কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

বাংলাদেশ মধ্য আয়ে উন্নীত হলেও খালেদা নিশ্চুপ ॥ আওয়ামী লীগ

প্রকাশিত : ৪ জুলাই ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ নিম্ন মধ্য আয়ের দেশের তালিকায় উন্নীত হওয়ার পরও বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া নিশ্চুপ থাকায় তাঁর কড়া সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগ নেতারা। তাঁরা বলেন, আসলে উনি (খালেদা জিয়া) এখনো হীনমন্যতা থেকে বের হতে পারেননি। আর বিএনপি নেত্রীর মুখে নির্বাচনের কথা মানায় না। বাস্তবে খালেদা জিয়া নির্বাচন করতে ভয় পান। এ কারণে নির্বাচন এলে উনি পালিয়ে বেড়ান। নির্বাচন অবশ্যই হবে, তা ২০১৯ সালে। এর আগে নয়।

শুক্রবার রাজধানী ঢাকায় পৃথক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে তাঁরা এসব কথা বলেন। ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন অব বাংলাদেশ (আইইবি)’তে চলমান রাজনীতি নিয়ে আওয়ামী তরুণ লীগ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাম-লীর সদস্য ও প্রবীণ পার্লামেন্টারিয়ান সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত নিম্ন আয়ের দেশ থেকে বাংলাদেশ নিম্ম মধ্য আয়ের দেশের তালিকায় উন্নীত হয়েছে মর্মে বিশ্বব্যাংকের স্বীকৃতিতে বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, আমরা জানতাম না যে, ওরা (বিশ্বব্যাংক) এ কথা বলতে পারবে। যারা পদ্মা সেতুতে কথিত দুর্নীতির অভিযোগ তুলে টাকা ফেরত নিল, তারাই এই স্বীকৃতি দিল। আসলে কেউ কিছু অর্জন করলে সে অর্জন স্বীকার করতে হয়। এই অর্জনের একক কৃতিত্ব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। বিশ্বব্যাংকের এই স্বীকৃতি আগামী দিনে নিম্ন মধ্য আয়ের দেশ থেকে বেরিয়ে এসে মধ্য আয়ের দেশে পরিণত করতে আত্মবিশ্বাসে শক্তি জোগাবে।

‘সরকার নির্বাচন দিতে ভয় পায়’ বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, বাস্তবে খালেদা জিয়াই নির্বাচন করতে ভয় পান। এ কারণে নির্বাচন এলেই উনি পালিয়ে বেড়ান। গণতান্ত্রিক পথে রাজনীতি করতে হলে খালেদা জিয়াকে আগে উগ্রবাদী জামায়াতে ইসলামীকে পরিত্যাগ করতে হবে।

‘দলীয় লোকদের বাধার কারণে ব্যাংক জালিয়াতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা যাচ্ছে না’ সম্প্রতি সংসদে অর্থমন্ত্রীর এমন মন্তব্য উল্লেখ করে সুরঞ্জিত বলেন, দেশ ও দলের কাছে একমাত্র অপরিহার্য হলেন শেখ হাসিনা। দেশের অগ্রগতির পথে বাধা দেয়ার জন্য; যদি কেউ বাধা হয়ে দাঁড়ায়, তাদের বিরুদ্ধে আপনাকে (শেখ হাসিনা) ব্যবস্থা নিতেই হবে।

লতিফ সিদ্দিকী প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সংসদ সদস্য পদ যায় দুই কারণে। একটি হলো দলের বিরুদ্ধে সংসদে ভোট দিলে। আরেকটি ওই সংসদ সদস্য দল থেকে পদত্যাগ করলে। কিন্তু তিনি কোনটিই করেননি। তাই বুঝতে হবে, তাঁর (লতিফ সিদ্দিকী) সদস্য পদ আছে।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি মোসলেহউদ্দিন মসুর সভাপতিত্বে আলোচনাসভায় আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক নারায়ণ দেবনাথ, তরুণ লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম, সাম্যবাদী দলের নেতা হারুন চৌধুরী প্রমুখ।

হীনমন্যতা থেকে বের হতে পারেননি খালেদা জিয়া- ড. হাছান ॥ আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিশ্বব্যাংকের সূচকে বাংলাদেশ একধাপ এগিয়েছে। এতে বিশ্ব সম্প্রদায়সহ অনেকেই বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানিয়েছে। খালেদা জিয়ার কাছেও দেশের মানুষ এ ধরনের কিছু আশা করেছিল। কিন্তু তিনি জাতিকে হতাশ করেছেন। আসলে উনি (খালেদা জিয়া) এখনো হীনমন্যতা থেকে বের হতে পারেননি।

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে ‘প্রেক্ষাপট চলমান রাজনীতি ঃ বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই দেশ ও জাতির উন্নয়ন’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন। বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখা এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

‘বিচার বিভাগের কোন স্বাধীনতা নেই, আদালতে গিয়ে কোন বিচার পাওয়া যায় না’- মর্মে সম্প্রতি খালেদা জিয়ার বক্তব্যের সমালোচনা করে হাছান মাহমুদ বলেন, মন্ত্রীর বিরুদ্ধেও বাংলাদেশের আদালত রায় দেয়। এরপরও কি প্রমাণিত হয় না বিচার বিভাগ স্বাধীন? দয়া করে বিচার বিভাগ নিয়ে কেউ কোন প্রশ্ন তুলবেন না।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি করিম আহমেদের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি জিন্নাত আলী খান, সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক, মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাই কানু, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা প্রমুখ।

প্রকাশিত : ৪ জুলাই ২০১৫

০৪/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: