মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পরমাণু চুক্তির কাছাকাছি কখনও পৌঁছানো যায়নি ॥ জাভেদ জারিফ

প্রকাশিত : ৫ জুলাই ২০১৫

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রী জাভেদ জারিফ বলেছেন, দেশটির পরমাণু কর্মসূচী নিয়ে কখনও কোন ব্যাপকভিত্তিক চুক্তির কাছাকাছি পৌঁছানো যায়নি। তিনি বলেন, এরূপ চুক্তি মধ্যপ্রাচ্যে চরমপন্থীদের উত্থানের মতো অভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার নতুন পথ খুলে দেবে। তিনি ইউটিউবে শুক্রবার পোস্ট করা এক ভিডিও বার্তায় একথা বলেন। মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী জন কেরিও একমত হন যে, তারা অগ্রগতি অর্জন করলেও অনেক কিছু করার এখনও বাকি আছে। খবর বিবিসির।

জারিফ পরমাণু আলোচনায় জোরজবরদস্তি ও চাপ প্রয়োগের অবসান ঘটানোর আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, ইরান কোন চুক্তি সই করতে প্রস্তুত রয়েছে এবং আলোচকরা কখনও কোন স্থায়ী ফলাফলের কাছাকাছি আসেননি।

কেরি সাংবাদিকদের বলেন যে, কোন কোন বিষয়ে মতানৈক্য রয়েই গেছে। জারিফ জানান যে, আলোচনায় চরমপন্থীদের সহিংসতা মোকাবেলায় আরও সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়। আলোচকরা ৭ জুলাই সময়সীমার মধ্যে ইরাকের পরমাণু কর্মসূচী নিয়ে কোন চূড়ান্ত চুক্তিতে পৌঁছতে জোর চেষ্টা চালাচ্ছেন। ভিয়েনায় অনুষ্ঠানরত এ আলোচনায় ছয় বিশ্ব শক্তি চায়, ইরান যাতে কোন পরমাণু বোমা তৈরি না করতে পারে, তা নিশ্চিত করতে দেশটি এর গুরুত্বপূর্ণ পরমাণু কর্মকা- সীমিত করুক। এ ছয়টি দেশ হলো যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, চীন, রাশিয়া ও জার্মানি। ইরানের পরমাণু কর্মসূচীর উদ্দেশ্য শান্তিপূর্ণ বলে সবসময়েই দাবি করে এসেছে। দেশটি চায়, এর ওই কর্মসূচী সীমিত করার বিনিময়ে আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হোক। এ নিষেধাজ্ঞার ফলে দেশটির অর্থনীতি বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে। যেসব বিষয়ে মতানৈক্য এখনও বিদ্যমান সেগুলোর মধ্যে রয়েছে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের সময় এবং ইরানের পরমাণু স্থাপনাগুলোতে জাতিসংঘ পর্যবেক্ষকদের প্রবেশ করার সুযোগ। কোন পরমাণু চুক্তিতে পৌঁছানোর আগে কয়েকটি ইস্যুর অবশ্যই মীমাংসা করতে হবে।

বাড়িতে শৌচাগার না পেয়ে কিশোরীর ‘আত্মহত্যা’!

বাড়িেেত শৌচাগার তৈরি করার দাবি তুলে প্রত্যাখ্যাত হয়ে আত্মহত্যা করেছে ভারতের ঝাড়খ-ের দুমকা জেলার এক কিশোরী।

খুশবু কুমারি (১৭) নামে দ্বাদশ শ্রেণীর ওই ছাত্রী বেশ কয়েকদিন ধরেই বাড়িতে শৌচাগার তৈরি করার জন্য বাবা-মায়ের কাছে বারবার অনুরোধ করছিল। কিন্তু তার অনুরোধ কিছুতেই কানে তোলেননি তারা। অবশেষে হতাশ হয়ে শুক্রবার এই চরম পদক্ষেপ। খবর এনডিটিভি ও ওয়েবসাইটের।

পরিবারের সদস্যদের ভাষ্যের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, নিয়মিত খোলা জায়গায় কাজ সারতে বিব্রতবোধ করছিল ওই মেয়েটি।

এ জন্য সে বাড়িতে একটি শৌচাগার নির্মাণে বাবা-মায়ের কাছে বেশ কয়েকবার অনুরোধ জানিয়েছিল। কিন্তু মেয়ের বিয়ের জন্য অর্থ জমানোর অজুহাতে বাবা-মা শৌচাগার নির্মাণ করেননি। বাবা-মা অনুরোধ না রাখায় গতকাল মেয়েটি এ পথ বেছে নেয়।

ঘটনার সময় বাবা-মা বাড়িতে ছিলেন না। ২০১১ সালের আদমশুমারির তথ্যমতে, ঝাড়খ-ের গ্রামীণ এলাকার ৯২ দশমিক ৪ শতাংশ মানুষের শৌচাগার নেই।

প্রকাশিত : ৫ জুলাই ২০১৫

০৫/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

বিদেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: