আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কটিয়াদীতে ওসির বিরুদ্ধে মামলা করে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বাদী

প্রকাশিত : ২৫ জুন ২০১৫, ০৪:৫১ পি. এম.

নিজস্ব সংবাদদাতা, কিশোরগঞ্জ ॥ জেলার কটিয়াদীতে ওসির বিরুদ্ধে ঘুষের মামলা করে হুমকির মুখে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন মামলার বাদী উপজেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আশরাফ ফরাজি। বর্তমানে তিনি চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে আশরাফ ফরাজি লিখিতভাবে সাংবাদিকদের কাছে জানিয়ে এর প্রতিকার দাবি করেন। এতে উল্লেখ করেন, সম্প্রতি তিনি কটিয়াদী বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন ১৯ শতাংশ জায়গা ক্রয় করাকালে কটিয়াদী পৌর মেয়র ও বিএনপি নেতা তোফাজ্জল হোসেন খান দিলীপ অর্ধেক শেয়ার দাবি করলে তিনি তা অগ্রাহ্য করেন। পরে গত ৮ জুন রাতে ওসির কথা বলে কটিয়াদী থানার এসআই আহসান হাবিব তাকে থানায় ডেকে নিয়ে যায়। এ সময় ওসি ও এসআই হাবিব বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখান ও গালিগালাজ করেন। এ খবর পেয়ে তার ভাই রফিকসহ পরিবারের লোকজন থানায় গেলে এসআই হাবিব ৫ লক্ষ টাকা দাবি করেন। অন্যথায় মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর হুমকি দেন। এ অবস্থায় রাতেই তার ভাই রফিক দুই লক্ষ টাকা এনে পুলিশকে দেন। বাকি তিন লক্ষ টাকা দেওয়ার এবং ক্রয়কৃত জায়গায় পৌর মেয়রকে শেয়ার রাখার শর্তে পরে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

এরপর তিনি এ বিষয়ে পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রতিপক্ষরা তাকে তার বাসার সামনে থেকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে। পরে কৌশলে তিনি পালিয়ে এসে কিশোরগঞ্জ ৫নং জুুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা (নং-১১২/১৫) দায়ের করেন। মামলায় আসামী করা হয় থানার ওসি হেদায়েতুল ইসলাম ভূঁইয়া, এসআই আহসান হাবিব ও পৌর মেয়র তোফাজ্জল হোসেন খান দিলীপকে।

মামলা করার পর থেকে তাকে মিথ্যা মামলায় জড়ানোসহ বিভিন্নভাবে হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে তিনি অভিযোগ করেছেন। এ অবস্থায় তিনি বাড়ি ছেড়ে এখন পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

এ ব্যাপারে ওসি হেদায়েতুল ইসলাম ভূঁইয়ার কাছে জানতে চাইলে তিনি পৌর মেয়রের সাথে দ্বন্দ্বে তাকেও জড়ানো হচ্ছে দাবি করে বলেন, বিষয়টি মীমাংসা হওয়ার পরও কেন অভিযোগ দিয়েছেন, সেটা তার বোধগম্য হচ্ছে না।

প্রকাশিত : ২৫ জুন ২০১৫, ০৪:৫১ পি. এম.

২৫/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: