কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

হিন্দি সিরিয়ালের নামে এবারও কদর বেশি ঈদের পোশাকের

প্রকাশিত : ২৫ জুন ২০১৫
  • আগাম কেনাকাটা শুরু

রহিম শেখ ॥ আমদানি আছে বেশ, তারপরও বাড়ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম। মূলত রমজান উপলক্ষে এই উর্ধগতি। তবে আসন্ন ঈদ উপলক্ষে অনেকটা আগেভাগেই সরগরম গোটা নগরী। ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে ঈদের কেনাকাটা। খুচরা বাজারে বিকিকিনি না জমলেও পাইকারি বাজার বেশ জমজমাট। বিভিন্ন বিদেশী ব্রান্ড ও ভারতীয় হিন্দী সিরিয়ালের নামে এবারও জায়গা দখল করে নিয়েছে ঈদের নতুন পোশাক। কদর বেড়েছে দেশী পোশাকেরও। শুধু পোশাক নয়, কিছুটা বাড়তি আয়ের আশায় নিম্নআয়ের মানুষগুলো ছুটছেন রাজধানী ঢাকায়। কেউ হকার, ছোট ব্যবসায়ী, কেউ-বা রিক্সাচালক, আবার কেউ ভিক্ষুকের পেশায় যুক্ত হচ্ছেন। সব শ্রেণী-পেশার মানুষের অন্য সময়ের তুলনায় মুনাফা বৃদ্ধির এই চেষ্টাই জানান দিচ্ছে উৎসব কতটা কাছে। আর এই উৎসবকে রঙ্গিন করতে প্রবাসীরাও প্রতিদিনই অর্থ পাঠাচ্ছেন দেশে। উৎসবের বর্ণিল মাত্রা যোগ করতে বাজারে এবারও আসছে নতুন টাকা। এখন চলছে টাকা ছাপানোর কাজ। ক’দিনের মধ্যেই ব্যাংকগুলোতে নতুন চকচকে নোট সরবরাহ করবে বাংলাদেশ ব্যাংক। রাজধানীর বিভিন্ন মার্কেট, বিপণিবিতান, ফ্যাশনহাউস ও শপিংমল ঘুরে দেখা যায়, প্রতিবারের ন্যায় এবারও রোজার আগে থেকেই ঈদ কেনাকাটা শুরু হয়ে গেছে। তাই ব্যবসায়ীদের ব্যস্ততাও বেড়ে যায় কয়েকগুণ। দোকানে দোকানে নতুন পোশাক সাজাতে ব্যস্ত কর্মীরা। বিশেষ অফার কিংবা প্যাকেজ দিয়ে পণ্য বিক্রির চেষ্টা করছেন দোকানিরা। নামকরা ব্র্যান্ড কিংবা ভারতীয় হিন্দী সিরিয়ালের নামে এবারও জায়গা দখল করছে ঈদের নতুন পোশাক। কেউ আত্মীয়-স্বজনদের উপহারের জন্য কেনাকাটা করছেন। কেউবা গ্রামে কিংবা বিদেশে দেশী পোশাক পাঠানোর জন্য আগেভাগে পোশাক কিনছেন। আবার অনেকেই নগরীর বিপণিবিতান বা দোকানগুলোতে ঘুরে বেড়ান- এবার ঈদে নতুন পোশাক বা জামা-কাপড় কী এলো তা দেখতে। বিশেষ করে তরুণী বা ধনিক শ্রেণীর গৃহিণীদের বেলায়ই এ রকম প্রবণতা বেশি দেখা যায়। ভারতীয় হিন্দী সিরিয়ালের নামে এবারও জায়গা দখল করছে ঈদের নতুন পোশাক। ‘সারা-রা’, ‘কিরণমালা’, ‘ভিনয় কোশিশ’ নামে ইতোমধ্যে জায়গা দখল করে নিয়েছে ঈদ পোশাক। ঈদ উপলক্ষে এবারও কদর বাড়ছে দেশী পণ্যের। আমদানি করা পোশাক ও জুতোর পরিবর্তে দেশীয় ব্র্যান্ডের চাহিদা বেড়েছে। ফ্যাশন হাউসগুলোতেও ইতোমধ্যে ভরে উঠছে দেশী পোশাকে। গত দুই বছর রাজনৈতিক অস্থিরতায় বেচাকেনা খুব ভাল না হলেও এবার ভাল বিক্রি হবেÑ আশা প্রকাশ করেছেন ব্যবসায়ীরা। গাউছিয়া মার্কেটে কথা হয় ব্যবসায়ী আলী হোসেনের সঙ্গে। তিনি জানান, এখন দেশের অবস্থা ভাল। তাই এবার ক্ষতি পুষিয়ে নেয়া সম্ভব বলে তিনি মনে করেন।

আমদানি সত্ত্বেও বাড়ছে পণ্যের দাম ॥ এদিকে রোজার মাসে দ্রব্যমূল্য সাধারণের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রাখতে সরকারী পর্যায়ের পাশাপাশি বেসরকারী পর্যায়েও নিত্যপণ্যের মজুদ বৃদ্ধিতে নানা উদ্যোগ নেয়া হলেও দাম সহনীয় পর্যায়ে রাখা সম্ভব হচ্ছে না।

রমজানে বেচাবিক্রি ॥ সারাবছর যত কেনাবেচা হয় রমজান মাসে হয় তার দ্বিগুণ। অনেকের এক মাসের কেনাবেচার ওপর নির্ভর করে সারাবছরের রুটিরুজি।

নতুন নোট ॥ বরাবরের মতো এ বছরও রোজার ঈদ সামনে রেখে বিভিন্ন ব্যাংকগুলোতে নতুন নোট সরবরাহ করবে বাংলাদেশ ব্যাংক।

প্রকাশিত : ২৫ জুন ২০১৫

২৫/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

অন্য খবর



ব্রেকিং নিউজ: