মূলত মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.৮ °C
 
২১ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, ৯ ফাল্গুন ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

পিলখানায় রাজ্জাক সুস্থ আছেন, ডাক্তারের পরামর্শে চিকিৎসা নিচ্ছেন

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৫, ১২:৫৭ এ. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ পিলখানায় বিজিবি হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধায়নে রয়েছেন নায়েক রাজ্জাক। নাকের ক্ষত সারাতে তাকে আরও কয়েকদিন পিলখানাতেই থাকার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। নাকের ক্ষত ছাড়া তেমন কোন শারীরিক সমস্যা নেই রাজ্জাকের। ক্ষত শুকানোর পর ছুটি নিয়ে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে তিনি নাটোরে গ্রামের বাড়িতে যেতে পারেন বলে জানা গেছে।

গত ১৭ জুন ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে ইয়াবা পাচার ঠেকাতে নৌকায় করে কক্সবাজারের নাফ নদীর জাদিমোড়া এলাকায় টহল দেয়ার সময় সাদা পোশাকে থাকা বিজিপি সদস্যরা প্রথমে বিজিবি সদস্যদের ওপর গুলি চালায়, পরে বিজিবিও গুলি চালায়। গুলিতে দুই পক্ষেরই একজন করে গুলিবিদ্ধ হন। এ সময় বিজিপির এক সদস্য বিজিবি নায়েক রাজ্জাকের নাকে কামড় দিলে তিনি মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়েন। বিজিপি সদস্যরা তাকে ধরে নিয়ে আটকে রাখে।

গত ২৫ জুন বিজিবি-বিজিপির মধ্যে মংডুতে পতাকা বৈঠক শেষে নায়েক রাজ্জাককে বিনা শর্তে মুক্তি দেয় বিজিপি। সঙ্গে রাজ্জাকের ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্র ও গোলাবারুদও ফেরত দেয় তারা। নায়েক রাজ্জাকের নাক দিয়ে রক্ত পড়া ও হাতে হ্যান্ডকাফ পরিহিত অবস্থায় ছবি প্রকাশ পায় সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে। এসব ছবির বিষয়ে বিজিপি ও বিজিবির তরফ থেকে তদন্ত চলছে। বিজিবির জনসংযোগ কর্মকর্তা মহসীন রেজা শনিবার রাত নয়টার জনকণ্ঠকে জানান, নায়েক রাজ্জাক সম্পূর্ণ সুস্থ ও স্বাভাবিক রয়েছেন। তিনি বিজিবি হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে রেস্ট হাউসে রয়েছেন। তার নাকের ক্ষত দ্রুত সারাতে ঘন ঘন ড্রেসিং করা হচ্ছে। নাকের ক্ষত সারতে আরও কয়েকদিন সময় লাগতে পারে। এজন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা তাকে আরও কয়েকদিন পিলখানা বিজিবি সদর দফতরে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন। নাকের ক্ষত শুকানোর পর রাজ্জাক ছুটি নিয়ে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে গ্রামের বাড়িতে যেতে পারেন। তবে কবে নাগাদ তিনি পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে যাবেন, তা নির্ভর করছে চিকিৎসকদের পরামর্শের ওপর। পরিবারের সদস্যরা ইচ্ছা করলেই তার সঙ্গে দেখা সাক্ষাত করতে পারবেন।

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৫, ১২:৫৭ এ. এম.

২৮/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: