কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

তথ্য প্রযুক্তি বিকাশে অবকাঠামো নির্মাণের সিদ্ধান্ত

প্রকাশিত : ২২ জুন ২০১৫, ১২:৪৬ এ. এম.
  • বিদ্যমান সেবার মান বাড়ানোর ওপর বিশেষ গুরুত্ব

ফিরোজ মান্না ॥ তথ্যপ্রযুক্তি (আইসিটি) বিকাশে প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আইসিটি খাতের সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি জেলায় আইসিটি পার্ক স্থাপনের কার্যক্রম গ্রহণ করেছে আইসিটি মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে রয়েছে- সিলেটে ইলেকট্রনিক সিটি, মহাখালীতে আইটি ভিলেজ, রাজশাহী আইটি ভিলেজ, জনতা টাওয়ার সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক, যমোর সফটওয়্যার পার্ক, নাটোর প্রিল্যান্সার ইনস্টিটিউট ও বিভাগীয় পর্যায়ে আইটি ভিলেজ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সম্ভব্যতা যাচাই কর্মসূচী বাস্তবায়ন করা হবে। এছাড়া বিদ্যমান সেবার মান ও পরিমাণ বাড়ানোর জন্য সরকার গুরুত্ব দিয়েছে। সেবার মান নিশ্চিত করতে জেলা ও উপজেলা প্রশাসনকে তদারকির নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

তথ্যপ্রযুক্তি ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, বিসিএসআইআর-এর ডাটাবেজ প্রস্তুত এবং তথ্যপ্রযুক্তি স্বয়ংক্রিয়করণ শীর্ষক কর্মসসূচীর আওতায় বৈজ্ঞানিক ডাটাবেজ, মানবসম্পদ ডাটাবেজ, ফিন্যান্সিয়াল ডাটাবেজ, লাইব্রেরি ডাটা বেজ ও মেডিক্যাল ডাটাবেজের জন্য সফটওয়্যার তৈরি করা হয়েছে। সারাদেশে অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্কের মাধ্যমে এই সেবাগুলো মানুষের হাতে পৌঁছে দেয়া হবে। তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে দক্ষ জনবল গড়ে তোলার জন্য গাজীপুরে হাইটেক পার্ক শিল্প স্থাপনের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন এলাকায় হাইটেক পার্ক স্থাপন, সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা ও পরিচালনার জন্য সময় উপযোগী কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে।

সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় ১৬২ দশমিক ৮৩ একর জমির ওপর ইলেকট্রনিক সিটি স্থাপন করা হবে। ঢাকার মহাখালীতে ৪৭ একর জমির ওপর প্রস্তাবিত আইটি ভিলেজ নির্মাণের জন্য ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান নিয়োগ করা হবে অচিরেই। রাজশাহীতে ৩৪ দশমিক ৫৬৩১ একর জমিতে আইটি ভিলেজ স্থাপনের জন্য সমীক্ষা কাজ শুরু হয়েছে। রাজধানীর কারওয়ানবাজার এলাকায় জনতা টাওয়ার সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে রূপান্তরের ঘোষণা বাস্তবায়নের কাজ চলছে। যশোরে সফটওয়্যার পার্কের ডরমেটরি বিল্ডিং ও এমটিবি ভবন নির্মাণের কাজ চলছে। সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কটি ১৫ তলা ভবন বিশিষ্ট হবে। নাটোরে ফ্রিল্যান্সার ইনস্টিটিউট স্থাপনের জন্য এক দশমিক ২৩৯৩ একর জমি এবং নাটোর আইটি ভিলেজ স্থাপনের কাজ প্রস্তাবাধীন রয়েছে। এছাড়া বিভাগীয় পর্যায়ে আইটি ভিলেজ লক্ষ্যে সম্ভব্যতা যাচাই করে এলাকাভিত্তিক উন্নয়ন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে প্রতিটি বিভাগীয় পর্যায়ে একটি টেকনোলজি পার্ক বা আইটি ভিলেজ স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে এসব প্রকল্পের অনেকগুলোতে কনসালটেন্ট নিয়োগও করেছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়।

এদিকে, বর্তমানে দেশের মানুষ যেসব সেবা পাচ্ছেন- এই সেবার মান নিশ্চিত করার জন্য জেলা পর্যায়ে ডিসি ও উপজেলা পর্যায়ে ইউএনওদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। সেবার মান নিশ্চিত না হলে মানুষ তথ্যপ্রযুক্তির ফল পাবে না। ইমপ্রুভিং ডেমোক্রেসি থ্রু পার্লামেন্টারি ডেভেলপমেন্ট ইন বাংলাদেশ (আইপিডি), এক্সেস টু ইনফরমেশন, ইমপ্রুভিং পাবলিক এডমিনিস্ট্রেশন এ্যান্ড সার্ভিস ডেলিভারি থ্রু ইন ই-সলিউশন: ইমপ্রুভিং গ্রিভ্যান্সি সিস্টেম, কন্সট্রাকশন অব উপজেলা এ্যান্ড রিজিউনাল সার্ভার স্টেশনস ফর ইলেটোরাল ডাটাবেজ, স্ট্রেংদেনিং ইলেকশন ম্যানেজমেন্ট ইন বাংলাদেশ, আইডেন্টিফিকেশন সিস্টেম ফর এনহেনসিং একসেস টু সার্ভিসেস, স্ট্রেংদেনিং অব বাংলাদেশ পাবলিক এ্যাডমিনিস্ট্রেশন ট্রেনিং সেন্টার, ডিজিটালাইজেশন অব বিপিএটিসি, ডিপেনিং এমটিবিএফ এ্যান্ড স্ট্রেংদেনিং ফাইনেন্সিয়াল এ্যাকাউন্টেবিলিটি, স্ট্রেংদেনিং গর্ভন্যান্স ম্যানেজমেন্ট প্রজেক্ট, ইমপ্লিমেন্টেশন অব ডিজিটাল একনেক, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা, ডেভেলপমেন্ট অব বাংলাদেশ প্রপার্টি ডাটাবেজ, বাংলাদেশ জরিপ অধিদফতর ডিজিটাল ম্যাপিং, ইন্টোডাকশন অব মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এমআরপি), তথ্যপ্রযুক্তি সহায়তায় শিক্ষার মান উন্নয়ন, বিভিন্ন প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়ন, হেলর্থ ইনফরমেশন সিস্টেম এ্যান্ড ই-হেল্্থ, বিএফডিসিতে ডিজিটাল প্রযুক্তি প্রবর্তক, বাংলাদেশ বেতারের মধ্যম তরঙ্গ ট্রান্সমিটার ডিজিটালাইজেশন ও আধুনিকায়ন, জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন, সমবাং অধিদফতরের আইসিটি ও ই-সিটিজেন সার্ভিস উন্নয়ন, কৃষি তথ্য ও যোগাযোগ কেন্দ্রের মাধ্যমে ডিজিটাল কৃষি তথ্যের প্রচলন ও গ্রামীণ জীবন মান উন্নয়ন, ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎস্য চাষ প্রযুক্তি, জেলেদের নিবন্ধন, স্ট্রেনদেনিং সেটেলমেন্ট প্রেস, ম্যাপ প্রিনটিং প্রেস এ্যান্ড প্রিপারেশন অব ডিজিটাল ম্যাপ, ডিজিটাল পদ্ধতিতে ভূমি জড়িপ ও রেকর্ড প্রনোয়ন, ক্যাপাসিটি বিল্ডিং, এস্টাবলেশিং ডাটা সেন্টার এ্যান্ড টেলিকমিনিকেশন নেটওয়ার্ক ডেভলপমেন্ট, থ্রিজি নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি প্রবর্তন, ১০০৬ ইউনিয়ন পরিষদে অপটিকাল ফাইবার কেবল নেটওয়ার্ক উন্নয়ন, উপজেলা পর্যায়ে অপটিকাল ফাইবার কেবল নেটওয়ার্ক উন্নয়ন, ডিজিটাল বাংলাদেশের জন্য এনজিএন টেলিকমিনিকেশন নেটওয়ার্ক স্থাপন, তথ্য-প্রযুক্তি নির্ভর গ্রামীণ ডাকঘর নির্মাণ, পোস্ট-ই-সেন্টার ফর রুরাল কমিউনিটি, লার্নিং এ্যান্ড আর্নিং ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট, ডেভেলপমেন্ট অব ন্যাশনাল আইসিটি ইনফ্রানেটওয়ার্ক ফর বাংলাদেশ গবার্নমেন্ট, বেসিক আইসিটি, অবকাঠামো উন্নয়নের মাধ্যমে বিসিসি শক্তিশালী করণ, লেভারেজিং আইসিটি ফর গ্রোথ, এমপ্লায়মেন্ট এ্যান্ড গবার্নেন্স, সাপোর্ট টু ডেভলেপমেন্ট কালিয়াকৈর হাইটেক পার্ক, এম্পাওয়ারিং রুরাল কমিউনিটি রিচিং দ্যা আনচিড: ইউনিয়ন ইনফরমেশন এ্যান্ড সার্ভিসেস সেন্টার, যশোর সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক, ডেভেলপমেন্ট অব ন্যাশনাল আইসিটি ইনফ্রা-নেটওয়ার্ক ফর বাংলাদেশ গবমেন্ট, অনুমোদিত নতুন প্রকল্পের জন্য থোক বরাদ্দ- আইসিটি বিভাগ ও ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ এই প্রকল্পগুলোর অন্যতম।

মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, তথ্যপ্রযুক্তি সেবা তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত পৌঁছে দিতে সরকার ব্যাপক উদ্যোগ নিয়েছে। সরকারের নেয়া প্রযুক্তি সেবার মধ্যে পাবলিক সার্ভিস ডেলিভারি আউটলেট, কাগজবিহীন ভর্তি পরীক্ষা, ওয়াসা, পিডিবি ও তিতাস গ্যাসের বিল পেমেন্ট, ডেমরায় কম্পিউটারাইড ল্যান্ড ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম, ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের কলসেন্টার, শিক্ষা পদ্ধিতিতে আইসিটি, এসএমএস ভিত্তিক ভোটকেন্দ্র সংক্রান্ত তথ্য, হজ ব্যবস্থাপনা, মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ফলাফল প্রকাশ, ট্রেনের টিকিট কেনা, অনলাইন সার্ভিস ট্র্যাকিং সিস্টেম, অনলাইনে ডেইলি মার্কেট প্রাইজ জানা, চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস অটোমেশন, রাজউকের কম্পিউটারাইজেশন এবং ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম, সরকারী, জাতীয় ওয়েব পোর্টাল, আইন বিষয়ক ওয়েব পোর্টাল, দুর্যোগ পূর্বাভাস, ভোটার ডাটাবেজ, পানি ও সামুদ্রিক সম্পদ পরিকল্পনা, কৃষি সম্পদ পরিকল্পনা, এডুকেশন প্ল্যানিং, বাংলাদেশ ব্যাংক অটোমেশন, সড়ক ও জনপদ পরিকল্পনা অটোমেশন উল্লেখযোগ্য।

প্রকাশিত : ২২ জুন ২০১৫, ১২:৪৬ এ. এম.

২২/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: