মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সময় এখন সাফারোভার

প্রকাশিত : ২৪ জুন ২০১৫
  • মাহমুদা সুবর্ণা

ক্যারিয়ারের গোধূলি সময়ে লুসি সাফারোভা। আর এই সময়েই পাদপ্রদীপের আলোয় ওঠে এলেন ২৮ বছর বয়সী এই টেনিস তারকা। মৌসুমের দ্বিতীয় গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট ফ্রেঞ্চ ওপেনের ফাইনালে উঠেই রীতিমতো চমকে দেন টেনিস বিশ্বকে। শিরোপা জিততে না পারলেও চেকপ্রজাতন্ত্রের এই টেনিস তারকা জানিয়ে দিলেন এখনও ফুরিয়ে যাননি তিনি। আগামী সপ্তাহে শুরু উইম্বল্ডনেও ধরে রাখতে চান ফ্রেঞ্চ ওপেনের দুর্দান্ত পারফর্মেন্সের ধারাবাহিকতা।

বছরের দ্বিতীয় গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট ফ্রেঞ্চ ওপেনে দুর্দান্ত খেলেছেন লুসি সাফারোভা। অসাধারণ পারফর্মেন্সের সৌজন্যেই প্রথমবারের মতো কোন গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্টের ফাইনালে ওঠার গৌরব অর্জন করেন তিনি। যদিও বা শেষ পর্যন্ত তাকে রানার-আপের শিরোপা নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়। আমেরিকান তারকা সেরেনা উইলিয়ামসের কাছে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হলেও ফাইনালে ওঠার কীর্তিত্বটাও অসামান্য। কেননা মেজর এই টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই সেরা টেনিস খেলেছেন তিনি। যেখানে মারিয়া শারাপোভার মতো খেলোয়াড়কে হারিয়ে চমক দেন তিনি। যে কারণে শিরোপা জিততে না পারলেও ক্যারিয়ারের সেরা পারফর্মেন্সের স্বীকৃতি পেয়েছেন তিনি। কেননা সর্বশেষ প্রকাশিত এটিপি র‌্যাঙ্কিংয়ে যে প্রথমবারের মতো সেরা দশে উঠে আসেন এই চেক তারকা। ছয় ধাপ এগিয়ে বর্তমান র‌্যাঙ্কিং অনুযায়ী লুসি সাফারোভার অবস্থান সাত। আসছে সপ্তাহে শুরু মৌসুমের তৃতীয় মেজর টুর্নামেন্টে নিজের সেরাটা মেলে ধরতে আশাবাদী এই তারকা খেলোয়াড়। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এটা বলার অপেক্ষা রাখে না যে, ফ্রেঞ্চ ওপেনের পারফর্মেন্স আমাকে নতুন একটা অবস্থান তৈরি করে দিয়েছে। আমি আশা করি এই র‌্যাটিং পয়েন্ট আমি ধরে রাখতে পারব। সেইসঙ্গে আমি আরও উন্নতি করব।’ প্রথমবারের মতো ফ্রেঞ্চ ওপেনের ফাইনালে উঠা সাফারোভার লক্ষ্য এখন শুধুই সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়া। সেক্ষেত্রে উইম্বল্ডন তার অগ্নিপরীক্ষা। মৌসুমের তৃতীয় মেজর এই টুর্নামেন্টের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন পেত্রা কেভিতোভা। সাফারোভারই স্বদেশী খেলোয়াড়। সর্বশেষ প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিং অনুযায়ী উন্নতি ঘটেছে পেত্রা কেভিতোভারও। উইম্বল্ডনের চ্যাম্পিয়ন কেভিতোভা দুই ধাপ উপরে উঠে এসেছেন। বর্তমানে তার অবস্থান দুইয়ে। মৌসুমের তৃতীয় মেজর টুর্নামেন্টে খেলতে নামার আগে নিশ্চিত অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস যোগাবে র‌্যাঙ্কিংয়ের এই উন্নতি।

সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারে দুটি গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট জিতেছেন পেত্রা কেভিতোভা। কাকতালীয়ভাবে মেজর দুটি শিরোপাই আবার উইম্বল্ডনে। ২০১১ সালে এই উইম্বল্ডন জয়ের মাধ্যমেই প্রথমবারের মতো গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্টের স্বাদ পান তিনি। এর পরের দুই বছর নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি চেকপ্রজাতন্ত্রের এই টেনিস তারকা। গত মৌসুমে আবারও উইম্বল্ডনের শিরোপা পুনরুদ্ধার করেন পেত্রা কেভিতোভা। কিন্তু এরপর আর মেজর কোন ইভেন্টে নিজেকে সেভাবে মেলে ধরতে পারেননি চেকপ্রজাতন্ত্রের প্রতিভাবান এই খেলোয়াড়। তারপরও অতীত পরিসংখ্যানের ভিত্তিতে বলা যায় যে, মৌসুমের তৃতীয় গ্র্যান্ডসøাম এই টুর্নামেন্টে এবারও ফেবারিটের তকমাটা গায়ে মাখানো পেত্রা কেভিতোভার। পেত্রা কেভিতোভার শিরোপা ধরে রাখার ক্ষেত্রে বড় বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারেন সেরেনা উইলিয়ামস। চলতি মৌসুমের শুরু থেকেই দুর্দান্ত খেলছেন আমেরিকান টেনিস তারকা। মৌসুমের প্রথম দুটি মেজর টুর্নামেন্টেরও শিরোপা নিজের শোকেসে তুলেছেন সেরেনা উইলিয়ামস। যে কারণে এবার ফেবারিট হিসেবে কোর্টে নামছেন ৩৩ বছর বয়সী সেরেনাও। গত দেড় দশক ধরেই টেনিস কোর্টে দাপট দেখাচ্ছেন আমেরিকান এই টেনিস তারকা। আগামী সেপ্টেম্বরেই ৩৪-এ পা রাখবেন আমেরিকান তারকা। আর মাত্র ছয় বছর পরই তার বয়স হবে ৪০। টেনিসবোদ্ধাদের ধারণা ৪০ বছর বয়সে যদিও কোন প্রমীলা খেলোয়াড় গ্র্যান্ডসøাম জিতে তাহলে তিনি হবেন সেরেনা উইলিয়ামস। তবে সেটা আসলেই পারবেন কিনা তা বলবে সময়।

এদিকে বর্তমান টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের তিনে অবস্থান করছেন রোমানিয়ার সিমোনা হ্যালেপ। অসাধারণ পারফর্মেন্স উপহার দিয়ে ক্রমেই সেরা তকমাটা মেখে নিয়েছেন রোমানিয়ার এই টেনিস তারকার গায়ে। তবে সিমোনা হ্যালেপের জন্য গত মৌসুমটাই ছিল টার্নিং পয়েন্ট। পুরো মৌসুমজুড়েই তার পারফর্মেন্স ছিল নজরকাড়া। মৌসুমের প্রথম গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেন তিনি। এর পরের টুর্নামেন্টেই বাজিমাত। ক্যারিয়ারের প্রথমবারের মতো ফ্রেঞ্চ ওপেনের ফাইনালে উঠে রীতিমতো টেনিস বিশ্বকেই চমকে দেন তিনি। কিন্তু দুর্ভাগ্য ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠলেও শিরোপা জিততে পারেননি তিনি। রোমানিয়ার এই টেনিস তারকার স্বপ্ন ভেঙ্গে চুরমার করে দেন মারিয়া শারাপোভা। এরপর উইম্বল্ডনের সেমিফাইনাল। মৌসুমের শেষ মেজর টুর্নামেন্ট ইউএস ওপেনের চতুর্থ পর্ব। সব মিলিয়ে দারুণ একটি বছর কাটে তার। বড় কোন শিরোপা নিজের শোকেসে তুলতে না পারলেও পুরো মৌসুমজুড়েই দুর্দান্ত টেনিস খেলে ভক্ত-অনুরাগীদের হৃদয়ে আলাদা করে জায়গা করে নেন হ্যালেপ।

বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের সাবেক নাম্বার ওয়ান তারকা ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কা। বর্তমানে কঠিন সময় পার করছেন তিনি। গত ২২ মাস ধরে কোন শিরোপা জয়ের স্বাদ পাননি তিনি। তারপরও আশা ছাড়ছেন না বেলারুশ সুন্দরী। সুদীর্ঘ কারিয়ারে দুটি গ্র্যান্ডসøামজয়ী এই টেনিস তারকার লক্ষ্য এখন প্রথমবারের মতো উইম্বল্ডনের শিরোপা নিজের শোকেসে তোলা। এ বিষয়ে ২৫ বছর বয়সী এই টেনিস তারকা বলেন, ‘এখনও আমি স্বপ্ন দেখি উইম্বল্ডনের শিরোপাটা জেতার। প্রকৃতপক্ষে এটা শুধু আমার নয় প্রত্যেক টেনিস খেলোয়াড়ই উইম্বল্ডন শিরোপা জয়ের স্বপ্নে বিভোর থাকে।’ ২০১২-১৩ মৌসুমটা দুর্দান্ত কাটে ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কার। সেই দুই মৌসুমেই ক্যারিয়ারের দুটি মেজর শিরোপা জিতেন তিনি। সেইসঙ্গে প্রথমবারের মতো বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের নাম্বার ওয়ান জায়গাটি দখল করে নেন আজারেঙ্কা। ২০১৩ সালে ইউএস ওপেনেই শেষবারের মতো ফাইনালে উঠেন তিনি। এরপরের দুই বছর একেবারেই নিষ্প্রভ ছিলেন আজারেঙ্কা। চোট-আর ফর্মহীনতার কারণে পাদপ্রদীপের বাইরে ছিটকে পড়েন তিনি। এতটাই দূরে সরে যান যে সাবেক নাম্বার ওয়ান এই টেনিস তারকার বর্তমান অবস্থান ২৬। তারপরও হতাশায় নুইয়ে পড়ছেন না তিনি। উইম্বল্ডনে চমকে দিয়েই স্বরূপে ফিরতে চান বেলারুশ সুন্দরী ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কা।

প্রকাশিত : ২৪ জুন ২০১৫

২৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: