আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

তিনি পিয়া বিপাশা

প্রকাশিত : ২৫ জুন ২০১৫

সুদর্শন পিয়ার মিডিয়াতে আসার পেছনে সব অনুপ্রেরণায় ছিলেন তার বড়বোন আজমেরী আশা। ভিট চ্যানেল আই টপ মডেল প্রতিযোগিতার প্রথম রানার আপ ছিলেন আশা। বোনের সাহায্য নিয়েই মিডিয়াতে পা রাখা এই সময়ের জনপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী প্রিয়ার। পিয়া বিপাশা মডেলিং দিয়ে জনপ্রিয় হলেও মিডিয়ায় তার যাত্রা শুরু“হয়েছিল ২০১২ সালে ‘লাক্স-চ্যানেল আই সুপার স্টার’ প্রতিযোগিতার মধ্যদিয়ে। সেরা দশে পৌঁছেও কোন এক কারণে নিজেকে সেখান থেকে গুটিয়ে নেন। কিছু দিন বিরতির পর ডাক পেলেন আড়ং বিলবোর্ডের জন্য। এখানেই শুরু“হলো যাত্রা। তারপর ক্যাটস আই, এক্সটাসি, চৈতীসহ নামকরা কিছু ফ্যাশন হাউসের বিলবোর্ডের মডেল হয়েছেন তিনি। ইউনিলিভার ব্র্যান্ডের ভ্যাজলিনের বিলবোর্ডটি ছিল পিয়া বিপাশার মিডিয়াতে লাইমলাইটে আসার অন্যতম কারণ। প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে প্রায় ২ বছর তিনি ইউনিলিভারের ব্র্যান্ড এ্যামবাসেডর ছিলেন। এ বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে সবাই পিয়া বিপাশাকে চিনতে শুরু করে। গ্রামীণ ফোনের বিজ্ঞাপনচিত্র তার গ্ল্যামারাস ক্যারিয়ারে যোগ করে নতুন মাত্রা। এই চমৎকার বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে দর্শক পরিচিতি অনেকগুণ বেড়ে যায় পিয়া বিপাশার। তারপর আর থেমে থাকা নয়। একের পর এক বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেল হন তিনি। তার অভিনীত বিজ্ঞাপনগুলো হচ্ছে- ইস্পাহানি চা, পোলার আইসক্রিম, গ্রামীণফোন, অলিম্পিক টি-২০ বিস্কুট, প্যারাসুট তেল, ফ্রুটো ম্যাঙ্গো জুস। বর্তমানে পিয়া বিপাশার সব বিজ্ঞাপনই প্রচার হচ্ছে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে। ফ্রুটো ম্যাঙ্গো জুসের বিজ্ঞাপনচিত্রটি বাংলাদেশ এবং ভারতের বিভিন্ন টিভি চ্যানেলগুলোতে প্রচার হচ্ছে নিয়মিতভাবে।

এরই মধ্যে মডেল পিয়া বিপাশা বেশকিছু একক নাটকে অভিনয় করেছেন। মাসুদুল হাসানের পরিচালনায় ও ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ‘দ্বিতীয় মাত্রা’ নাটকের মাধ্যমে অভিনেত্রী হিসেবে যাত্রা শুরু হয় তার। পিয়া বিপাশা অভিনীত উল্লেখযোগ্য নাটকগুলো হলো বি ইউ শুভর ‘সময়ের গল্প ও অসময়ের স্বপ্ন’, ‘অসমাপ্ত ভালোবাসা’, মাসুদ হাসান উজ্জ্বলের ১০ পর্বের সিরিয়াল ‘ট্রেড ফেয়ার’, আহনাফের পরিচালনায় ‘দ্য মাস্টার পিস’, এ্যালবার্ট খানের একটি নাটক উল্লেখযোগ্য। তবে এই ঈদে পিয়া অভিনীত প্রায় ৮টি নাটক প্রচারের অপেক্ষায় রয়েছে। উল্লেখ্য, ২০১২ সালের অক্টোবরে একটি বিজ্ঞাপনে মডেল হয়ে মিডিয়ায় ক্যারিয়ার শুরু করেন পিয়া। মাত্র আড়াই বছরের ক্যারিয়ারে মে সাম্প্রতিক প্রচারিত জনপ্রিয় গায়ক ও মিউজিশিয়ান হাবিব ওয়াহিদের গাওয়া মিউজিক ভিডিওতে প্রিয়া বিপাশার ভিন্নরূপে উপস্থিতি সাড়া ফেলে মিডিয়াপাড়ায়। টেলিভিশন ও বিজ্ঞাপনে বেশ ভালই সাড়া পেয়েছেন সুন্দরী-গ্ল্যামারাস পিয়া বিপাশা। ক্যারিয়ারের শুরুতেই তাই সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন তিনি, পাকাপাকিভাবে বড় পর্দায়ই স্থান করে নেবেন। তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ছোটপর্দায় আর অভিনয় করবেন না। বড়পর্দায় পিয়া অভিনয় করছেন সায়েম জাফর ইমামির ‘রুদ্র-দ্য লাভার’ সিনেমায়। তবে পিয়া বিপাশার প্রথম চলচ্চিত্র ‘রুদ্র-দ্য গ্যাংস্টার’।এ প্রসঙ্গে পিয়া বলেন, ‘সিনেমাতেই ক্যারিয়ার গড়ব বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এখানেই থিতু হতে চাই। সাধারণ দর্শকের কাছে পৌঁছুতে হলে সিনেমার কোন বিকল্প নেই। সিনেমা মানেই দারুণ ব্যস্ততা। ব্যস্ততার জন্য নাটকে অভিনয় করব না।’ ছবিটি এখন মুক্তির মিছিলে রয়েছে। ছবিতে পিয়ার বিপরিতে অভিনয় করেছেন বি এম সুমন। ঈদের জন্য নির্মিত শুভাশীষ রায়ের কাহিনী ও পরিচালনায় চলচ্চিত্র ‘কাটুস কুটুস’ মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। ছবিটিতে অভিনয় করেছেন মনোজ কুমার ও পিয়া বিপাশা। পরিচালক বুলবুল বিশ্বাসের পরিচালনায় ‘রাজনীতি’ ছবিতে প্রথম অভিনয় করতে যাচ্ছে ঢালিউডের সুপাস্টার শাকিব খানের বিপরিতে লাক্স তারকা প্রিয়া বিপাশা। গত ৮ জুন প্রিয়াকে চুক্তিবদ্ধ পরিচালক বুলবুল বিশ্বাস। এই ছবির শূটিং এ জুলাই এর ৩ তারিখ থেকে পিয়া ব্যস্ত থাকবেন। এছাড়াও সম্প্রতি অনন্য মামুন পরিচালিত নতুন একটি ছবিতে নায়িকা হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন কলকাতার এক নায়কের বিপরিতে। তবে কোন নায়ক এখন ও জানা যায়নি। কয়েকটি চলচ্চিত্রের শূটিংয়ের জন্য সামনের ১৫ তারিখে প্রিয়া বিপাশা উড়াল দেবেন সিঙ্গাপুর, ২২ তারিখে মাস্কট, তারপর থাইল্যান্ডে। ক্যান্সার রাশির জাতিকা পিয়ার গ্রামের বাড়ি খুলনায়। থাকেন তিনি ঢাকার মগবাজারের ওয়্যারলেসে। সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজ থেকে শেষ করেছেন এইচএসসি। বর্তমানে এআইইউবি তে বিবিএ ৩য় সেমিস্টারে পড়ালেখা করছেন। সম্ভাবনাময় এই তারকার পছন্দের রঙ ব্ল্যাক ও পিঙ্ক, যা তাকে প্রবলভাবে আকর্ষণ করে। পেরিপেরি চিকেনকে পছন্দের খাদ্যতালিকায় সবার ওপরে রাখেন প্রিয়া। বাড়িতে বোন আশা আর সে দু’জনেই খুবই জনপ্রিয়। রাতে রিকশায় একা একা মুক্ত বাতাসে ঘুরে বেড়াতে ভাল লাগে পিয়ার। পছন্দ করেন সালোয়ার-কামিজ পরতে। আর পছন্দের স্থান মালয়েশিয়া, যেখানে সুযোগ পেলে যেতে কখনই ভুল করেন না। এই তারকা নিজেকে আকর্ষণীয় মনে করেন ৫০% আর স্মার্ট ফোনে ১০০% স্মার্ট বলে তার ধারণা। পিয়া একালের হলেও পছন্দের তালিকায় রয়েছেন সেকালের ধ্রুপদী অভিনেতা-অভিনেত্রী শাবানা, রাজ্জাক, ববিতা প্রমুখ। পিয়ার জন্য দুর্ভাগ্য যে, এই ঈদ শূটিংয়ের জন্য দেশের বাইরে করা হবে। একা থাকতে পছন্দ হলেও ঘুরতে আর শপিং করতে পিয়ার রয়েছে অনেক আসক্তি। মডেলিং এ তেমন কোন আইডল না থাকলেও মডেল হিসেবে নিজেকেই সবার ওপরে রাখতে চান প্রিয়া। তার সবচেয়ে বড় ইচ্ছে হলো, জীবনে একবার হলেও ওমরাহ্? পালন করা।

প্রকাশিত : ২৫ জুন ২০১৫

২৫/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: