মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

‘দুদক এখন দুর্নীতি রক্ষা কমিশন’

প্রকাশিত : ২৪ জুন ২০১৫, ০৩:১০ পি. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) দুর্নীতি রক্ষা কমিশন (দুরক) বলে আখ্যা দিয়েছেন বিএনপির মুখপাত্র ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন।

একই সঙ্গে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো একচোখা নীতি অবলম্বন করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বুধবার দুপুরে দলের পক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

আসাদুজ্জামার রিপন বলেন, ‘মানবাধিকার কমিশন, নিবার্চন কমিশন, দুর্নীতি দমন কমিশন— প্রতিষ্ঠানগুলো স্বাধীনভাবে কাজ করছে না। সরকারের ডিকটেটর হয়ে কাজ করছে। তারা যে শপথ নিয়েছিলেন তা ভুলে গেছেন। তাদের কাজ ছিল সরকারকে জবাবদিহিতার মধ্যে রাখা, কিন্তু সেটা করছে না। দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) না রেখে দুর্নীতি রক্ষা কমিশন (দুরক) রাখা যায় কিনা, সেটা ভাবছে মানুষ।’

তিনি বলেন, ‘আমরা নির্মোহভাবে আশা করেছিলাম দুদক দল-মত নির্বিশেষে নিরপেক্ষভাবে কাজ করবে। দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে যে পদক্ষেপ নেওয়া দরকার তা আমরা দেখিনি। আমরা দেখেছি শাসক দলের যারা দুর্নীতিগ্রস্ত রয়েছে তাদের দায়মুক্তি দিয়েছে। ক্লিন সার্টিফিকেট দিয়েছে।’

দুর্যোগ ও ত্রাণ ব্যবস্থাপনামন্ত্রী মোফাজ্জাল হোসেন চৌধুরীর মামলা প্রসঙ্গে রিপন বলেন, ‘একজন মুক্তিযোদ্ধার বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলার অভিযোগ বলতে লজ্জা হয়। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসীদের জন্য লজ্জার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। সরকার কী সিদ্ধান্ত নেবে সেটা তাদের ব্যাপার। তবে ব্লাকসিটদের এড়িয়ে চলতে পারলে ভাল। দুই-চারজন বাদ দিলে দলের কিছু আসে যায় না।’

‘দুদকে দুষ্টের দমন হচ্ছে না’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘দুর্নীতি দমন কমিশন মায়ার বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের উদ্যোগ নিয়েছিল কিন্তু বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দেওয়া মামলা সচল রেখেছে।’ বিএনপির মুখপাত্র বলেন, ‘শাসক দলের ৩০০ লোকের মামলা পরিচালনা করবে না বলে দুদক জানিয়েছিল, অথচ বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দেওয়া মামলাগুলো সচল রেখেছে। এভাবে বিএনপি নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা সচল রেখে আওয়ামী লীগ নেতাদের বিরুদ্ধে দেওয়া মামলা প্রত্যাহার চলবে না। সকল দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে। যদি একচোখা হয় তাহলে আমরা প্রতিবাদ করব, আর সে প্রতিবাদ আমরা করে যাচ্ছি।’

সাবেক মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীর প্রসঙ্গে রিপন বলেন, ‘রোজার মাসে তাকে মুক্তি দিলে কেউ হইচই করবে না। তাই সরকার মওকা বুঝে তাকে জামিন দিয়েছে। সরকার আইন অনুযায়ী চলছে না। একচোখা নীতিতে চলছে।’

প্রকাশিত : ২৪ জুন ২০১৫, ০৩:১০ পি. এম.

২৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: