মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

১৮ বছরের কম বয়সীর জাতীয় পরিচয়পত্র ॥ নিবন্ধন শুরু ২৫ জুলাই

প্রকাশিত : ১ জুলাই ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ১৮ বছরের কম বয়সীদের জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদানের জন্য নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হচ্ছে আগামী ২৫ জুলাই থেকে। নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে দুই স্তরে ১৮ বছরের কম বয়সীদের নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু করা হবে। প্রথম পর্যায়ে ১৭ বছর বয়সীদের নিবন্ধন করা হবে ২৫ জুলাই থেকেই। দ্বিতীয় পর্যায়ে ২২ অক্টোবর থেকে নিবন্ধন কর্যক্রম শুরু করা হবে ১৫ ও ১৬ বছর বয়সীদের। নিবন্ধনকৃত ১৭ বছর বয়সীদের ২০১৬ সালের ১ জানুয়ারিতে খসড়া ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করা হবে। আর ১৫ ও ১৬ বছর বয়সীদের ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হবে ২০১৮ সালের ১ জানুয়ারিতে।

নির্বাচন কমিশন সচিব মোঃ সিরাজুল ইসলাম জানান, বর্তমানে যাদের বয়স ১৫ থেকে ১৭ বছর, দুই স্তরে তাদের তথ্য সংগ্রহের জন্য ইসির অনুমোদন পাওয়ার পর মঙ্গলবার পরিপত্র জারি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবারের মধ্যে সংবাদ সম্মেলন করে পুরো কর্মসূচী তুলে ধরা হবে বলে জানান তিনি। দেশের সব উপজেলায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার তালিকা হালনাগাদের মতোই চলবে তথ্য সংগ্রহের এ কাজ। আঠারোর কম বয়সীদের ভোটার হওয়ার সুযোগ না থাকলেও এবারই প্রথম তাদের নিবন্ধনের আওতায় আনা হচ্ছে।

জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সুলতানুজ্জামান মোঃ সালেহ উদ্দীন জানান, ১৫-১৭ বছর বয়সী নাগরিকদের সম্ভাব্য সংখ্যা হতে পারে ৭২ লাখ। ছয় মাস ধরে তাদের নিবন্ধন কাজ শেষ করতে প্রায় ৮১ কোটি টাকা সম্ভাব্য ব্যয় ধরা হয়েছে।

কমিশন জানিয়েছে মঙ্গলবার পরিপত্র জারির মাধ্যমে সারাদেশের সব থানা-উপজেলা-জেলা কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় কার্যক্রম হাতে নেয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন। নিবন্ধন কার্যক্রমে ১৫ থেকে ১৭ বছর বয়সী সব নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহ করতে বয়স প্রমাণের জন্য শিক্ষার্থীদের উচ্চ মাধ্যমিকের রেজিস্ট্রেশন কার্ড আমলে নেয়া হবে। তা না থাকলে জন্মসনদও বিবেচ্য হবে। এসব নাগরিকরা ১৮ পূর্ণ হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবেই ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হবেন এবং ভোট দিতে পারবেন।

এছাড়া পরবর্তীতে শূন্য থেকে ১৫ বছরের কম বয়সী নাগরিকদেরও জাতীয় পরিচয়পত্রও দেবে ইসি। এতে প্রথম ভাগে শূন্য থেকে ৬ মাস, দ্বিতীয় ভাগে ৬ মাস থেকে ৬ বছর বয়স পর্যন্ত, এরপর ৬ বছর থেকে ১২ বছর বয়সীদের আওতায় আনা হবে।

বর্তমানে দেশে ভোটার আছেন ৯ কোটি ৬২ লাখের মতো। এর মধ্যে পরিচয়পত্র দেয়া হয়েছে ৯ কোটি ২০ লাখের। তবে এখনও ভোটার আইডি কার্ড হাতে পাননি ৪২ লাখের মতো নাগরিক।

প্রকাশিত : ১ জুলাই ২০১৫

০১/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: