আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ফিটনেস সমস্যায় খেলেননি তাসকিন

প্রকাশিত : ২৫ জুন ২০১৫
  • প্রথমবার মুস্তাফিজের নতুন বলের সঙ্গী হলেন মাশরাফি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আগের দুই ম্যাচে উদীয়মান পেসার মুস্তাফিজুর রহমান সবাইকে অবাক করে দিয়েছেন তার দুর্দান্ত নৈপুণ্যে। আর সে কারণে সব আলো পড়েছে তার ওপরই। অন্যরা পার্শ্বনায়ক হিসেবেও মুস্তাফিজের দুরন্ত নৈপুণ্যের আশপাশে থাকেননি। কিন্তু শুরুর নায়কটা কে ছিলেন? তাসকিন আহমেদ। গত বছর জুনে ভারতের বিপক্ষে অভিষেকেই গতির তোপ দেখিয়েছিলেন এ তরুণ পেসার। নিয়েছিলেন ২৮ রানে ৫ উইকেট। যেটা ছিল এশিয়ার মধ্যে দ্বিতীয় সেরা বোলিং নৈপুণ্য ছিল অভিষেকে। এবার ঠিক এক বছর পর সেই ভারতের বিপক্ষে নতুন বলে তাসকিন সঙ্গী হয়েছেন মুস্তাফিজের। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট শুরু করেই ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের ঘোল খাওয়াতে শুরু করেছেন এ তরুণ। আর প্রথম ওয়ানডেতে অভিষিক্ত মুস্তাফিজের যে ঝড় বয়ে গেছে ভারতীয় শিবিরে তার শুরু হয়েছিল তাসকিনের মাধ্যমেই। তিনি জোড়া আঘাত হানার পরই মুস্তাফিজ ম্যাজিক শুরু হয়ে যায় এবং কুপোকাত হয় ভারত। তবে বহুল আকাক্সিক্ষত বাংলাওয়াশের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে তিনি একাদশের বাইরে চলে গেলেন। শরীরের ব্যথা এবং ফিটনেস সমস্যা তাকে ছিটকে দিয়েছে। তাই এই সিরিজে প্রথমবার তিন পেসার নিয়ে নেমেছে বাংলাদেশ।

তৃতীয় ওয়ানডের আগের দিন মঙ্গলবার রাতেই হঠাৎ করে দলে নেয়া হয় জুবায়ের হোসেন লিখনকে। তরুণ এ লেগস্পিনার ১৪ সদস্যের ঘোষিত দলেও ছিলেন না। অথচ পুরো ওয়ানডে সিরিজের জন্য একবারেই দল ঘোষণা করেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। আর এ দলটি নিয়ে টানা দুই ম্যাচ জিতে আগেভাগেই সিরিজ নিশ্চিত করে ফেলে স্বাগতিকরা। তাই তৃতীয় ওয়ানডেতে বিজয়ী একাদশে ভাঙ্গন ধরানোর কোন সম্ভাবনা নেই। এরপরও জুবায়েরকে দলে নেয়া প্রসঙ্গে প্রধান নির্বাচক ফারুক আহমেদ বলেছিলেন, ‘দলে বৈচিত্র্য আনতে এবং শক্তিমত্তার সামঞ্জস্য তৈরির জন্য জুবায়েরকে নেয়া হয়েছে।’ কিন্তু জুবায়েরকে কারও বদলি হিসেবে নেয়া হয়েছে কিনা সেটা জানানো হয়নি। তাই ১৫ সদস্যের দলে পরিণত হয় বাংলাদেশ। গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল মূলত তাসকিনের ফিটনেস সমস্যা রয়েছে বলেই তার বিকল্প হিসেবে একাধিক বোলার দলে রাখতেই জুবায়েরকে নেয়া হয়েছে।

আগে থেকেই দলে ছিলেন স্পিনার আরাফাত সানি। কিন্তু তিনি খেলার সুযোগ পাননি কোচ চান্দিকা হাতুরাসিংহের চার পেসার তত্ত্বের কারণে। এর মধ্যে আবার জুবায়ের। কেউ কিছু বুঝে উঠতে পারছিল না। শেষ পর্যন্ত তৃতীয় ওয়ানডের দিন সকালে একাদশ গড়ার পর দেখা গেল তাসকিন নেই। বদলি হিসেবে এসেছেন আরাফাত। সে সময় নিশ্চিতভাবে জানা গেল সাইড স্ট্রেইনে ভোগার কারণেই শেষ ওয়ানডে খেলতে পারছেন না মুস্তাফিজের সঙ্গে নতুন বলের এ সঙ্গী। রবিবার দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও ৪ ওভার বোলিং করেছিলেন তাসকিন। কিন্তু প্রথম ওয়ানডেতে দারুণ বোলিং করেছিলেন। শুরুতেই ধাক্কা দিয়েছিলেন ভারতীয় ইনিংসে। ফিরিয়ে দিয়েছিলেন অন্যতম দুই ব্যাটিং স্তম্ভ শিখর ধাওয়ান ও বিরাট কোহলিকে। এরপরই শুরু হয় মুস্তাফিজের বোলিং তা-ব। প্রথম ওয়ানডেতে তাসকিন ৬ ওভারে ১ মেডেনসহ ২১ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছিলেন। দুই ম্যাচেই পুরোটা সময় তাসকিন বোলিং করতে পারেননি। অবশেষে তার সমস্যাটা বোঝা গেল তৃতীয় ওয়ানডের দলে না থাকার পর। তাসকিনের অভাবে অভিষেক হওয়ার পর এই প্রথম নতুন বলে সঙ্গী বদলানো মুস্তাফিজের। এদিন তিনি বোলিং করেছেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে।

প্রকাশিত : ২৫ জুন ২০১৫

২৫/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: