কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

‘মৎস উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে’

প্রকাশিত : ৩০ জুন ২০১৫, ০২:১৭ পি. এম.

অনলাইন ডেস্ক ॥ মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী মোহাম্মদ ছায়েদুল হক বলেছেন, ২০১৩-১৪ অর্থবছরে দেশে ৩৫ লাখ ৪৮ হাজার মেট্রিক টন মাছ উৎপাদন হয়েছে। ২০০৮-০৯ অর্থবছরে এর পরিমাণ ছিল ২৭ লাখ ১ হাজার মেট্রিক টন। তিনি বলেন, দেশে মৎস উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে।

তিনি আজ সংসদে সরকারি দলের সদস্য বেগম পিনু খানের এক প্রশ্নের জবাবে আরো বলেন, বর্তমান মৎস্য বান্ধব সরকারের গৃহীত উন্নয়নমুখী বহুবিধ কার্যক্রম এবং চাহিদা মাফিক সম্প্রসারণ সেবা প্রদানের ফলে দেশের মৎস উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, মৎস্য উৎপাদনে এ বৃদ্ধির ফলশ্রুতিতে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ মুক্ত জলাশয় থেকে মৎস্য উৎপাদনের ক্ষেত্রে বিশ্বে চতুর্থ এবং অভ্যন্তরীণ বদ্ধ জলাশয়ে মৎস্য উৎপাদনে পঞ্চম স্থান লাভ করেছে।

তিনি বলেন, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে মৎস্য সেক্টরের অবদান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও অনস্বীকার্য। মোট দেশজ উৎপাদনের ৩ দশমিক ৬৯ শতাংশ, মোট কৃষিজ আয়ের ২২ দশমিক ৬০ শতাংশ এবং রফতানি আয়ের ২ শতাংশের অধিক আসে মৎস্য উপখাত থেকে। দৈনন্দিন খাদ্যে প্রাণিজ আমিষের প্রায় ৬০ শতাংশ যোগান দেয় মাছ। দেশের মোট জনগোষ্ঠীর প্রায় ১ কোটি ৭৭ লাখ বা ১১ শতাংশ লোক প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে মৎস্য সেক্টরের বিভিন্ন কার্যক্রমে নিয়োজিত।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী বলেন, দেশের মৎস্য সম্পদের উৎপাদন ও প্রজনন বৃদ্ধিতে বর্তমান সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট মৎস্য সম্পদের উৎপাদন ও প্রজনন বৃদ্ধির লক্ষ্যে নিরবচ্ছিন্ন গবেষণা পরিচালনা করে আসছে। ইতোমধ্যে ইনস্টিটিউট থেকে রুই জাতীয় মাছের নতুন জাত উদ্ভাবন করা হয়েছে, যা বর্তমান জাতের চেয়ে ১৬ শতাংশ অধিক উৎপাদনশীল। এছাড়া দেশীয় মাছের সহনশীল মাত্রায় উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ইনস্টিটিউট থেকে এসব মাছের চাষ ব্যবস্থাপনা ও প্রজনন বিষয়ক ৪৯টি প্রযুক্তি উদ্ভাবন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, রূপকল্প ২০২১ অনুযায়ী মাছের উৎপাদন ৪২ লাখ মেট্রিক টনে উন্নীত করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট এবং মৎস্য অধিদপ্তর যৌথভাবে কাজ করছে।

সূত্র: বাসস

প্রকাশিত : ৩০ জুন ২০১৫, ০২:১৭ পি. এম.

৩০/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: