মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আজই নতুন মাইলফলক সাকিবের!

প্রকাশিত : ২১ জুন ২০১৫
  • আবারও তিন ফরমেটের বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অনেক দিন গেছে, অনেক ম্যাচ। দেশবাসী কায়মনে প্রার্থনা করেছেন যেন সাকিব আল হাসান ব্যাটে-বলে জ্বলে উঠেন। কারণ সাকিব সেটা করতে পারলেই বাংলাদেশ দলের জন্য দারুণ কিছু হবে। সেই সাকিবনির্ভরতা এখন নেই। প্রতি ম্যাচেই একজন নিজেকে মেলে ধরছেন এবং টাইগারদের করছেন সাফল্যম-িত। বৃহস্পতিবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে ছিল তেমনই একটা ম্যাচ। তরুণ পেসার মুস্তাফিজুর রহমান একাই সব আলো কেড়ে নিলেন তাঁর নিজের ওপর। অথচ সাকিব এই ম্যাচেও ছিলেন ব্যাটে-বলে উজ্জ্বল। ওয়ানডের বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার হিসেবে স্থানটা হারিয়েছিলেন লঙ্কান অলরাউন্ডার তিলকারতেœ দিলশানের কাছে। এবার সেটা পুনরুদ্ধার করেছেন ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম ওয়ানডেতে নিজেকে মেলে ধরেই। এদিন তিনি ব্যাট হাতে ৫২ রানের ইনিংস খেলার পর বল হাতেও পেয়েছেন দুটি উইকেট। অলরাউন্ড নৈপুণ্য দেখিয়ে এখন তিনি আবারও ওয়ানডের বিশ্বসেরা। ফলে আবারও তিন ফরমেটের ক্রিকেটেই-টি২০, ওয়ানডে ও টেস্ট ক্রিকেটের এক নম্বর অলরাউন্ডার হয়ে গেছেন সাকিব। যদিও আইসিসি অফিসিয়ালি এখন পর্যন্ত বিষয়টি জানায়নি, সিরিজ শেষে নিশ্চিত করবে। তবে রেটিং বেড়ে যাওয়ার কারণে দিলশান পিছিয়ে গেছেন।

এবার ভারতের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে নতুন এক মাইলফলকের সামনে দাঁড়িয়ে আছেন সাকিব। বিশ্বসেরা টেস্ট ও ওয়ানডে অলরাউন্ডার প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে ওয়ানডেতে ২০০ উইকেট শিকার ও ৪ হাজার রানের মালিক হতে চলেছেন। ভারতের বিরুদ্ধে সিরিজ শুরুর আগে এজন্য ৫ উইকেট প্রয়োজন ছিল অনেক আগেই ৪ হাজার রান করা সাকিবের। প্রথম ম্যাচে মুস্তাফিজ একাই ধসিয়ে দিয়েছেন ভারতীয় ব্যাটিং বিভাগকে। প্রথমদিকে বোলিংয়ের তেমন সুযোগই পাননি সাকিব। তবে যখনই পেয়েছেন চেপে ধরেছেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের। ৮ ওভারে মাত্র ৩৩ রান দিয়ে ২ উইকেট শিকার করেছেন। এখন ২০০ উইকেটের মালিক হতে আর দুটি ওয়ানডে থেকে মাত্র ৩ উইকেট প্রয়োজন সাকিবের। এর আগেই ব্যাট হাতে ক্যারিয়ারের ২৯তম ফিফটি হাঁকান সাকিব। তিনি ৫ নম্বরে নেমে দলের ব্যাটিং ধস ঠেকানোর পাশাপাশি ৬৮ বলে ৩ চারে ৫২ রান করে ভাল একটি অবস্থানে নিয়ে গেছেন বাংলাদেশের ইনিংসকে। কিন্তু তাঁর এই অলরাউন্ড নৈপুণ্য সবার দৃষ্টি এড়িয়েই গেছে। অথচ আরেকটি মাইলফলক ছোঁয়ার একেবারেই কাছে চলে গেছেন তিনি। ৩ উইকেট প্রয়োজন আর সেজন্য। বাংলাদেশের দ্বিতীয় বোলার হিসেবে ওয়ানডে ইতিহাসে ২০০ উইকেট শিকারির মর্যাদা হয়ে যেতে পারে আজই। প্রথম ম্যাচে হয়নি দুই উইকেট পাওয়ার কারণে। কিন্তু দারুণ এক কীর্তি আবারও ফিরে এসেছে সাকিবের নামের পাশে। তিনি আবারও হয়েছেন বিশ্বসেরা এবং তা তিন ফরমেটেই! টেস্ট, ওয়ানডে ও টি২০ অলরাউন্ডারদের র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থান এখন সাকিবের দখলে। লঙ্কান ক্রিকেটার দিলশানকে টপকে একদিনের ক্রিকেটে অলরাউন্ডারদের শীর্ষস্থানে পৌঁছেছেন সাকিব। ওয়ানডেতে সাকিবের বর্তমান রেটিং ৪০৩। ফর্মহীনতায় ৩ ধাপ পিছিয়ে দিলশান চলে গেছেন ৪-এ! এতদিন ৪০৪ রেটিং নিয়ে তিনিই ছিলেন শীর্ষে। আর সাকিবের ছিল ৩৯৮ রেটিং। উল্লেখ্য, টেস্টে ৩৯৮ রেটিং এবং টি২০তে অনেকটা ৩৭৮ রেটিং নিয়ে অলরাউন্ডার র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে আছেন সাকিব। এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো একমাত্র অলরাউন্ডার হিসেবে ক্রিকেট ইতিহাসে তিন ফরমেটেরই শীর্ষ অলরাউন্ডার হলেন বাংলাদেশের এ ক্রিকেট বিস্ময়।

প্রকাশিত : ২১ জুন ২০১৫

২১/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: