আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ত্রিদেশীয় সিরিজ নিয়ে ভাবছে না বাংলাদেশ

প্রকাশিত : ৩০ জুন ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দ্বিপক্ষীয় সিরিজের ৬ ওয়ানডের মধ্যে জিততে হবে দুটি। তাহলেই ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলার জন্য যে র‌্যাঙ্কিং প্রয়োজন সেটা অর্জিত হবে। এমন পরিসংখ্যান নিয়েই ভারতের বিপক্ষে সিরিজে নেমেছিল বাংলাদেশ দল। টানা দুই ম্যাচ জিতে আগেভাগেই চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি নিশ্চিত করেছে টাইগাররা। বর্তমানে আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে ৭ নম্বরে বাংলাদেশ এবং আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত নিদেনপক্ষে আটে থাকাও নিশ্চিত।

তবে জিম্বাবুইয়ের আমন্ত্রণে আগস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তানকে নিয়ে প্রস্তাবিত ত্রিদেশীয় সিরিজ পাল্টে দিতে পারে ছক। শঙ্কা আছে র‌্যাঙ্কিংয়ে আটেরও নিচে চলে যাওয়ার। কিন্তু প্রস্তাবিত এ সিরিজ নিয়ে ভাবছে না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এক্ষেত্রে বাংলাদেশের কিছু করার নেই বলেই চিন্তার প্রয়োজন নেই বলে মনে করছেন বিসিবি পরিচালক ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস। তিনি অভিযোগ করেন আইসিসির ফিউচার ট্যুর প্রোগ্রামের (এফটিপি) আওতার বাইরে এসে ক্রিকেট খেলুড়ে দেশগুলো অসুস্থ প্রতিযোগিতায় নেমেছে। সোমবার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের টাইটেল স্পন্সরশিপ ঘোষণার সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব বলেন।

ইতোমধ্যেই জিম্বাবুইয়ের প্রস্তাবে সাড়া দিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আগস্টে অনুষ্ঠিতব্য ত্রিদেশীয় আসরে খেলতে রাজি হয়েছে তারা। এখন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) রাজি হলেই সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে। এ সিরিজে যদি পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ পরস্পরের সঙ্গে হারলেও জিম্বাবুইয়ের কাছে না হেরে ফাইনাল খেলে তবেই দু’দল আইসিসি র‌্যাঙ্কিংয়ের সেরা আটে চলে আসবে। বর্তমানে পাকরা ৯ এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৮ নম্বরে অবস্থান করছে। কিন্তু এটিকে অসুস্থ প্রতিযোগিতা মনে করছেন জালাল। সোমবার তিনি বলেন, ‘পাকিস্তান বা ওয়েস্ট ইন্ডিজ কে কাকে হারাল তা নিয়ে আমরা চিন্তা করছি না। সামনে দক্ষিণ আফ্রিকা দল বাংলাদেশে এসে তিন ওডিআই খেলবে, তার অন্তত একটি জিতলেই বাংলাদেশের পয়েন্ট আরও বাড়বে। ফলে আমরা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলার সুযোগ পাব।’ দক্ষিণ আফ্রিকাকে এক ম্যাচে হারাতে পারলেই ত্রিদেশীয় আসরে যাই ঘটুক বাংলাদেশ দলের কোন সমস্যা নেই। এ বিষয়ে জালাল বলেন, ‘বাংলাদেশ আসন্ন সিরিজে ভাল ক্রিকেট খেলবে।’

এফটিপির বাইরে টুর্নামেন্ট আয়োজন করে নিজেদের র‌্যাঙ্কিং বাড়িয়ে নেয়ার এমন প্রবণতা কতখানি যুক্তিগ্রাহ্য এবং গ্রহণযোগ্য? এ বিষয়ে জালাল বলেন, ‘এসব সিরিজ দ্বিপক্ষীয় ভিত্তিতে আয়োজিত হয়। বর্তমান নিয়ম অনুসারে আইসিসির এক্ষেত্রে কিছু করার নেই। বাংলাদেশও যদি সেপ্টেম্বরের আগে অন্য কোন দেশকে নিয়ে আরেকটি সিরিজ আয়োজন করতে চায়Ñ তা আমরা করতে পারি।

কাজেই এটা নিয়ে কিছু প্রশ্ন উঠেছেÑ কিন্তু এর মধ্যে কোন ষড়যন্ত্র বা তেমন কিছু আছে বলে আমার মনে হয় না। কিন্তু এমন অসুস্থ প্রতিযোগিতা সৃষ্টি হলে ক্রিকেট তার সৌন্দর্য হারাবে।’ উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে স্বাগতিক দেশসহ ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ৮ দল চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে অংশ নেবে। আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির কাট-অফ ডেট। সেদিন সর্বশেষ যে র‌্যাঙ্কিং ঘোষণা করবে আইসিসি সে তালিকায় শীর্ষে থাকা আট দলই আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি খেলার জন্য নির্বাচিত হবে।

প্রকাশিত : ৩০ জুন ২০১৫

৩০/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: