কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সেনাবাহিনী মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় এগিয়ে যাবে

প্রকাশিত : ২৬ জুন ২০১৫
  • নয়া সেনাপ্রধানকে র‌্যাঙ্ক ব্যাজ পরানোর অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে সমগ্র দেশবাসীর গর্ব হিসেবে উল্লেখ করে বলেছেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রেখে সামনে এগিয়ে যাবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধে আমরা বিজয়ী জাতি। মুক্তিযুদ্ধের সময়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সামনের দিকে এগিয়ে যাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। প্রধানমন্ত্রী বৃহস্পতিবার বিকেলে তাঁর সরকারী বাসভবন গণভবনে নবনিযুক্ত সেনাবাহিনী প্রধান আবু বেলাল মোহম্মদ শফিউল হককে র‌্যাঙ্ক ব্যাজ পরিয়ে দেয়ার পর তাকে অভিনন্দন জানিয়ে এ কথা বলেন। খবর বাসস’র।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে নৌবাহিনী প্রধান ভাইস এ্যাডমিরাল এম ফরিদ হাবিব এবং বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার মার্শাল আবু এসরার নবনিযুক্ত সেনাবাহিনী প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল আবু বেলাল মোহম্মদ শফিউল হককে জেনারেল র‌্যাঙ্ক ব্যাজ পরিয়ে দেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব অক্ষুণœ রাখার পাশাপাশি বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও মানবিক সহায়তার ক্ষেত্রে অনন্য ভূমিকা পালন করছে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে নিয়োজিত শেখ হাসিনা বলেন, সশস্ত্র বাহিনীকে আধুনিক, যুগোপযোগী ও আন্তর্জাতিক মানের পেশাদার বাহিনী হিসেবে গড়ে তুলতে তাঁর সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, ভবিষ্যতেও সশস্ত্র বাহিনীর উন্নয়নে আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

নবনিযুক্ত সেনাবাহিনী প্রধান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দিক-নির্দেশনা অনুযায়ী সরকার এবং সংবিধানের প্রতি অবিচল আস্থা রেখে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কাজ করে যাবে। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা বিষয়ক উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব) তারিক আহম্মেদ সিদ্দিক, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মোঃ আবুল কালাম আজাদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সুরাইয়া বেগম, প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মিয়া মোহম্মদ জয়নুল আবেদীন, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী মাহবুবুল হক শাকিল ও সশস্ত্র বাহিনীর উর্ধতন কর্মকর্তাগণ এ সময় উপস্থিত ছিলেন। এর আগে বিকেলে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ইকবাল করিম ভূইয়া লেফটেন্যান্ট জেনারেল আবু বেলাল মোহম্মদ শফিউল হকের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে সেনাবাহিনী প্রধানের দায়িত্বভার হস্তান্তর করেন।

স্টাফ রিপোর্টার জানান, জেনারেল বেলালের জন্ম ১৯৫৮ সালে। ১৯৭৮ সালের ১৮ জুন তিনি বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমি থেকে সেনাবাহিনীর আর্মার্ড কোরে কমিশন লাভ করেন। ওই ব্যাচের সেরা ‘অলরাউন্ড ক্যাডেট’ হিসেবে তিনি ‘সোর্ড অব অনার’ পুরস্কার পান। তিনি জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা বাহিনীর কমান্ডার হিসেবে ইরাক, ইথিওপিয়া ও ইরিত্রিয়ায় কাজ করেছেন।

জেনারেল বেলাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএ এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ‘ডিফেন্স স্টাডিজ’ বিষয়ে এমএ ডিগ্রী অর্জন করেন, ‘ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস’ থেকে দর্শনে এমএ ডিগ্রী নেন। একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেন।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর) জানিয়েছে, নব নিযুক্ত সেনাপ্রধান দায়িত্ব নেয়ার পর বিদায়ী সেনাবাহিনীপ্রধান জেনারেল ইকবাল করিম ভূইয়াকে নিয়ে ঢাকা সেনানিবাসে অবস্থিত শিখা অনির্বাণ পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপর তাঁকে সেনাকুঞ্জে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। এ সময় বিদায়ী সেনাবাহিনীপ্রধান জেনারেল ইকবাল করিম ভূঁইয়া উপস্থিত ছিলেন।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে নব নিযুক্ত সেনাবাহিনীপ্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হককে নৌবাহিনীপ্রধান ভাইস এডমিরাল এম ফরিদ হাবিব এবং বিমানবাহিনীপ্রধান এয়ার মার্শাল আবু এসরার বৃহস্পতিবার বেলা ২টা ৩০ মিনিটে গণভবনে জেনারেল র‌্যাঙ্ক ব্যাজ পরিয়ে দেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা উপদেষ্টা মেজর জেনারেল তারিক আহমেদ সিদ্দিক (অব) প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মিয়া মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীন, সেনাসদরের ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের উর্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে সেনাবাহিনীর ঐতিহ্য অনুসারে মোটরযানে করে জেনারেল ইকবাল করিম ভূঁইয়াকে বিদায় জানানো হয়।

প্রকাশিত : ২৬ জুন ২০১৫

২৬/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: