রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৫ °C
 
১৮ জানুয়ারী ২০১৭, ৫ মাঘ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

প্রশ্ন এবং উত্তর ॥ প্রসঙ্গ নবজাতক ও শিশু

প্রকাশিত : ১ সেপ্টেম্বর ২০১৫

সমস্যা : আমার যমজ মেয়ে দুটি। বয়স ১৬ দিন। বুকের দুধ খেতে চায় না, বমি করে ফেলে দেয়। চোখ হলুদ দেখে আমি ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাই। ডাক্তার জানালেন যে, আমার মেয়ে দুটিরই জন্ডিস। আমি তো শুনে অবাক। এতটুকু বাচ্চার জন্ডিস কিভাবে সম্ভব? ডাক্তার কিছু ওষুধ দিলেন আর আমাকে বললেন সকালে ৫-১০ মিনিট রোদে রাখতে। আমি জানতে চাই জন্ডিসের সঙ্গে রোদের কি সম্পর্ক?

সোনিয়া, করিমগঞ্জ, জয়কা কিশোরগঞ্জ থেকে

সমাধান : নবজাতক শিশুর প্রায় ৬০-৭০ শতাংশেরই জন্ডিস হয়ে থাকে। যেটাকে সাধারণ জন্ডিস বা বৈজ্ঞানিকভাবে ফিজিওলজিক্যাল জন্ডিস বলে। এই জন্ডিসের কারণে বাচ্চার কোন ক্ষতি হয় না। এটি জন্মের ২য় বা ৩য় দিন থেকে শুরু হয়ে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে দুই সপ্তাহের মধ্যে কমে যায়। এই সময়ে নবজাতকটি অন্যান্য দিক থেকে সুস্থ থাকে, যেমন : খাওয়া-দাওয়া ঠিকমতো করে, স্বাভাবিকভাবে নড়াচড়া করে এবং প্রস্রাব-পায়খানা স্বাভাবিক থাকে। এরকম অনেক ক্ষেত্রে প্রস্রাবের রং হলুদ হতে পারে। এগুলো স্বাভাবিক ব্যাপার এবং চিন্তার কোন বিষয় না। এ কারণে বাবা-মা বা পরিবারের সদস্যগণকে আশ্বস্ত করতে হবে।

প্রচলিতভাবে চিকিৎসক বা সেবাদানকারী স্বাস্থ্যকর্মীরা বাচ্চাকে সকালের রোদ খাওয়াতে বলেন যা জন্ডিসের উপকার না করলেও এই ধরনের রোদ গায়ে লাগালে শিশুর জন্য ভালো। এতে ভিটামিন ডি-এর অভাব হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে।

সমস্যা : আমার সন্তানের বয়স ২ মাস। জন্মের ১০ দিনের সময় ওর ঠোঁটের কোণায় একটি বিন্দুর মতো আঁচিল লক্ষ্য করি। কিন্তু তেমন কোন গুরুত্ব দেইনি। এর কিছু দিন পর লক্ষ্য করি আঁচিলটা দিন দিন বড় হতে থাকে। এটা দেখতে ফোসকার মতো লাল মাংস পি-ের মতো আকার ধারণ করছে। এখন আমি কী করব?

নুরজাহান, কুরুমখালী, ফরিদগঞ্জ, চাঁদপুর থেকে

সমাধান : সম্ভবত এটি একটি হেমানজিওমা (ঐধবসধহমরড়সধ) যেখানে রক্তের ক্ষুদ্র নালীগুলো জমাট বেঁধে উঁচু হয়ে থাকে। এটিকে কিছু করার প্রয়োজন পড়ে না। এটা বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে মিলিয়ে যায়। তবে এটা কোন শিশুবিশেষজ্ঞকে দেখিয়ে নেয়া ভাল।

সমস্যা : আমার সন্তানের বয়স ৬ মাস। ঠা-া লাগার পর থেকেই নাক দিয়ে অনবরত সর্দি পড়ছে। প্রায় দেড় মাস হলো ওষুধ খাওয়াচ্ছি, কিন্তু সর্দি পড়া কমে নাই। নাকের দু’পাশেই লাল ঘা-এর মতো অবস্থা নাক পরিষ্কার করতে পারি না। এখন কী করলে এ ঘা শুকাবে জানালে উপকৃত হব।

রাহাত ফাতেমা, ছাইফউদ্দীন দম্পত্তি জানিয়েছেন, দত্তপাড়া, টুঙ্গী থেকে

সমাধান : ৬ মাস বা যে কোন বয়সের শিশুদের দীর্ঘ সময় সর্দি লাগা বা নাক দিয়ে পানি পড়া একটি স্বাভাবিক ব্যাপার। শিশু এবং বড়দের মাঝে প্রকার ভেদে কারও কারও নাকের এলার্জির কারণে অথবা ঠা-া লাগার কারণে বা ধুলাবালি নাক দিয়ে ঢোকার ফলে এরকম অবস্থার সৃষ্টি হয়। যে কারণে এটার জন্য কোন চিকিৎসার প্রয়োজন পড়ে না। কিন্তু এখানে উল্লিখিত নাকের পাশে চামড়ায় ঘা-এর আক্রান্ত স্থানে ফুটানো কুসুম কুসুম গরম পানির মধ্যে পরিষ্কার সুতির নরম কাপড় ভিজিয়ে আক্রান্ত স্থানে দিনে ৩-৪ বার পরিষ্কার করতে হবে। সেই সঙ্গে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী একটি এন্টিবায়োটিক মলম লাগানো যেতে পারে।

সমস্যা : আমার সন্তানের বয়স ১৫ দিন। বাড়িতেই নরমালভাবে সন্তান প্রসব হয়। এখন আমার বাবুর সমস্যা হলো নাভিটা ফুলে গেছে। নিয়মিত ছ্যাঁক দিচ্ছি কিন্তু ফোলা কমছে না। আমার কাছে মনে হচ্ছে কেমন যেন কাঁচা হয়ে যাচ্ছে দিন দিন। আমি এখন কী করতে পারি জানাবেন কি?

বেলি, মাঠপাড়া, লাইব্রেরি বাজার, পাবনা থেকে জানিয়েছেন

সামাধান : ১৫ দিনের নবজাতকের করও কারও এরকম নাভি ফুলে যেতে পারে অথবা কাঁচা কাঁচা ভাব থাকতে পারে। এখানে অবশ্যই ছ্যাঁক দেয়া বন্ধ করতে হবে।

ছ্যাঁক দেয়াতে আরও খারাপের দিকে যাবে। এক্ষেত্রে চিকিৎসককে দেখিয়ে ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন।

প্রকাশিত : ১ সেপ্টেম্বর ২০১৫

০১/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: