আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সামনে ঈদ ॥ দক্ষিণাঞ্চলে বেড়েছে সন্ত্রাসীদের দৌরাত্ম্য

প্রকাশিত : ৩০ জুন ২০১৫

খোকন আহম্মেদ হীরা, বরিশাল ॥ ঈদ-উল ফিতরকে সামনে রেখে হঠাৎ করে বরিশালসহ গোটা দক্ষিণাঞ্চলে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী, ডাকাত, ছিনতাইকারী, চাঁদাবাজ, মাদক ব্যবসায়ী, অজ্ঞান ও মলমপার্টির দৌরাত্ম্য বৃদ্ধি পেয়েছে। এদের অনেকের হাতে রয়েছে অত্যাধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র। আর এসব অপরাধীদের দমনে জিহাদ ঘোষণা করে মাঠে নেমেছেন র‌্যাব-৮। ইতোমধ্যে রবিবার ভোরে বিপুল পরিমাণ অস্ত্রসহ চার ডাকাতকে আটক করেছে র‌্যাব। আটককৃতদের মধ্যে দু’জনই হোটেল শ্রমিক।

সূত্র মতে, র‌্যাব, পুলিশ ও ডিবির অভিযানে প্রায়ই অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও ডাকাত দলের সদস্যরা আটক হচ্ছে। উদ্ধার হচ্ছে অস্ত্র ও মাদক। কিন্তু কিছুতেই কমছে না অপরাধ। তৎপর অপরাধীদের অধিকাংশ ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদকাসক্ত বলে সূত্রটি নিশ্চিত করেছেন। বরিশাল র‌্যাব-৮ এর উপ-অধিনায়ক মেজর আদনান জানান, গোয়েন্দা সূত্রে ঈদ মৌসুমে উল্লেখিত অপরাধীদের দৌরাত্ম্য বৃদ্ধি পাওয়ার খবর পেয়ে রাত তিনটার দিকে র‌্যাবের সিপিএসসির একটি আভিযানিক দল নগরীর বন্দর থানা এলাকায় হানা দেয়। এ সময় দিনারের পোল এলাকার জিরো পয়েন্টের ভোলা রাস্তার মুখের পূর্ব পাশে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ডাকাতদের প্রস্তুতিকালে র‌্যাব সদস্যরা কৌশলে ওই স্থানে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় ডাকাতরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে দৌড়ে পালানোর চেষ্টাকালে র‌্যাব সদস্যরা ঘটনাস্থল থেকে ৪ অস্ত্রধারী ডাকাতকে আটক করতে সক্ষম হলেও বাকি নয়জন পালিয়ে যায়।

আটককৃতরা হলো-বাকেরগঞ্জ উপজেলার কাটাদিয়া গ্রামের জাহাঙ্গীর হাওলাদারের পুত্র হোটেল শ্রমিক মনির হাওলাদার, একই উপজেলার বিরাঙ্গল গ্রামের নরেজ খলিফার পুত্র হোটেল শ্রমিক সবুজ খলিফা, বানারীপাড়া উপজেলার মসজিদবাড়ি এলাকার মন্নান শেখের পুত্র বাবুল শেখ ও বন্দর থানার দুর্গাপুর গ্রামের মৃত জবেদ আলীর পুত্র পেশাদার ডাকাত মোশারফ হোসেন ওরফে সেলিম। এ সময় আটককৃতদের কাছ থেকে ছয়টি বুলেট চড়ানো অবস্থায় একটি দেশীয় তৈরি রিভলবার, একটি একনালা বন্দুক, দুটি তাজা কার্তুজ, ছয়টি রামদা উদ্ধার করা হয়। সূত্রে আরও জানা গেছে, আটককৃতদের স্বীকারোক্তি মতে পালিয়ে যাওয়া ডাকাত সদস্যরা হলো- বাকেরগঞ্জের বলইখাঠি গ্রামের সবুজ হাওলাদার, খোকন হাওলাদার, মজিবর হোসেন, বিপুল ওরফে বিপ্লব, সাইফুল ইসলাম, একই উপজেলার রোদি গ্রামের আরিফ খান, সোহাগ খানসহ অজ্ঞাতনামা আরও তিনজন। আটককৃতরা জানায়, ঈদ মৌসুমকে সামনে রেখে তারা অবৈধ অস্ত্র প্রদর্শনের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকা-সহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় ডাকাতি করে থাকে। এ ঘটনার র‌্যাবের পক্ষ থেকে বন্দর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনার মাত্র ১২ দিন পূর্বে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে বিভিন্ন সরঞ্জামাদিসহ জেলার বিমানবন্দর থানার দক্ষিণ কড়াপুর এলাকা থেকে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের দু’সদস্যসহ পাঁচ ডাকাতকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। থানার ওসি মতিয়ার রহমান জানান, গ্রেফতারকৃত ডাকাতরা হলো-কোতোয়ালি মডেল থানার চন্ডিপুর এলাকার খালেক মৃধার পুত্র দুলাল মৃধা, ঝালকাঠীর নলছিটি উপজেলার ইন্দ্রেরহাওলা গ্রামের মৃত জাহাঙ্গীর হাওলাদারের পুত্র ডালিম হাওলাদার, রাজবাড়ী সদরের বাইলাডিঙ্গি ঢেকিরগাড়ীয়া গ্রামের খালেক শেখের পুত্র সুমন শেখ, একই গ্রামের খালেক সরদারের পুত্র আকতার সরদার ও পিরোজপুরের নেছারাবাদ উপজেলার সোহাগদল গ্রামের বাদশা বেপারীর পুত্র সোহাগ বেপারী।

পোশাক বাজার জমে উঠেছে

ঈদ-উল ফিতরকে সামনে রেখে বরিশালের পোশাক বাজারগুলো ক্রমেই জমে উঠেছে। ব্যবসায়ীদের মধ্যেও রয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি। তবে গত বছরের মতো এবারও ঈদ বাজারের ফ্যাশনে বিদেশী পোশাকের দাপট দেখা গেছে। দেশীয় পোশাকের তুলনায় বিদেশী পোশাক ও থ্রি পিসের কদরই বরিশালের ক্রেতাদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। ঈদ উৎসবে বাহারি ডিজাইন আর জমকালো কারুকাজ করা পোশাক বেছে নিচ্ছেন ক্রেতারা।

প্রকাশিত : ৩০ জুন ২০১৫

৩০/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: