মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

‘গায়ানা কাব্য’ পুনরাবৃত্তির অপেক্ষার শুরু

প্রকাশিত : ৫ জুলাই ২০১৫
‘গায়ানা কাব্য’ পুনরাবৃত্তির অপেক্ষার শুরু
  • বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা প্রথম টি২ আজ

মিথুন আশরাফ ॥ আহ কী আনন্দ! দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজে খেলতে নামার আগেই বিশ্বকাপে, পাকিস্তান ও ভারতের বিপক্ষে দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখানোর জন্য যে বোনাস পাওয়ার কথা ক্রিকেটারদের, তা পেয়ে গেছেন। গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ৮ কোটি ২৩ লাখ টাকা বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটার ও টিম ম্যানেজমেন্টকে দেয়া হয়। সেই আনন্দ নিয়েই এখন ‘গায়ানা কাব্য’র পুনরাবৃত্তি করার জন্য মাঠে ঝাঁপিয়ে পড়তে পারবেন মাশরাফি, সাকিব, তামিমরা। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে আজ দুপুর ১টায় দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথম টি২০ দিয়ে লড়াইয়ে নামাও শুরু হয়ে যাবে বাংলাদেশের।

বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা যখনই ক্রিকেট খেলা হয়, তখন একটি স্মৃতিই সবার সামনে চলে আসে; ‘গায়ানা কাব্য’। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে যে এখন পর্যন্ত টেস্ট, ওয়ানডে, টি২০ মিলিয়ে ২৪টি ম্যাচ খেলে মাত্র একটি ম্যাচে জেতা গেছে। সেটি ‘গায়ানা’য় ২০০৭ সালে, ওয়ানডে বিশ্বকাপে, মোহাম্মদ আশরাফুলের ৮৭ রানে ৬৭ রানের জয় তুলে নিয়েছিল বাংলাদেশ। তাই ’০৭ সালের পর যখনই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে খেলে বাংলাদেশ, ‘গায়না’র স্মৃতি পুুনরাবৃত্তির অপেক্ষা করা হয়। এবারও প্রথম টি২০ থেকেই তা করা হচ্ছে।

হোক টেস্ট, হোক ওয়ানডে, হোক টি২০; একটি ম্যাচ দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জেতার অনেক আশা বাংলাদেশের। এখন দলের যে অবস্থা তাতে জয় পাওয়ার প্রত্যাশা আরও বেড়ে গেছে। ক্রিকেট বিশ্বে অস্ট্রেলিয়া আর দক্ষিণ আফ্রিকাকেই মাত্র একটি করে ম্যাচে হারাতে পেরেছে বাংলাদেশ। এছাড়া সবকটি দেশকেই একাধিকবার হারানোর ক্ষমতা দেখিয়েছে টাইগাররা। জিম্বাবুইয়ের পর বিশ্বকাপ শেষে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে ঝলক ধরে রাখে বাংলাদেশ। এরপর ভারতকেও সিরিজে হারিয়ে দেয়। এবার দক্ষিণ আফ্রিকাকেও হারানোর পালা। সেই আশাতেই আছে পুরো জাতি। যেভাবে বাংলাদেশ শুধু উড়ছে, তাতে প্রোটিয়া বধও যে হয়ে যাবে না, তা বলা মুশকিল। অন্তত একটি ম্যাচে জয়ের আশা বাংলাদেশ করতে পারে। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেয়াও বোধ হয় বাংলাদেশের জন্য কঠিন হবে। তবে দুই ম্যাচের টি২০ ও তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে কঠিন লড়াই হবে। বাংলাদেশের আশায় অন্তত একটি ওয়ানডে ম্যাচ জেতা আছে। সেই একটি জয় এসে পড়লেই এখন হয়ে যায়। তাতে করে দক্ষিণ আফ্রিকাকেও একাধিকবার হারানোর গৌরব অর্জন করবে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার আশা জেতারই। বলেছেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকার শক্তি সম্পর্কে আমরা সবাই জানি। তবে আমি মনে করি, যেহেতু আমরা দল হিসেবে নামব, তাই আমাদের শক্তি সম্পর্কে আমাদের চিন্তা করাই ভাল। ওদের সঙ্গে খেলা সব সময় চ্যালেঞ্জিং। কারণ ওদের প্রতিটি ক্রিকেটারের বিশ্বাস বেশ দৃঢ়। কিন্তু আমরা আমাদের খেলা নিয়ে চিন্তা করছি। যেভাবে শেষ কয়েকটা সিরিজ খেলে এসেছি, সেই আত্মবিশ্বাস ধরে রেখে ভাল খেলার চেষ্টা করব।’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘আমাদের রেকর্ড (টি২০-তে) ভাল না। টি২০-তে আমরা খুবই কম খেলি। আমাদের একজন অভিজ্ঞ ক্রিকেটার আছে। যে সারাবিশ্বে খেলে, সাকিব। আর ওদের ৮-১০ ক্রিকেটার আছে যারা প্রতিনিয়ত সারাবিশ্বে খেলছে। অনেক তরুণ ক্রিকেটারও আছে। এই জায়গাতে তারা এগিয়ে আছে। তবে এটা শুধুই পরিসংখ্যান। মাঠে যদি আমরা ভাল খেলতে পারি তাহলে খেলাটা অবশ্যই অন্যরকম হবে।’

দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস সিরিজ জয়ের আশাই প্রকাশ করেছেন। বলেছেন, ‘আমরা অবশ্যই শ্রদ্ধার সঙ্গে বলতে চাই যে, বাংলাদেশের মূল দলটি প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য আরও কঠিন হবে। প্রস্তুতি ম্যাচে আসলে আমাদের জন্য মৌলিক অনুশীলন ছিল। আমরা এমন কিছু বিষয়ের মধ্যে আছি যেটা থেকে বেরিয়ে আসা জরুরী ছিল। অবশ্যই কন্ডিশন এবং তাপমাত্রা। শুক্রবার খুব ভাল একটা দিন ছিল। কিন্তু রবিবার আলাদা হতে পারে।’ প্লেসিস আরও বলেন, ‘আমাদের বোলিং দক্ষতা বাড়িয়ে নিশ্চিত করতে হবে যে, আমরা জিতব। আমি মনে করি এটা খুব ভাল নিয়ম। খেলায় হারজিত হয়ে যায় যখন কেউ বিমার ছোড়ে। অবশ্যই এ নিয়ম আসাতে অনেক বড় পরিবর্তন তৈরি হবে।’

প্রকাশিত : ৫ জুলাই ২০১৫

০৫/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: