আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বাংলাদেশ-দ.আফ্রিকা সিরিজ দিয়ে শুরু নতুন নিয়ম

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বার্বাডোজে অনুষ্ঠিত আইসিসির (ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল) সভায় বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়েছে। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্যÑ ১০ দল নিয়ে অনুষ্ঠিত হবে ২০১৯ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ। পাওয়ার প্লে, ‘নো’ বলসহ ওয়ানডে ফরমেটের একাধিক নিয়মে আনা হয়েছে পরিবর্তন। যেটি কার্যকর হবে ৫ জুলাই ২০১৫ থেকে। অর্থাৎ ঘরের মাটিতে আসন্ন বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ দিয়েই রঙ্গিন পোশাকের ক্রিকেটকে দেখা যাবে নতুন চেহারায়। ওই দিনই মিরপুরে একমাত্র টি২০ দিয়ে শুরু পূর্ণাঙ্গ দিপক্ষীয় সিরিজ। ৭-১৫ জুলাই রয়েছে তিন ম্যাচের ওয়ানডে। ১১-২৬ জুলাই স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানের ওয়ানডে সিরিজটিও পড়বে নতুন নিয়মে। ওদিকে মোড়ল ভারতের বাধায় এবারও গৃহীত হয়নি ডিআরএস। রঙ্গিন পোশাকের এই নতুন নিয়ম বোলারদের স্বস্তি এনে দেবে! ব্যাটসম্যানদের একচেটিয়া দাপটে কিছুটা হলেও লাগাম টেনে ধরতে পারবেন তারা। ওয়ানডের নতুন নিয়মে প্রথম ১০ ওভারে বাধ্যতামূলক ‘পাওয়ার প্লে’ চলাকালীন সর্বোচ্চ দুইজন ফিল্ডার ৩০ গজ বৃত্তের বাইরে থাকবে। ১-৪০ ওভারের মধ্যে আর ব্যাটিং ‘পাওয়ার প্লে’ নেয়া যাবে না, তবে এ সময়ে চারজন ফিল্ডার বৃত্তের বাইরে থাকবে। ৪০-৫০ ওভার পর্যন্ত চারজনের পরিবর্তে পাঁচজন ফিল্ডার বৃত্তের বাইরে থাকবে। একই সঙ্গে ‘নো’ বলের নিয়মেও এসেছে পরিবর্তন। এতদিন কেবল ওভারস্টেপিংয়ের (পা নির্দ্দিষ্ট সীমা অতিক্রম) ক্ষেত্রেই ব্যাটসম্যান ‘ফ্রি হিট’ পেতেন। এবার থেকে যেকোন ধরনের ‘নো’ বলের ক্ষেত্রে ‘ফ্রি’ হিট পাবেন তারা। একই নিয়ম প্রযোজ্য হবে ছোট্ট ফরমেটের টি২০তেও। পাওয়ার প্লে’র নিয়মগুলো বোলারদের পক্ষে গেলেও, ‘ফ্রি-হিটের’ পুরো ফয়দাটাই পাবেন ব্যাটসম্যানরা! সভা শেষে আইসিসির চীফ এক্সিকিউটিভ ডেভিড রিচার্ডসন বলেন, ‘ক্রিকেটকে আরও জনপ্রিয় করে তুলতে বিভিন্ন নিয়ম নিয়ে পরীক্ষা করা হচ্ছে। ২০১৯ বিশ্বকাপকে মাথায় রেখেই ওয়ানডেতে এসব পরিবর্তন আনা হচ্ছে, যা ৫ জুলাই বা তার পরবর্তী সময়ে চালু হওয়া সিরিজ থেকে বাস্তবায়ন হবে।’ টি২০’র এই যুগে পঞ্চাশ ওভারের ওয়ানডে জনপ্রিয়তা হারাচ্ছিল বলে দাবি করছিল সাম্প্রতিক সময়ের কিছু পরিসংখ্যান। সেখানে দর্শকদের আরও মাঠমুখী করতে আগেই বেশকিছু সিদ্ধান্ত নিয়েছিল নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। তার মধ্যে ছিল ৩০ গজ বৃত্তের বাইরে ফিল্ডার সংখ্যা কমানো, এসব সিদ্ধান্তই ছিল ব্যাটসম্যানের পক্ষে। এবার সেই নিয়মগুলোতে কিছুটা হলেও পরিবর্তন এলো। মাসখানেক আগে মুম্বাইয়ে অনিল কুম্বলের নেতৃত্বে সভায় বসেছিল আইসিসির ক্রিকেট কমিটি। যে সুপারিশগুলো করা হয় শনিবার আইসিসির সভায় মূলত সেগুলোকেই মেনে নেয়ার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা। আইসিসি একদিকে ক্রিকেটের বিশ্বায়নের কথা বলছে, অন্যদিকে শ্রেষ্ঠ আসরে অংশগ্রহণের পরিধি কমিয়ে আনছেÑ এমন দ্বৈতনীতির জন্য গত বিশ্বকাপ থেকেই চলছিল ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা। শচীন টেন্ডুলকর-ব্রায়ান লারাদের মতো গ্রেটদের মত উপেক্ষা করে ঠিকই দল কমিয়ে আনল ‘ভারতীয় ডাইনোসর’ এন শ্রীনিবাসনের নেতৃত্বাধীন আইসিসি! যার অর্থÑ ২০১৯ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী দলের সংখ্যা হবে ১০টি। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ৮ নম্বর পর্যন্ত থাকা দলগুলো সরাসরি খেলার সুযোগ পাবে। আর পেছনে থাকা দলগুলো সহযোগী সদস্যদের সঙ্গে আলাদা একটি বাছাই টুর্নামেন্টে অংশ নেবে, সেখান থেকে টিকেট পাবে বাকি দুই দল। সর্বশেষ অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত এবারের বিশ্বকাপে টেস্ট খেলুড়ে শীর্ষ দশের সঙ্গে চার সহযোগী মিলিয়ে মোট ১৪টি দল অংশ নিয়েছিল। আইসিসির সভায় জাতীয় সরকার কর্তৃক প্রবর্তিত শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডকে (এসএলসি) অবৈধ ঘোষণা করে শীঘ্রই নতুন নির্বাচন আয়োজনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। প্রায় একই কারণে খারিজ করে দেয়া হয়েছে আমেরিকান ক্রিকেট এ্যাসোসিয়েশনকেও (ইউএসএসিএ)।

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৫

২৮/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: