাজনীতি চাই।

খালেদা জিয়া বলেন, আওয়ামী লীগের সোনার ছেলেরা অর্থাৎ ছাত্রলীগ ও যুবলীগ আজ কাউকে অপমান করতে বাদ রাখছে না। আজকে শিক্ষক কালকে ডাক্তারÑ এভাবে সবাইকে তারা পিটাচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে সরকার কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না। এভাবে দেশ চলতে পারে না। দেশে এক দলীয় শাসন ব্যবস্থা বলেই তা হচ্ছে। দেশে গণতন্ত্র থাকলে এ অবস্থা হতো না। আমরা এ অবস্থার অবসান চাই, গণতন্ত্র চাই। এ জন্যই নির্দলীয় সরকারের অধীনে সবার অংশগ্রগণে নির্বাচন চাই। দেশের মানুষ পরিবর্তন চায় বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, এ দেশে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি পর্যায়ক্রমে ক্ষমতায় আসবে। অন্য কোন দলের ওপর জনগণের আস্থা নেই। সেজন্য দেশ ও গণতন্ত্রের স্বার্থে নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে। বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে এটিই আমাদের দাবি।

সকাল ১০টা থেকেই জিয়ার মাজার প্রাঙ্গণে গিয়ে জড়ো হন বিএনপির বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা। বেলা সাড়ে ১১টায় বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া সেখানে পৌঁছে সবাইকে নিয়ে জিয়ার মাজারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এর পর সংক্ষিপ্ত সময়ের মধ্যে জিয়াউর রহমানের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাতের পর খালেদা জিয়া সেখান থেকে বের হয়ে গুলশানের বাসায় চলে যান। জিয়ার মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় খালেদা জিয়ার সঙ্গে ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, লে. জেনারেল (অব) মাহবুবুর রহমান, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব) আ স ম হান্নান শাহ, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন, এয়ার ভাইস মার্শাল (অব) আলতাফ হোসেন চৌধুরী, সেলিমা রহমান, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ইনাম আহমেদ চৌধুরী, ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, শামসুজ্জামান দুদু, আবদুল কাইয়ুম, যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন, নাজিম উদ্দিন আলম, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, যুব বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট মাসুদ আহমেদ তালুকদার, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, মহিলা দলের সভাপতি নূরী আরা সাফা, সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা, শ্রমিক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসাইন, মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফাত, ওলামা দলের সভাপতি হাফেজ আব্দুল মালেক, মহাসচিব শাহ মোহাম্মদ নেছারুল হক, কৃষক দলের যুগ্ম সম্পাদক শাহজাহান মিয়া সম্রাট, তাঁতী দলের সভাপতি হুমায়ুন ইসলাম খান, সাবেক সাংসদ হেলেন জেরিন খান, শাম্মী আক্তার, ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মামুনুর রশিদ মামুন প্রমুখ।

দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকাল ৬টায় নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সারাদেশের সকল কার্যালয়ে দলীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।

এদিকে জিয়ার মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, সরকারের মধ্যে অস্বস্তি দেখা দিয়েছে। তাদের অস্বস্তি দেখে বিএনপি মনে করছে খুব শীঘ্রই দেশে মধ্যবর্তী নির্বাচন হবে। অবাধ ও সুষ্ঠু এই নির্বাচনের পর দেশে গণতন্ত্র ফিরে আসবে। তিনি বলেন, দেশে একদলীয় বাকশালী শাসন থেকে বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছিলেন সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান। সেই গণতন্ত্র আজ হারিয়ে গেছে। হারানো গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে প্রয়োজনে বিএনপি আবারও সংগ্রাম করবে। বিএনপির আজ সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনা। তিনি বলেন, দেশে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণ যে রায় দেবে, সেই রায়ে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া ক্ষমতায় আসবেন এবং দেশে গণতন্ত্র ফিরে আসবে। আর বিএনপি ক্ষমতায় আসলে পুলিশ ও প্রশাসনকে স্বাধীনভাবে তাদের কাজ করার ক্ষমতা দেয়া হবে। দেশে আবার গণতান্ত্রিক চর্চা ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠিত হবে।

দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিকেলে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে আলোচনা সভার আয়োজন করে বিএনপি। এতে বক্তব্য রাখতে গিয়ে খালেদা জিয়া বলেন, আমরা ক্ষমতায় গেলে প্রশাসনের কর্মকর্তাদের জন্য এমন ব্যবস্থা করব যাতে তারা কোনরকম ভয়ভীতি ছাড়াই কাজ করতে পারেন। তিনি বলেন, শিক্ষার ওপর জিয়াউর রহমান জোর দিয়েছিলেন। আমরা এ দেশের সকল মানুষকে শিক্ষিত করে তুলব। তিনি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর থেকে ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবি জানান।

খালেদা জিয়া বলেন, এ সরকার দেশের উন্নয়নে কাজ করে না। শুধু চুরি করে বিদেশে টাকা পাচার করে। তাই এ সরকারের কাছ থেকে দেশকে রক্ষা করতে হবে। এ জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এ সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে। লড়াই করেই গণতন্ত্র ও ভোটের অধিকার আদায় করা হবে।

খালেদা জিয়া বলেন, বর্তমান সরকার সকল ক্ষেত্রে মিথ্যাচার করছে। তারা মিথ্যা মামলা দিয়ে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের হয়রানি করছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে দলীয় কাজে ব্যবহার করছে। এভাবে দেশ চলতে পারে না।

আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় প্রমুখ।

জ্যাবের আলোচনা সভা : বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে মঙ্গলবার দুপুরে আলোচনাসভার আয়োজন করে জ্যাব (জার্নালিস্ট এ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ)। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এলডিপি সভাপতি কর্নেল (অব) অলি আহমেদ বলেন, মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্ব দেয়ার পাশাপাশি দেশের সব মত ও পথের লোকদের ঐক্যবদ্ধ করে দেশকে এগিয়ে নিয়েছেন। আজ যারা জিয়াউর রহমানের অবদানকে খাটো করতে চায় তারা প্রকৃত ইতিহাস জানে না। পেশাগত মান ও দেশের উন্নয়নে সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান তিনি।

জ্যাবের ঢাকা মহানগর আহ্বায়ক সৈয়দ মেজবাহ আহমেদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি আমানউল্লাহ কবির, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম চৌধুরী, সহ-সভাপতি আমিরুল ইসলাম কাগজী, যুগ্ম সম্পাদক ইলিয়াস খান, সাংবাদিক নেতা এলাহী নেওয়াজ খান সাজু প্রমুখ।

প্রকাশিত : ২ সেপ্টেম্বর ২০১৫

০২/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: