কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ফিফার প্রেসিডেন্ট হতে ম্যারাডোনার সামনে অনেক বাধা

প্রকাশিত : ২৪ জুন ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দিয়াগো ম্যারাডোনা যে ফিফার প্রেসিডেন্ট পদের জন্য লড়বেন, এটা নিশ্চিত। প্রশ্ন আর্জেন্টাইন কিংবদন্তির বাজে ইমেজ তার জন্যে হয়ে উঠতে পারে বড় বাধা। ১৯৮৪-৯১ সালে ক্লাব দল নেপোলির হয়ে খেলার সময় প্রায় ১০ মিলিয়ন ডলার কর ফাঁকি, ১৯৯১Ñএ কোকেন সেবনের জন্য ১৫ মাস নিষিদ্ধ হওয়া, ১৯৯৪ বিশ্বকাপ চলাকালে নিষিদ্ধ পিল খেয়ে ধরা পড়া, একই বছর সাংবাদিকদের দিকে বন্দুক নিয়ে তেড়ে যাওয়া- এই সব নিন্দিত বিষয় ম্যারাডোনার প্রেসিডেন্ট হওয়ার পথে বড় বাধা বলেই মনে করছেন ফুটবল বিশ্লেষকরা। ক’দিন আগে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফার পঞ্চমবারের মতো প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার মাত্র তিনদিনের মাথায় পদত্যাগের ঘোষণা দেন সেপ ব্ল্যাটার। একের পর এক দুর্নীতি অভিযোগ ওঠায় আন্তর্জাতিক সমালোচনা ও চাপের মুখে চলতি মাসের শুরুর দিকে সরে দাঁড়ানোর কথা জানান তিনি। তবে আদৌ তিনি ওই পদ ছাড়ছেন কি না, তা নিয়ে ধূম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে তার ঘনিষ্ঠদের বিভিন্ন সময়ের বক্তব্যে। তবে তিনি পদত্যাগ করুক আর নাই করুক ওই পদের জন্য ইতোমধ্যে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বিশ্বের বাঘা বাঘা সব খেলোয়াড়রা। ব্রাজিলিয়ান লিজেন্ড ফুটবলার জিকো তাদেরই একজন। লড়ইটা আরও জমিয়ে লোর পূর্বাভাস দিয়েছেন আজের্ন্টিনার ‘এ্যান্ড অব গড’ খ্যাত ডিয়েগো ম্যারাডোনা। ম্যারডোনার যা চরিত্র শেষ পর্যন্ত এটা যদি বাস্তবে রূপ নেয়, তাহলে খেলার মাঠের আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল দ্বৈরথের পরিবর্তে এবার দু’দেশের তারকা সাবেক খেলোয়াড়দের মধ্যে ভোটের লড়াই দেখবে বিশ্ববাসী! ব্ল্যাটারের ঘোরবিরোধী ম্যারাডোনা এ বিষয়ে নিজে এখনও মুখ খোলেননি। ফিফার প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচন করার বিষয়টি জানিয়েছেন উরুগুয়ের সাংবাদিক ও তার ঘনিষ্ঠ বন্ধু ভিক্টর হুগো মোরোলেস। তার বরাত দিকে মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা এএফপি, রয়টার্স এমনটা জানিয়েছে। ওই সাংবাদিক টুইটে করেন, ‘ফিফার প্রেসিডেন্ট হওয়ার বিষয়ে ম্যারাডোনাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, আমি প্রার্থী।’ তিনি আরও বলেন, ‘ম্যারাডোনা আমাকে বলেছেন যে, তিনি ফিফার পরবর্তী প্রেসিডেন্ট পদে লড়াইয়ে অংশ নিচ্ছেন এবং এ বিষয়ে জানানোর জন্য আমাকে দায়িত্ব দিয়েছেন।’ সাংবাদিক ভিক্টর হুগো, ম্যারাডোনার নির্বাচন প্রচারে কথা জানিয়ে একটি টেলিভিশন শো-ও করেন। গত মাসে ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো ম্যারাডোনাকে ফিফার প্রেসিডেন্ট পদে প্রার্থী হওয়ার পরামর্শ দেন। আগামী ডিসেম্বরে ফিফার বিশেষ কংগ্রেসে নির্বাচনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হওয়ার কথা। ২০১৬ সালের জানুয়ারির আগে সে নির্বাচন হবে না বলে মনে করা হচ্ছে। এরই মধ্যে জিকো ও ম্যারাডোনা ছাড়াও ফিফার প্রেসিডেন্ট পদে লড়াইয়ের জন্য ঘোষণা দিয়েছেন লাইবেরিয়ার ফুটবল ফেডারেশন কর্মকর্তা মুসা বিলিতি।

প্রকাশিত : ২৪ জুন ২০১৫

২৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: