মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

অতন্দ্র প্রহরীর খোঁজে বাফুফে...

প্রকাশিত : ১ জুলাই ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ফুটবল যেমন গোলের খেলা, তেমনি গোল বাঁচানোরও খেলা। ফরোয়ার্ডনরা যেমন গোল করার জন্য সুযোগ খোঁজেন, তেমনি গোলরক্ষকরাও গোল বাঁচাতে তৎপর থাকেন। গুরুত্বের বিচারে তাই গোলরক্ষকরা কোন অংশেই ফরোয়ার্ডদের চেয়ে কম নন। যুগে যুগে অনেক গোলরক্ষকই স্বীয় নৈপুণ্যে সমুজ্জ্বল হয়ে ফুটবল মাঠ মাতিয়েছেন। যেমন লেভ ইয়াসিন, গর্ডন ব্যাঙ্কস, দিনো জফ, সেপ মেয়ার, রেনে হিগুইতা, জোসে চিলাভার্ট, অলিভার কান, সের্গেই গোয়কোচিয়া, ইকার ক্যাসিয়াস, পিটার চেক, জিয়ানলুইজি বুফন প্রমুখ। বাংলাদেশের সেরা গোলরক্ষকদের মধ্যে আছেন শহীদুর রহমান সান্টু, মোহাম্মদ মোহসীন, সাঈদ হাসান কাননসহ অনেকেই। তালিকার সর্বশেষ তারকা গোলরক্ষক ছিলেন দুজন। আমিনুর হক এবং বিপ্লব ভট্টাচার্য্য। আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসর নেয়ার পর তাদের মানের কোন গোলরক্ষক বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলে এখনও আসেনি। সম্প্রতি জাতীয় দল যেসব আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলছে, তাতে বেশিরভাগ হারই হচ্ছে গোলরক্ষকদের ভুলের কারণে। এ সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য গভীরভাবে ভাবছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। এ জন্য তারা কাজে লাগাতে চায় জাতীয় দলের জার্মান গোলরক্ষক কোচ ক্রিস্টিয়ান শোয়েচলারকে। শোয়েচলারের সঙ্গে সম্প্রতি বাফুফে আরও এক বছর চুক্তির মেয়াদ নবায়ন করেছে। ইতোমধ্যেই বাফুফের অনুমতি নিয়ে শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাবের গোলরক্ষক কোচ হিসেবে কাজ করছেন। চুক্তির মেয়াদ অনুযায়ী বাংলাদেশে আরও ছয়-সাত মাস থাকবেন শোয়েচলার। বাফুফের পরিকল্পনা হচ্ছে দেশের বিভিন্ন জেলায় গিয়ে (সেখানকার জেলা ফুটবল সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় করে) বিভিন্ন বয়সভিত্তিক (অনুর্ধ ১৩, ১৫, ১৭ ও ১৯) প্রতিভাবান গোলরক্ষক খুঁজে বের করুন শোয়েচলার। এ প্রসঙ্গে বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ বলেন, ‘এ রকম ২০-৩০ গোলরক্ষকদের পরবর্তীতে সিলেটে অবস্থিত বাফুফে ফুটবল একাডেমিতে দীর্ঘমেয়াদী প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। তারপর তাদের বিভিন্ন ক্লাবগুলোতে খেলানোর ব্যবস্থা করে দেয়া হবে। এখানে খেলে তারা নিজেদের আরও শাণিত করবে এবং ভবিষ্যতে নিজেদের যোগ্যতা দিয়েই ঠাঁই করে নেবে জাতীয় ফুটবল দলে।’ সোহাগ আরও জানান, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যেই বাফুফে ডেভেলপমেন্ট কমিটি এই বিষয়টি নিয়ে শোয়েচলারের সঙ্গে বৈঠকে বসবে। তবে ইতোমধ্যেই বিষয়টির সারসংক্ষেপ শোয়েচলারকে জানানো হয়েছে এবং তাতে শোয়েচলার নিজেও আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। এখন আপাতত ঢাকা ক্লাবে থাকছেন এই জার্মান কোচ। এখন দেখার বিষয়, অতন্দ্র প্রহরীদের নিয়ে বাফুফের এই সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা আগামীতে কতটা আলোর মুখ দেখে।

৩৬ বছর বয়স্ক (জন্ম : ১৯৭৮ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর) গোলরক্ষক কোচ ক্রিস্টিয়ান শোয়েচলার। ৬ ফুট ২ ইঞ্চি উচ্চতার অধিকারী জার্মানির এই গোলরক্ষক কোচ ইউরোপিয়ান (উয়েফা), আফ্রিকান (সিএফ) এবং এশিয়ান (এএফসি) সংস্থাগুলোর ক্লাব ও জাতীয় দলগুলোতে কোচিং করানোর অভিজ্ঞতা সম্পন্ন। কাজ করেছেন সুদানের আল-মেরিখ স্পোর্টিং ক্লাব (২০০৯-১০), লেবানন জাতীয় ফুটবল দল (২০১২-১৩) এবং সর্বশেষ সৌদি আরবের ইত্তিফাক ফুটবল ক্লাবে (২০১৩)। আল-মেরিখের হয়ে কাজ করা সময় তার ক্লাব ২০১০ সালে জেতে ‘সুদান কাপ।’ এছাড়া দলটি সিএএফ চ্যাম্পিয়ন্স লীগের মূলপর্বে উত্তীর্ণ হয়। শোয়েচলার ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপের মূলপর্বে লেবাননকে উন্নীত করার লক্ষ্যে নিয়োগপ্রাপ্ত হন ২০১২ সালে। তবে মূলপর্বে লেবনান যেতে না পারলেও দলটি তাদের ইতিহাসের সেরা সাফল্য পায় বাছাইপর্বে ইরানকে ১-০ গোলে হারিয়ে। ইরানের পর্তুগীজ কোচ কালোর্স কুইরোজ লেবানন দলের গোলরক্ষক আব্বাস হাসানের ভূয়সী প্রশংসা করতে বাধ্য হন। প্রকৃতপক্ষে আব্বাসের এই প্রশংসার কৃতিত্ব যায় শোয়েচলারের ঝুলিতেই।

শোয়েচলার নিজ দেশের জার্মান স্পোর্ট ইউনিভার্সিটি কলোগনে থেকে পড়াশোনা করেছেন স্পোর্টস সাইন্স বিষয় নিয়ে। জার্মান ফুটবল এ্যাসোসিয়েশন (ডিএফবি) এবং রয়্যাল ডাচ্ ফুটবল একাডেমি এ্যাসোসিয়েশন (কেএনভিপি) থেকে গোলকিপিং সংক্রান্ত সনদপত্র লাভ করেন। ২০০৮-০৯ পর্যন্ত কাজ করেন জার্মান গোলকিপার স্কুলে। এছাড়া ২০০০-০৮ পর্যন্ত কাজ করেন জার্মান ফুটবল একাডেমিতে। শোয়েচলারের ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট ঘেঁটে জানা গেছে তার রয়েছে কোচ হিসেবে ১৫ বছরের অভিজ্ঞতা রয়েছে তার।

প্রকাশিত : ১ জুলাই ২০১৫

০১/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: