রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

ইন্দোনেশিয়ায় বিধ্বস্ত বিমান

প্রকাশিত : ৩ জুলাই ২০১৫

৩০ জুন ইন্দোনেশিয়াজুড়ে শোকের ছায়া নেমেছিল। দেশটির মেদানে শহর বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ১৪১ জন মানুষ প্রাণ হারান। হারকিউলিস সি-১৩০ নামের সামরিক বাহিনীর বিমানটি শহরের একটি আবাসিক হোটেল ও কয়েকটি বাড়ির সঙ্গে ধাক্কা খায়। এতে বিস্ফোরিত হয়ে আগুন ধরে যায় বিমানে। ১২২ জন আরোহীর সবাই নিহত হন। এছাড়া ভূমিতে থাকা আরও ১৯ জন নিহত হন। বিমানযাত্রীদের অধিকাংশই ছিলেন বিমান বাহিনীতে চাকরিরতদের আত্মীয়স্বজন। বিমানটি মেদানের বিমান ঘাঁটি থেকে সুমাত্রার তানজুং পিনাং দ্বীপে যাচ্ছিল । উড্ডয়নের পরপরই কারিগরি ত্রুটি দেখা দেয়ায় পাইলট ফিরে যেতে চেয়েছিলেন বিমান ঘাঁটিতে। কিন্তু ফিরে যাওয়া হলো না। হোটেলের ছাদে ধাক্কা খেয়ে বিধ্বস্ত হয়ে সোজা নিচে পড়ে যায়। এই বিমান দুর্ঘটনা ইন্দোনেশিয়ার সেনা বিমানগুলোর দুর্বলতাকে আবারও জানান দিল।

এভিয়েশন সেফটি নেটওয়ার্কের পরিসংখ্যান অনুযায়ী গত এক দশকে ইন্দোনেশিয়ার সেনা ও পুলিশের দশটি বিমান মারাত্মক দুর্ঘটনায় পতিত হয়েছে। গত বছরের ডিসেম্ববরই এয়ার এশিয়ার ফ্লাইট কিউজেড ৮৫০১ বিমানটি ইন্দোনেশিয়ার সুরাবায়া থেকে সিঙ্গাপুর যাওয়ার সময় বিধ্বস্ত হয়ে ১৬২ আরোহী নিহত হন। ছয় মাসের মাথায় আরেকটি বড় বিমান দুর্ঘটনা ইন্দোনেশিয়ার বিমান ও বিমান রুটকেই প্রশ্নবিদ্ধ করে তুলেছে।

প্রকাশিত : ৩ জুলাই ২০১৫

০৩/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: