কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ১৩.৯ °C
 
১৮ জানুয়ারী ২০১৭, ৫ মাঘ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

অস্কার মনোনয়ন দৌড়ে এগিয়ে ‘বাহুবলী’

প্রকাশিত : ১ সেপ্টেম্বর ২০১৫

সংস্কৃতি ডেস্ক ॥ বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী এবং সম্মানজনক পুরস্কার অস্কারের জন্য মনোনয়ন পেতে যাচ্ছে এ বছরের অন্যতম হিট চলচ্চিত্র ‘বাহুবলী’। শোনা যাচ্ছে, এসএস রাজামৌলির এই চলচ্চিত্রটি ৮৮তম একাডেমি এ্যাওয়ার্ডের দৌড়ে এগিয়ে রয়েছে। মুক্তির পরেই দেশজুড়ে অসম্ভব সাড়া ফেলে দেয় এই চলচ্চিত্রটি। ব্যবসায়িক দিক থেকেও এই চলচ্চিত্রের সাফল্য পিছনে ফেলে দিয়েছে বলিউডের অন্যান্য চলচ্চিত্রকে। স্বভাবতই অস্কারের হাতছানিতে উচ্ছ্বসিত চলচ্চিত্রপ্রেমীরা। সব কিছু ঠিক থাকলে আগামী ২০১৬ সালে অস্কারের জন্য ভারত থেকে মনোনীত হচ্ছে ‘বাহুবলী দ্য বিগিনিং’ চলচ্চিত্রটি। তেলেগু ফিল্ম চেম্বার অব কমার্স ইতোমধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করেছে, অস্কারের দৌড়ে ভারতীয় চলচ্চিত্রের মনোনয়নের জন্য শর্ট-লিস্টেড হয়েছে এই চলচ্চিত্র। যদি শেষ পর্যন্ত চলচ্চিত্রটি এই দৌড়ে থেকে যায়, তা হলে তেলেগু ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির দীর্ঘ ২৯ বছরের খরা কাটাবে ‘বাহুবলী’। প্রসঙ্গত, হলিউডকে সমানে টক্কর দেয়া অনেক দিন আগেই শুরু করেছে বলিউড। এবার আগের সব রেকর্ডকে পিছনে ফেলে ভারতীয় চলচ্চিত্রের নতুন ইতিহাস তৈরি হয়েছে ব্যয়ের দিক থেকে। এই চলচ্চিত্র তৈরিতে ব্যয় হয়েছে ২২০ কোটি রুপি। যা এখনও পর্যন্ত বলিউডে রেকর্ড। তবে গত ১০ জুলাই মুক্তি পাওয়ার পর ৬ সপ্তাহে চলচ্চিত্রটি ৬০০ কোটি রুপির বেশি আয় করেছেন। এই প্রথম ভারতে হিন্দি ভাষার নির্মিত নয় এমন চলচ্চিত্র ৫০০ কোটির বেশি রুপি আয় করল। এছাড়া বলিউডের ‘ধুম ৩’ ও ‘পিকে’ চলচ্চিত্র দুটি ৫০০ কোটির ঘরে নাম লিখিয়েছিল। ভারতীয় চলচ্চিত্রের ১০০ বছরের বেশি ইতিহাসে মোট আয়ের নিরিখে ‘বাহুবলী’ আপাতত দু’নম্বরে।

এক নম্বরে পরিচালক রাজকুমার হিরানির চলচ্চিত্র ‘পিকে’। আমির খান, আনুশকা শর্মা অভিনীত চলচ্চিত্রটি মোট ৭০০ কোটি রূপির ব্যবসা করেছে। তবে ‘বাহুবলী’ চলচ্চিত্রের প্রযোজকরা এখনই হাল ছাড়ছেন না। তাদের আশা, আগামী দু’টি উইকএন্ডে তাদের চলচ্চিত্রটিও ভালই ব্যবসা করবে। শুধু তাই নয়, এখনই এটি তুলে নেয়ার কোনো পরিকল্পনা তাদের নেই। ফলে ‘পিকে’ চলচ্চিত্রেকে টক্কর দিতে প্রস্তত ‘বাহুবলী’। বিশ্বজুড়ে চার হাজার পর্দায় তেলেগু, তামিল, হিন্দি ও মালায়লাম ভাষায় চলচ্চিত্রটি মুক্তি দেয়া হয়েছে। এখানে অভিনয় করেছেন প্রভাস, রানা দাগুবাতি, রম্য কৃষ্ণা, আনুশকা শেঠি ও তামান্না ভাটিয়া। বিশেষ করে চলচ্চিত্রটি প্রশংসিত হয়েছে এটির বিভিন্ন মনোমুগ্ধকর দৃশ্য, গান, শিল্পীদের অভিনয় এবং অন্যান্য বিশেষ প্রভাবের কারণে। সম্প্রতি চলচ্চিত্র নির্মাতা করন জোহর, অমিতাভ বচ্চনসহ অনেক অভিনেতা চলচ্চিত্রটির প্রশংসা করেছেন। অমিতাভ বচ্চন তো প্রশংসা ছলে বলেই ফেলেছেন এত ভাল একটি চলচ্চিত্রে তাকে অভিনয়ের সুযোগ না দেয়াটা অন্যায় হয়েছে। এটি একটি সম্পূর্ণ এ্যাকশন ড্রামানির্ভর চলচ্চিত্র। যেটি তৈরি করতে প্রায় তিন বছর সময় লেগেছে। ভারতীয় পুরাণের ওপর তৈরি চিত্রনাট্যের এই চলচ্চিত্রে অত্যাধুনিক এআরআরআই এলেক্স এক্সটি ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে, যা হলিউডের খুব বড় বাজেটের চলচ্চিত্রে ব্যবহৃত হয়। চলচ্চিত্রটির দ্বিতীয় অংশ ২০১৬ সালে মুক্তি পাবে।

প্রকাশিত : ১ সেপ্টেম্বর ২০১৫

০১/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: