পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২০ °C
 
২১ জানুয়ারী ২০১৭, ৮ মাঘ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কুমিল্লায় ট্রাক উল্টে নিহত ৭

প্রকাশিত : ১ সেপ্টেম্বর ২০১৫

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কুমিল্লার কোটবাড়ি নন্দনপুর এলাকায় ঢাকাগামী টিন বোঝাই একটি ট্রাক উল্টে ঘটনাস্থলেই ছয়জনসহ সাতজন নিহত এবং চারজন আহত হয়েছে। রবিবার রাত আড়াইটার দিকে নন্দনপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের সবার বাড়ি গাইবান্ধায়। দুর্ঘটনার ফলে মহাসড়কে প্রায় ৫০ কিমি. যানজটের সৃষ্টি হয়। দুর্ঘটনায় নিহত ও আহতদের মাঝে সোমবার দুপুরে কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা দেয়া হয়। এছাড়া নীলফামারী, লক্ষ্মীপুর ও ময়মনসিংহের ভালুকায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় আরও তিনজন নিহত হয়। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের।

হাইওয়ে পুলিশ জানায়, চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা টিন বোঝাই একটি ট্রাক সড়কের কোটবাড়ি নন্দনপুর এলাকায় আসার পর সড়কের ডিভাইডারের সঙ্গে ধাক্কা লেগে উল্টে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই ছয়জন নিহত হয়।

কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল বাশার জানান, খবর পেয়ে উদ্ধার কাজে পুলিশের সঙ্গে আরও তিন ইউনিট নিয়ে যোগ করে ছয়জনের মৃতদেহ উদ্ধার করে। দুর্ঘটনায় আহত হয় পাঁচজন। আহতদের মধ্যে একজনকে কুমিল্লা মেডিক্যাল থেকে ঢাকা মেডিক্যালে নেয়ার পথে মারা যায়। নিহতরা হলেÑ গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের কামদিয়া ইউনিয়নের তেঘরা গ্রামের ইউনুস আলীর ছেলে শাহীন মিয়া (১৮), আব্দুল জলিলের ছেলে জাহিদুল ইসলাম (৪৫), গয়েশ্বপুর গ্রামের মৃত খবির উদ্দিনের ছেলে ফজলু মিয়া (৩৫), ভোলা শেখের ছেলে শফিকুল ইসলাম (৪২), দেলোয়ার হোসেনের ছেলে আসলাম (২৮), টেংরাজানি গ্রামের সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে আনোয়ার হোসেন (৩৮) ও খোলাহাটি গ্রামের আব্দুর রউফের ছেলে জাহিদুল ওরফে মাজহার (৩০)। আহতরা হলোÑ খোলাহাটি গ্রামের ইউনুছ আলীর ছেলে মতিনুর, জামাল মিয়ার ছেলে মুস্তাফিজুর, আকবর আলীর ছেলে ধনু মিয়া ও জামাল মিয়ার ছেলে ফারুক।

ময়নামতি হাইওয়ে থানার ওসি আবদুল আউয়াল জানান, দুপুরে নিহত আসলাম ও জাহিদুলের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। অপর পাঁচজনের লাশ বিনা ময়নাতদন্তে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

দুর্ঘটনার ফলে মহাসড়কের উভয় পাশে যানবাহন আটকা পড়ে। সোমবার ভোরে ট্রাকটি উদ্ধার করা হলেও এর আগেই মহাসড়কের উভয় পাশে অন্তত ৫০ কিমি. যানজট সৃষ্টি হয়। তবে ট্রাকটি উদ্ধারের পর মহাসড়কের যানজট ধীরে ধীরে কমতে থাকে এবং দুপুরের দিকে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়। দুর্ঘটনায় নিহত ও আহতদের মাঝে কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা দেয়া হয়েছে। নিহতদের জন্য ১০ হাজার টাকা এবং আহতদের প্রত্যেককে পাঁচ হাজার টাকা করে দেন কুমিল্লার জেলা প্রশাসক মোঃ হাসানুজ্জামান কল্লোল।

গাইবান্ধায় মাতম ॥ কুমিল্লায় সড়ক দুর্ঘটনায় গোবিন্দগঞ্জের সাত শ্রমিক নিহত হওয়ার ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। নিহতদের পরিবারে চলছে শোকের মাতম।

স্বজনদের মৃত্যু সংবাদ নিজ নিজ গ্রামে পৌঁছলে তাদের বাড়িতে হৃদয়বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়। গোটা এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

নীলফামারী ॥ রাস্তা পার হতে গিয়ে অটোরিক্সার ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছে চার বছরের শিশু সামিনা আক্তার মনি। সোমবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটে ডিমলার সটিবাড়ী সড়কের বড় জুমা এলাকায়। এ সময় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী সড়কটি এক ঘণ্টা অবরোধ করে রাখে। সামিনা দক্ষিণ তিতপাড়া গ্রামের আনসার সদস্য ছামিনুর রহমানের মেয়ে।

লক্ষ্মীপুর ॥ লেগুনা চাপায় নিশু আক্তার (৬) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রামগতি-লক্ষ্মীপুর সড়কের কড়ইতলা বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত শিশু নিশু কমলনগরের চরলরেঞ্চ গ্রামের মোঃ আজাদের মেয়ে।

ভালুকা ॥ ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ভালুকার আমতলী এলাকায় সোমবার ভোরে একটি ট্রাকের সঙ্গে ধাক্কা লেগে কন্টিনেন্টাল কুরিয়ার সার্ভিসের কাভার্ডভ্যানেরচালক প্রশান্ত কুমার বিশ্বাস (২৮) গুরুতর আহত হন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ সময় কাভার্ডভ্যানের হেলপার রাজশাহীর তানোর উপজেলার মইনপুর গ্রামে আলফাজ মিয়ার পুত্র শাহিন (২৫) আহত হন। নিহত চালক প্রশান্ত কুমার ফরিদপুরের মধুখালীর ডোমাইন গ্রামের তারাপদ বিশ্বাসের ছেলে।

প্রকাশিত : ১ সেপ্টেম্বর ২০১৫

০১/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: