মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

‘ঘোষণা যাদের, গাড়ি পোড়ানোর দায়ও তাদের’

প্রকাশিত : ২ জুলাই ২০১৫, ০২:০২ পি. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার মাহবুব হোসেনকে উদ্দেশ্যে করে প্রধান বিচারপতি বলেছেন, যেহেতু আপনারা আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন, তার ফলে এই গাড়ি পোড়ানো হয়েছে, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড হয়েছে। অতএব এর দায়িত্ব আপনাদের নিতে হবে।

বৃহস্পতিবার মির্জা ফখরুল ইসলামের জামিন শুনানিতে প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা এমন কথা বলেছেন বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন খন্দকার মাহবুব হোসেন।

খন্দকার মাহবুব বলেন, প্রধান বিচারপতির এমন বক্তব্যের পর আমি জবাবে বলেছি- দেশনেত্রী (খালেদা জিয়া) বার বার বলেছেন শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন হবে। আমাদের মহাসচিবের তরফ থেকেও এমন কোনো বক্তব্য নেই যে, কোনো রকম উসকানি দিয়েছেন। তার (ফখরুল) বিরুদ্ধে একমাত্র অভিযোগ উসকানি দেওয়া। রাষ্ট্রপক্ষও বলেছে তার উসকানির কথা। বিষয়টি এখন বিচারে রয়েছে। বিচারে প্রমাণ হলে তখন দেখা যাবে।

এদিকে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম সাংবাদিকদের বলেন, ফখরুল সাহেব জামিনের দরখাস্ত দিয়েছিলেন। হাইকোর্ট তাকে জামিন দিয়েছেন। আমরা তার বিরুদ্ধে আপিল করেছি। আজ আপিল বিভাগে শুনানি হয়েছে।

‘শুনানিতে বলেছি, কোনো রাজনৈতিক প্রোগ্রামের যদি ঘোষণা দেওয়া হয় এবং তার পরিপ্রেক্ষিতে যদি ধংসাত্মক কাজ হয় বা কাউকে হত্যা করা হয়, সম্পত্তি ধ্বংস করা হয় সে ক্ষেত্রে রাজনৈতিক দলের নেতৃত্বে যারা আছেন তারা দায় থেকে অব্যাহতি পেতে পারেন না।’

মাহবুবে আলম বলেন, এখানে পল্টন থানার তিনটি মামলা। একটা ৪, একটা ৫ জানুয়ারি, আরেকটা ৬ জানুয়ারি। অর্থাৎ, একদিন পর পর তারা ঘটনাটা ঘটিয়েছিলো। এ ধ্বংসযজ্ঞ চালানো হতো না যদি না রাজনৈতিক প্রোগ্রামগুলো ডাকা না হতো। কাজেই রাজনৈতিক প্রোগ্রাম দেওয়ার ফলে যদি কোনো রকম সম্পত্তি নষ্ট হয়, মানুষ মারা যায় এবং মানুষের ক্ষতি হয়, সেক্ষেত্রে এ ঘোষণা দেওয়ার অন্তরালে প্রোগ্রাম দেওয়ার পিছনে যাদের ভূমিকা বা নেতৃত্বস্থানীয় ব্যক্তি, তাদের দায় দায়িত্ব তাদের ওপর বর্তাবে। এ কথাটা আমি আজ বলেছি।

যারা প্রোগ্রামের ঘোষণা দেন তারা ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ডের দায় এড়াতে পারে না- প্রধান বিচারপতি কি এরকম কথা বলেছেন। এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, হ্যাঁ এ কথা বলেছেন। ফৌজদারি কার্যবিধিতে এ রকম রয়েছে।

এদিকে এ তিন মামলায় শুনানি শেষে আদেশের জন্য রোববার দিন ধার্য করেছেন আপিল বিভাগ। এ তিন মামলায় জামিন বহাল থাকলে জামিনে মুক্তি পাবেন প্রায় ছয় মাস কারাবন্দি থাকা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল।

প্রকাশিত : ২ জুলাই ২০১৫, ০২:০২ পি. এম.

০২/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: