মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

চিঠির উত্তর দিসরে বন্ধু যদি মোনে লয়

প্রকাশিত : ৪ জুলাই ২০১৫

চিঠির উত্তর দিসরে বন্ধু, যদি মনে লয়, কাগজ গেল দিস্তায় দিস্তায় কলম গ-া ছয়Ñ কিংবা ‘চিঠি লিখলাম ও লিখলাম তোমাকে-পরে জবাব দিয়োগো আমাকে’ চিঠি নিয়ে এরকম হাজারো গান আজ কেবলই স্মৃতি। প্রিয়জনের কাছে লেখা চিঠির প্রচলন তথ্য প্রযুক্তির যুগে হারিয়ে গেছে। এখন আর সেই আগেকার দিনের মতো পিয়নের পানে চেয়ে থাকতে হয় না প্রিয়জনদের।

শুধু রোমান্টিক মুহূর্তের জন্যই চিঠির ব্যবহার ছিল না। প্রাচীনকাল থেকেই মানুষের জীবন, প্রকৃতি, রাজনীতি, সমাজনীতিসহ সব কিছুতেই যোগাযোগের একমাত্র উপায়ই ছিল চিঠির ব্যবহার। বিভিন্ন দেশের মণিষী ও রাজনীতিবিদদের কাছে লেখা চিঠি দিয়ে ইতোমধ্যে তৈরি হয়েছে অসংখ্য গ্রন্থ। ওইসব চিঠির গ্রন্থে উঠে এসেছে সময় ও মানুষের জীবনযাত্রার প্রকৃত ইতিহাস। চিঠির মাধ্যমে যোগাযোগের সূত্র ধরে ভালবেসে বিয়ে করে দীর্ঘ ১৬ বছরের সুখের সংসার করছেন গৃহিণী শাহারা শারমিন সিমা বলেন, সব কথা মুখে বলা যায় না। মোবাইল ফোনের এসএমএসেও সব কথা লেখা যায় না। তাই চিঠির কোন বিকল্প নেই। তিনি আরও বলেন, আমাদের ভালবাসার তিন বছরে আমি ওর কাছে অসংখ্য চিঠি লিখেছি। সেও অসংখ্য চিঠি লিখেছে আমার কাছে। আমাদের লেখা সেসব চিঠি আজো স্মৃতি হয়ে রয়েছে।

কবি ও সাহিত্যিক শিকদার রেজাউল করীমের মতে, চিঠিতে শুধু বিষয় বৈচিত্রই নয়, মনের কথা লিখবার আকুতি তা বলবার ধরনেরও ছিল নানা আঙ্গিক। চিঠি লেখার মাঝেও রয়েছে নানা বৈচিত্র্য। যেমন চিঠির শুরুতেই ‘এলাহী ভরসা’ লেখার প্রচলন আজো রয়েছে।

Ñখোকন আহম্মেদ হীরা

বরিশাল থেকে

প্রকাশিত : ৪ জুলাই ২০১৫

০৪/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: