আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

চার্লসটনের ঘাতককে ক্ষমা

প্রকাশিত : ২১ জুন ২০১৫
  • বর্ণবাদ এখনও এক বড় ক্ষত হিসেবে রয়ে গেছে ॥ ওবামা

যুক্তরাষ্ট্রের সাউথ ক্যারোলাইনা অঙ্গরাজ্যের চার্লসটনের একটি চার্চে গুলিবর্ষণকারীকে নিহত ব্যক্তির স্বজনদের কয়েকজন ক্ষমা করেছেন। বৃহস্পতিবার সন্দেহভাজন অপরাধী ডিলান রুফকে (২১) আদালত হাজির করানো হয়। তার বিরুদ্ধে হত্যা মামলা আনা হবে। নিহতদের প্রতি সম্মান দেখিয়ে শুক্রবার অঙ্গরাজ্য ও জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়। খবর বিবিসি ও এনবিসি অনলাইনের।

অশ্রুসজল চোখে নিহত এক ব্যক্তির মেয়ে চার্লসটনের একটি আদালত ঘাতককে উদ্দেশ করে বলেন, ‘আমি আপনাকে মাফ করে দিলাম।’ ওই আদালতে অন্যান্য নিহতের আত্মীয়স্বজনও উপস্থিত ছিলেন। তাদের মধ্যে অনেকেই রুফকে সরাসরি জানিয়ে দেন যে, তারা তাকে মাফ করে দিয়েছেন। কিন্তু রুফের মধ্যে এ সময় কোন ভাবান্তর লক্ষ্য করা যায়নি। এদিকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা শুক্রবার সানফ্রান্সিসকোতে দেশটির মেয়রদের এক সম্মেলনে বর্ণবাদকে তার দেশের জন্য একটি ক্ষত হিসেবে উল্লেখ করে এর বিরুদ্ধে সবাইকে একসঙ্গে লড়ে যাওয়ার আহ্বান জানান। জনমতের দাবির প্রেক্ষিতে ওবামা বলেন, আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণ বিষয়ে এখন কংগ্রেসের বিতর্ক শুরু করার সময় এসেছে। তিনি বলেন, এটি এতই মর্মান্তিক বিষয় যে, কোন সহানুভূতি প্রকাশই এর জন্য যথেষ্ট নয়।

চার্লসটনের ঐতিহাসিক ইমানুয়েল আফ্রিকান মেথোডিস্ট এপিসকোপাল চার্চে বুধবার রাতে একটি বাইবেল স্টাডি গ্রুপকে টার্গেট করে গুলিবর্ষণে নয়জন নিহত হন। নিহতদের মধ্যে ছয়জন ছিলেন নারী ও তিনজন পুরুষ। সেখানে তখন সাপ্তাহিক প্রার্থনা চলছিল। চার্লসটন কাউন্টি অপরাধ তদন্তকারী কর্মকর্তা রে উটেন বৃহস্পতিবার নিহত নয়জনের লাশ শনাক্ত করেছেন। সবচেয়ে বয়োজ্যেষ্ঠ নিহতের বয়স ৮৭ বছর এবং সর্বকনিষ্ঠের বয়স ২৬ বছর।

রুফকে বৃহস্পতিবার আটক করা হয়। তার বিরুদ্ধে হত্যা ছাড়াও বর্ণবিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগ রয়েছে। বুধবারের হত্যাকা-কে দেখা হচ্ছে বর্ণবিদ্বেষী কর্মকা-ের অংশ হিসেবেই দেখা হচ্ছে। বিষয়টি অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসবাদের মধ্যে পড়ে কিনা, তা ক্ষতিয়ে দেখছে দেশটির বিচার বিভাগ। বিচার বিভাগ থেকে দেয়া বিবৃতিতে বলা হয়েছে, কমিউনিটির মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টির জন্য এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে। সবকিছুকে বিবেচনায় রেখেই বিচার দফতর তদন্ত করে দেখবে। এদিকে শুক্রবার আইনজীবীর মাধ্যমে রুফের পরিবার একটি বিবৃতি দিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ‘সেই রাতে যা ঘটেছে তার থেকে সৃষ্ট শোক, দুঃখ ও পারস্পরিক অবিশ্বাসের বিষয়টি কোন ভাষায় প্রকাশ করা আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়, যা ঘটেছে সে জন্য আমরা সত্যি বিপর্যস্ত ও দুঃখ ভারাক্রান্ত। এরকম ভয়াবহ ঘটনার পরও নিহত ব্যক্তিদের স্বজনরা ঈশ্বরের পক্ষ থেকে ক্ষমা ও ভালবাসার যে প্রস্তাব দিয়েছেন সে জন্য আমরা অভিভূত।’ শুক্রবার আদালতে রুফ নিজের নাম, বয়স, ঠিকানা সত্যায়ন করার পাশাপাশি এটাও নিশ্চিত করে যে, তিনি একজন বেকার। বৃহস্পতিবার রাতে আলো জ্বেলে ঘটনাস্থলে নিহতদের জন্য বৃহৎ স্মরণ অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

ইথেল ল্যান্স নামে বুধবার গুলিবর্ষণের ঘটনায় নিহত এক নারীর মেয়ে ঘাতককে উদ্দেশ করে বলেন, ‘তুমি আমার জীবন থেকে খুব মূল্যবান একটি জিনিস নিয়ে গেছ। আমি জানি, এটি আর কখনও ফিরে পাব না। তার সঙ্গে আমি আর কোনদিন কথা বলতে পারব না। তবে তোমাকে আমি ক্ষমা করে দিচ্ছি।’ মিরা টম্পসন নামে নিহত আরেক নারীর স্বজন এ্যান্টনি টম্পসন বলছেন, রুফকে তার কৃতকর্মের জন্য অনুশোচনা করে যিশু খ্রীস্টের শরণাপন্ন হতে হবে। ফেলিসা স্যান্ডার্স নামে আরেকজন নারী ওই রাতের আক্রমণ থেকে অল্পের জন্য বেঁচে গেলেও তার ছেলে সেই ঘটনায় মারাত্মকভাবে আহত হয়েছেন। তিনি বলছেন, ‘বাইবেল স্টাডি গ্রুপের বুধবারের সাপ্তাহিক জমায়েত অনুষ্ঠানে উন্মুক্ত অস্ত্র হাতে তোমাকে স্বাগতম। আমার জানা মতো তুমি অনেক সুন্দর জীবন শেষ করে দিয়েছে।’

প্রকাশিত : ২১ জুন ২০১৫

২১/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: