রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মুক্তি পেলেন লতিফ সিদ্দিকী

প্রকাশিত : ২৯ জুন ২০১৫, ০৪:৪৪ পি. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ পবিত্র হজ ও তাবলিগ জামায়াত নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়ার মামলা গুলোতে জামিন পাওয়ার পর মুক্তি পেলেন সাবেক মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী।

গত ২৩ জুন সর্বশেষ ১০ মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিন পান তিনি। তার এ জামিনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ কোন আপীল না করায় মুক্তি পাওয়া সংক্রান্ত সকল বাধা কাটে। পরে সকল আইনি প্রক্রিয়া শেষে সোমবার বিকেলে মুক্তি পান লতিফ সিদ্দিকী। তিনি বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কারাবন্দী অবস্থায় চিকিৎসাধীন ছিলেন। হাসপাতাল থেকেই মুক্তিপান তিনি।

গত জুন হাইকোর্ট জামিন দেয়ার পাশাপাশি ওই মামলা গুলো ছয় ‍মাসের জন্য স্থগিত করে রুলও জারি করেন। বিচারপতি মো. নিজামুল হক ও বিচারপতি মো. ফরিদ আহমদ শিবলীর হাইকোর্ট বেঞ্চ আলাদা ১০ আবেদনের শুনানি নিয়ে এ আদেশ দেন।

এর আগে গত ২৬ মে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার অভিযোগে করা সাত মামলায় লতিফ সিদ্দিকীকে ছয় মাসের অন্তর্বর্তী জামিন দিয়ে মামলার কার্যক্রম স্থগিত করেছিল হাইকোর্ট। লতিফ সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন স্থানে করা ২২টি মামলা রয়েছে।

এর মধ্যে ২৩ ‍জুন চাঁপাইনবাবগঞ্জ, লক্ষ্মীপুর ও ঢাকায় একটি করে এবং চট্টগ্রামের সাতটি মামলায় তার জামিন মঞ্জুরসহ রুল জারি করেন হাইকোর্ট। রুলে লতিফ সিদ্দিকীর বিরদ্ধে এই ১০ মামলা কেন বাতিল করা হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়েছে। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে মামলার বাদী ও সরকারকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে লতিফ সিদ্দিকীর জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ূয়া। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ এ কে এম মনিরুজ্জামান কবির।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে এক অনুষ্ঠানে পবিত্র হজ ও তাবলিগ জামাত নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করে সমালোচনার মুখে পড়েন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী। এ ঘটনার পর আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর এই সদস্য মন্ত্রিত্ব হারান। একই ঘটনায় তখন তার বিরুদ্ধে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় মামলাগুলো দায়ের করা হয়।

নির্ধারিত সময়ে আদালতে হাজির না হওয়ায় প্রতিটি মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। দেশে ফিরে কয়েকদিন আত্মগোপনে থাকার পর গত বছরের ২৫ নভেম্বর ধানমণ্ডি থানায় আত্মসমর্পণ করার পর আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। নিম্ন আদালতে এ সব মামলায় জামিন নাকচ হলে লতিফ সিদ্দিকীর জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করা হয়। ওই আবেদনের শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার ১০ মামলায় হাইকোর্ট তার জামিন মঞ্জুর করেন।

প্রকাশিত : ২৯ জুন ২০১৫, ০৪:৪৪ পি. এম.

২৯/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: