মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পঞ্চম শ্রেণির পড়াশোনা

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৫
  • প্রাথমিক বিজ্ঞান

শিক্ষার্থী বন্ধুরা শুভেচ্ছা রইল। বন্ধুরা আজ আমরা দ্বাদশ অধ্যায়ের জলবায়ুর পরিবর্তন থেকে সংক্ষিপ্ত উত্তর নিয়ে পড়াশোনা করব। সমাপনী পরিক্ষায় প্রত্যেকটি প্রশ্নের মান হবে ১ নম্বর।

সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর :

১. জলবায়ু কী?

উত্তর : কোন স্থানের বহু বছরের আবহাওয়ার গড় বা সামগ্রিক অবস্থা হলো জলবায়ু।

২. বাংলাদেশের জলবায়ুর স্বাভাবিক রূপ কোনটি?

উত্তর : বৈশাখ + জ্যৈষ্ঠ + গ্রীষ্মকাল

বৈশাখে প্রায়ই কালবৈশাখী হয়

আষাঢ়ের শুরু থেকে বর্ষাকাল শুরু হয়

শ্রাবণ ভাদ্র মাসে বেশ গরম পড়ে, বৃষ্টি হয় পৌষ মাসে শীত আসে।

৩. বৈশ্বিক উষ্ণায়ন কাকে বলে?

উত্তর : পৃথিবীর তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়াকে বৈশ্বিক উষ্ণায়ন বলে।

৪. বৈশ্বিক উষ্ণায়নের মূল কারণ কী?

উত্তর : বৈশ্বিক উষ্ণায়নের মূল কারণ বায়ুম-লে কার্বন ডাই অক্সাইড বৃদ্ধি।

৫. বরফভর্তি একটি গ্লাস প্লাস্টিকের ব্যাগের ভেতরে রাখলে বরফ তড়াতাড়ি গলবে কেন?

উত্তর : কারণ, প্লাস্টিকের ব্যাগের ভিতরে রাখা গ্লাসটিতে তাপ প্রবেশ করবে কিন্তু প্লাস্টিক ব্যাগ ভেদ করে তাপ বাইরে বের হবে না বলে।

৬. সবুজ ঘর কী?

উত্তর : তীব্র শীতপ্রধান দেশে কাঁচের বা প্লাস্টিকের ঘর বানিয়ে সবুজ শাকসবজি চাষ করা হয় যার মধ্য দিয়ে আলো অতি দ্রুত প্রবেশ করলে খুব সহজে আলো বের হতে পারে না। এ রকম ঘরকে সবুজ ঘর বলে।

৭. গ্রিন হাউজ প্রভাব কী?

উত্তর : সবুজ ঘর বা গ্রিন হাউজের মধ্যে আলো অতি দ্রুত পবেশ করে কিন্তু সহজে বের হতে পারে না। কাঁচের ঘরের ভিতরে এভাবে তাপ থেকে যাবার বিষয়টি গ্রিন হাউজ প্রভাব।

৮. গ্রিন হাউজ গ্যাস কী কী?

উত্তর : কাবর্ন ডাই অক্সাইড, মিথেন ও জলীয়বাষ্প।

৯. পৃথিবী রাতেও গরম থাকতে পারে কেন?

উত্তর : গ্রিন হাউজ গ্যাসগুলো উত্তপ্ত পৃথিবী থেকে তাপকে চলে যেতে বাধা দেয়, ফলে পৃথিবী রাতেও গরম থাকতে পারে।

১০. কখন/কেন পৃথিবী রাতের বেলায় ভীষণ ঠা-া হয়ে পড়ত?

উত্তর : গ্রিন হাউজ গ্যাসগুলো না থাকলে পৃথিবী থেকে তাপ মহাশূন্যে চলে যেত আর পৃথিবী রাতের বেলায় ভীষণ ঠা-া হয়ে পড়ত।

১১. পৃথিবীর তাপমাত্রা দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে কেন?

উত্তর : বায়ুম-লে কার্বন ডাই অক্সাইড বেশি থাকায় এরা বেশি তাপ ধরে রাখতে পারছে তাই দিন দিন পৃথিবীর তাপমাত্রা বেড়ে যাচ্ছে।

১২. বৈশ্বিক উষ্ণায়নের জন্য প্রবাহচিত্রটি আঁক।

উত্তর:

১৩. গাছপালা লাগালে পড়২ গ্রহণ করে খাদ্য তৈরি করে এবং পরিবেশের ভারসাম্য বজায় থাকে তাই গাছ লাগালে পড়২ কমে।

১৪. অভিযোজন কী?

উত্তর : জলবায়ু পরিবর্তনের সাথে সাথে প্রতিকূল পরিবেশের সাথে সকল উদ্ভিদও প্রাণীর খাপ খাইয়ে চলার নাম অভিযোজন।

১৫. ভাসমান ধাপে কোন কান উদ্ভিদ চাষ করা হয়?

উত্তর : ভাসমান ধাপে লাউ, সীম, বেগুন, ঢেঁড়স, টমেটো, ঝিঙ্গা এ রকম সবজি চাষ করা হয়।

১৬. কি ব্যবহার করলে পড়২ নিঃসরণ কমে?

উত্তর : কয়লা, পেট্রোলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাস পোড়ানো কমিয়ে তার বদলে নবায়নযোগ্য জ্বালানি (যেমন : সৌরশক্তি, বায়ুপ্রবাহ, জৈব জ্বালানি) ব্যবহার করলে পড়২ নিঃসরণ কমে।

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৫

২৮/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: