মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

আফগান পার্লামেন্টে হামলা

প্রকাশিত : ২৩ জুন ২০১৫
  • ছয় তালেবান জঙ্গী নিহত

ছয় জঙ্গী নিহত হওয়ার মধ্য দিয়ে সোমবার আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে পার্লামেন্ট ভবন লক্ষ্য করে হামলা নাটকের অবসান ঘটেছে। হামলার সময় বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। তালেবান এই হামলার দায় স্বীকার করেছে। হামলার সময় ধোঁয়ায় পুরো ভবন এলাকায় আচ্ছন্ন হয়ে পড়ে। খবর এএফপি ও বিবিসি অনলাইনের।

তালেবান জঙ্গীরা এমন একদিন এই হামলা করল যেদিন গুরুত্বপূর্ণ প্রতিরক্ষামন্ত্রীর পদে প্রেসিডেন্টের মনোনীত ব্যক্তিকে পার্লামেন্ট সদস্যদের সঙ্গে পরিচিত করিয়ে দেয়া হচ্ছিল। ব্যাপক নিরাপত্তাবেষ্টিত পার্লামেন্ট ভবনে জঙ্গীরা কিভাবে হামলা চালাল সে বিষয়ে কর্মকর্তারা কোন ধারণাই দিতে পারেননি। এ বছর এপ্রিলের পর থেকেই দেশটিতে জঙ্গী হামলা একটু একটু করে বেড়েছে। আফগান পুলিশের মুখপাত্র এবাদুল্লাহ কারিমি এএফপিকে বলেন, ‘বিদ্রোহীরা হামলা চালিয়ে পার্শ্ববর্তী একটি ভবনে আশ্রয় নিয়েছিল।’ তিনি বলছেন, বিদ্রোহীরা প্রথমে পার্লামেন্ট ভবন অভিমুখে রাস্তায় গাড়িবোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। এরপর একদল সশস্ত্র ব্যক্তি ভবনটির দিকে অগ্রসর হয়। সব পার্লামেন্ট সদস্যকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিতে হয়েছে এবং ১৮ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। গত বছর ডিসেম্বরে দেশটিতে মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো মিশন শেষ হওয়ার পর এত বিশাল মাত্রায় হামলা আর ঘটেনি। এর আগে ২০১২ সালে একদল সশস্ত্র লোক পার্লামেন্টে হামলার চেষ্টা চালিয়েছিল। তালেবান জানিয়েছে, ‘প্রতিরক্ষমন্ত্রীর নিয়োগের বিষয়টিকে সামনে রেখে তারা সমম্বিত আকারে হামলাটি চালিয়েছে। এদিকে আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ কুন্দুজের দ্বিতীয় আরেকটি জেলার দখল নিয়েছে তালেবান জঙ্গিরা। রবিবার প্রদেশের চারধারা জেলার দখল নেয়ার পর সোমবার তারা দাশ্ত-ই-আর্চি জেলা দখল করে নিয়েছে। প্রাদেশিক রাজধানী কুন্দুজ শহরে পালিয়ে আসা জেলা গবর্নর নাসিরুদ্দিন সাঈদি বলেন, ‘কয়েকদিন ধরে এলাকাটি ঘিরে রাখার পর সোমবার সকালে তালেবানরা দখল নিয়েছে। তাদের মধ্যে ভারি মেশিনগানধারী অনেক বিদেশী যোদ্ধা দেখা গেছে। আমরা আরও সৈন্য চেয়েছিলাম, কিন্তু কেউ আসেনি।’

প্রকাশিত : ২৩ জুন ২০১৫

২৩/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: