কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সময় শেষ, চামড়ার একটি কারখানাও স্থানান্তর হয়নি

প্রকাশিত : ৩০ জুন ২০১৫, ০২:১৬ পি. এম.

অনলাইন ডেস্ক ॥ রাজধানীর হাজারীবাগ এলাকায় ৬৫ বছরের বেশি সময় আগে থেকে বিভিন্ন চামড়ার কারখানা গড়ে ওঠে। কিন্ত ব্যাপক পরিবেশ দূষণ ও জনস্বাস্থ্যের হুমকির কারণে সেখান থেকে কারখানাগুলো সরিয়ে সাভারের হরিনদিয়া নামের একটি স্থানে নেয়ার উদ্যোগ শুরু হয় একযুগ আগে।

২০০৩ সালে ওই স্থানান্তরের প্রক্রিয়া শুরু হলেও, সরকারের ক্ষতিপূরণের আশ্বাস আর দফায় দফায় সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে।

কিন্তু এখনো একটি কারখানাও স্থানান্তরিত হয়নি।

এক হাজার কোটি টাকার বেশি ব্যয়ে দুশো একর জায়গাজুড়ে অবকাঠামো নির্মাণ করে সাভারের চামড়া শিল্প নগরী গড়ে তোলার উদ্যোগ নেয়া হয়।

দেড়শোর বেশি কারখানাকে প্লটও বরাদ্দ দেয়া হয়। চলছে সরকারি খরচে কেন্দ্রীয় বর্জ্য শোধনাগার নির্মান কাজ।

তবে সেখানে গিয়ে দেখা যায় কারখানা স্থাপনের কাজ এখনও একেবারেই প্রাথমিক পর্যায়ে।

কিন্তু পরিবেশবিদরা বলছেন, যত দ্রুত সম্ভব হাজারীবাগ থেকে কারখানা গুলো সরিয়ে নেয়া প্রয়োজন।

কারণ অপরিকল্পিতভাবে গড়ে ওঠা এসব কারখানা থেকে প্রতিদিন ২২ হাজার ঘণমিটার বর্জ্য নির্গত হচ্ছে যা মিশে যাচ্ছে বুড়িগঙ্গা নদীতে।

পরিবেশবাদীদের সংগঠন পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন এর সভাপতি পবার আবু নাসের খান বলছেন, "মালিক বা শ্রমিক কেউই চান না হাজারীবাগ এলাকা থেকে সরে যেতে। কিন্তু যতদিন এই এলাকায় এসব শিল্প-কারখানা থাকবে তা স্থানীয় মানুষদের স্বাস্থ্য ঝুঁকির কারণ হয়েই থাকবে"।

সর্বশেষ ২০১৫ সালের জুন মাসের মধ্যে কারখানাগুলোকে স্থানান্তরের সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়েছিল, কিন্তু তা-ও ব্যর্থ হয়েছে।

তবে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলছেন, "সাভারে যাওয়া ছাড়া কারখানা গুলোর আর কোনও বিকল্প নেই। কারণ তারা যদি সাভারে না যায় তাহেলে আমরা হাজারীবাগ বন্ধ করে দেব। আমাদের পক্ষ থেকে যেসব পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে এরপরও তারা না গেলে সাফার করবে"। সূত্র: বিবিসি বাংলা

প্রকাশিত : ৩০ জুন ২০১৫, ০২:১৬ পি. এম.

৩০/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: