আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সাহস নিয়ে খেলে ধারাবাহিকতা রাখতে চায় বাংলাদেশ

প্রকাশিত : ৫ জুলাই ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ টানা ঘরের মাঠে সাফল্য পেয়েছে বাংলাদেশ। ঘরের মাটিতে অপ্রতিরোধ্য হিসেবে নিজেদের প্রমাণও করেছে। পাকিস্তান-ভারতের মতো শক্ত প্রতিপক্ষকে হারিয়ে দিয়েছেÑ এমনকি ক্রিকেটের ক্ষুদ্রতম ফরমেট টি২০ ক্রিকেটেও এখন প্রতিপক্ষরা বাংলাদেশের কাছে নতি স্বীকার করছে। এবার প্রতিপক্ষ শক্তিশালী দক্ষিণ আফ্রিকা, যাদের বিরুদ্ধে আগে দুটি টি২০ খেলে হেরেছে বাংলাদেশ এবং ওয়ানডেতে জিততে পেরেছে মাত্র একবার। কিন্তু এসব পরিসংখ্যান নিয়ে মাথা ঘামাতে নারাজ বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। তিনি চান আগের সিরিজগুলোর ধারাবাহিকতা ধরে রেখে ভাল খেলতে। টি২০ দল হিসেবে শক্তিমত্তায় অনেক তফাত থাকলেও আগের সিরিজে যে আত্মবিশ্বাস ও সাহস ছিল সেটা নিয়েই দক্ষিণ আফ্রিকার মোকাবেলা করতে চান বাংলাদেশ অধিনায়ক। শনিবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন মাশরাফি।

ব্যাটিং এবং বোলিং উভয় দিক থেকেই দারুণ সামঞ্জস্যপূর্ণ দল দক্ষিণ আফ্রিকা। র‌্যাঙ্কিং বিবেচনা এবং দলের সমন্বয় অনুসারে বেশ পিছিয়ে আছে বাংলাদেশ। এ বিষয়ে মাশরাফি বলেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকার শক্তি সম্পর্কে আমরা সবাই জানি। তবে আমি মনে করি, যেহেতু আমরা দল হিসেবে নামব, তাই আমাদের শক্তি সম্পর্কে আমাদের চিন্তা করাই ভাল। ওদের সঙ্গে খেলা সব সময় চ্যালেঞ্জিং। কারণ ওদের প্রতিটি ক্রিকেটারের বিশ্বাস বেশ দৃঢ়। কিন্তু আমরা আমাদের খেলা নিয়ে চিন্তা করছি। যেভাবে শেষ কয়েকটা সিরিজ খেলে এসেছি সেই আত্মবিশ্বাস ধরে রেখে ভাল খেলার চেষ্টা করব।’ দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে অতীত রেকর্ডটাও তেমন ভাল নয় বাংলাদেশের। দুটি টি২০ ম্যাচের কোনটিতেই সুবিধা করতে পারেনি বাংলাদেশ। তবে সর্বশেষ কয়েকটা সিরিজে অদম্য হয়ে উঠেছে বাংলাদেশ। এ বিষয়ে মাশরাফি বলেন, ‘আসলে অতীতে কী হয়েছে সেটা কোনভাবে সাহায্য করে না। আমরা শেষ যে সিরিজ জিতেছি সেটা আমাদের এই সিরিজে কোনভাবে কাজে লাগবে না। নির্দিষ্ট দিনে আমাদের ভাল শুরু করতে হবে এবং শেষটা ভাল করতে হবে। আমি বিশ্বাস করি ধারাবাহিকতা থাকায় আত্মবিশ্বাস থাকবে। কারণ দলটা এখন ভাল করছে। যে দল ভাল করে তাদের আত্মবিশ্বাস থাকে।’

সর্বশেষ টি২০ ম্যাচে পাকিস্তানকে হারিয়ে দিতে পারলেও সব সময় এ ফরমেটে বড় প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে এখনও আন্ডারডগই বাংলাদেশ। এ বিষয়ে মাশরাফি বলেন, ‘আমাদের রেকর্ড ভাল না। টি২০-তে আমরা খুবই কম খেলি। আমাদের একজন অভিজ্ঞ ক্রিকেটার আছে যে সারাবিশ্বে খেলে, সাকিব। আর ওদের ৮-১০ ক্রিকেটার আছে যারা প্রতিনিয়ত সারাবিশ্বে খেলছে। অনেক তরুণ ক্রিকেটারও আছে। এই জায়গাতে তারা এগিয়ে আছে। তবে এটা শুধুই পরিসংখ্যান। মাঠে যদি আমরা ভাল খেলতে পারি তাহলে খেলাটা অবশ্যই অন্যরকম হবে।’ মূলত স্পিনে দুর্বলতা বেশি থাকায় সেটা দিয়েই সফরকারীদের চেপে ধরবে বাংলাদেশ দল এমনটাই অনেকে ভাবছেন। কিন্তু অধিনায়ক মাশরাফি এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘ওরা কিছু কিছু জায়গায় আমাদের আটকাতে পারে। ফিল্ডিংয়ে ১৫-২০ রান আটকাতে পারে। বোলিং অসাধারণ। ব্যাটিংয়ে ওদের কিছু ব্যাটসম্যান আছে, দুই-তিনজন আলাদা ধরনের খেলোয়াড় আছে। এক হাতে তারা ম্যাচ জিতিয়ে দিতে পারে। এসব জায়গায় তারা কিছুটা এগিয়ে আছে। আমাদের পজিটিভ দিক হচ্ছে সাহস নিয়ে খেলতে পারা। টি২০ ক্রিকেট হচ্ছে সাহস নিয়ে খেলা। শক্তি আমাদের স্পিনেই। কিন্তু এখন যারা পেসার আসছে তারা স্পিনের সঙ্গে সমানতালে ভাল করছে। তারাও এখন দলের জন্য অনেক বড় অবদান রাখছে।’ ভারতের বিরুদ্ধে চার পেসার নিয়েও খেলেছে বাংলাদেশ। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে দলের সমন্বয় কেমন হবে? এ বিষয়ে মাশরাফি বলেন, ‘কিভাবে সাজাতে চাই সেটা এখন বলতে পারছি না। তবে আমি এখনও মনে করি, চাইলে বোলাররাও ম্যাচ জেতাতে পারে। তবে কোন দল যদি ২০০ করে ফেলে সেটা আমাদের জন্য খুব কঠিন হবে। কিন্তু আমরা যদি ১৫০-১৬০ এর ভেতর রাখতে পারি তাহলে ব্যাটসম্যানদের সুযোগটা থাকবে। আমি মনে করি, বোলাররাই ম্যাচ জেতাতে পারবে।’

প্রকাশিত : ৫ জুলাই ২০১৫

০৫/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: