মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ক্যালিব্রেশনের আন্তর্জাতিক স্বীকৃত পেল বাংলাদেশ

প্রকাশিত : ২৫ জুন ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ এ্যাক্রেডিটেশন বোর্ডের (বিএবি) সনদ দেয়ার সময় কোন ছাড় দেয়া হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।

বুধবার সকাল সাড়ে দশটায় শিল্প মন্ত্রণালয়ে বাংলাদেশ এ্যাক্রেডিটেশন বোর্ডের ক্যালিব্রেশনের আন্তর্জাতিক স্বীকৃত পাওয়ার ঘোষণা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ সব কথা বলেন তিনি।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, ২০০৫ সালে ইউরোপীয় ইউনিয়নে চিংড়ি রফতানির সময় ভেতরে লোহা ভরে দেয়া হয়েছিলো। তখন ইউরোপীয় ইউনিয়নে বাংলাদেশের চিংড়ি নিষিদ্ধ করে দেয়া হয়। আমাদের ইমেজ নষ্ট হয়। তারপর থেকে আমরা এ্যাক্রেডিটেশন বোর্ড তৈরি চিন্তা করি। তা যাতে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পায় সে লক্ষ্যে আমরা কাজ করেছি এবং তা অর্জন করেছি। তাই সনদ প্রদানের ক্ষেত্রে গুণগত মান ঠিক রাখতে কোন ছাড় দেয়া হবে না। বিএবি ২৩টি টেস্টিং, ২টি ক্যালিব্রেশন, ১টি মেডিক্যাল ল্যাবরেটরি ও একটি সার্টিফিকেশন বডিকে সনদ প্রদান করেছে। এতে দেশের রফতানিকারকরা উপকৃত হবেন। তাদের আর এখন মান পরীক্ষার জন্য দেশের বাইরে যেতে হবে না।

গত ১৭ জুন শ্রীলঙ্কার কলম্বোতে এশিয়া প্যাসিফিক ল্যাবরেটরি এ্যাক্রেডিটেশন কো-অপারেশনের ৩৫তম অধিবেশনে বিএবিকে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি প্রদান করা হয়। এর ফলে দেশে ওজন ও পরিমাপে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতির যথার্থতা নিরূপণের ক্ষেত্রে (ক্যালিব্রেশন) বাংলাদেশ এ্যাক্রেডিটেশন বোর্ড থেকে দেয়া সনদ এখন থেকে আন্তর্জাতিকভাবে গ্রহণযোগ্য হবে। এতে শিল্প উদ্যোক্তাদের সনদ নেয়ার ক্ষেত্রে সময় ও অর্থ সাশ্রয় হবে।

শিল্পমন্ত্রী বিশ্ববাণিজ্যের প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে দেশের রফতানি পণ্য বহুমুখীকরণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, কোন একক পণ্যের ওপর নির্ভর করে শিল্পায়নের লক্ষ্য অর্জন সম্ভব নয়। বাংলাদেশের রফতানি পণ্যের তালিকায় ইতোমধ্যে বেশকিছু নতুন পণ্য সংযোজিত হয়েছে। তিনি রফতানির প্রবৃদ্ধির চলমান ধারা অব্যাহত রাখতে পণ্যের গুণগত মানোন্নয়নের পাশাপাশি ওজন ও পরিমাপের সঠিকতা (ক্যালিব্রেশন) নিশ্চিত করার তাগিদ দেন।

শিল্প মন্ত্রণালয় ভবনে অবস্থিত বিএবির কার্যালয়ে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে বিএবির মহাপরিচালক আবু আবদুল্লাহ সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানে শিল্পসচিব মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী বলেন, ক্যালিব্রেশনের ক্ষেত্রে এ্যাক্রেডিটেশন সনদ প্রদানের সক্ষমতা অর্জন করায় দেশে বাটখারাসহ বিভিন্ন পরিমাপক যন্ত্রের সঠিকতা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে। ফলে ওজন ও পরিমাপে কারচুপি রোধ করা সহজ হবে। একই সঙ্গে বিএবির এ্যাক্রেডিটেড ক্যালিব্রেশন ল্যাবরেটরিগুলো সনদ বিদেশে গ্রহণযোগ্যতা পাবে। এটি আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে বাংলাদেশের অবস্থান সুদৃঢ় করবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

প্রকাশিত : ২৫ জুন ২০১৫

২৫/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: