আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রান্স যাচ্ছেন কাল

প্রকাশিত : ২০ জুন ২০১৫, ১২:৩২ এ. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঢাকা-প্যারিস দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে অংশ নিতে আগামীকাল রবিবার ফ্রান্স যাচ্ছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। এই বৈঠকে দুই দেশের মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়ানো বিষয়ে জোর দেয়া হবে। এদিকে জেদ্দায় ওআইসি মহাসচিবের সঙ্গে এক বৈঠকে মিয়ানমারের রোহিঙ্গা পরিস্থিতি তুলে ধরেছেন পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, প্যারিসে ঢাকা-প্যারিস দ্বিপক্ষীয় বৈঠক শুরু হবে ২৩ জুন। দুই দিনব্যাপী এই বৈঠকে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। আর ফ্রান্সের পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করবেন সে দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী লরাঁ ফেবিয়াস। এবারের বৈঠকে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য সহযোগিতার বিষয়ে জোর দেয়া হবে।

১৯৭২ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ফ্রান্স বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেয়। একই বছরের ১৭ মার্চ সেখানে বাংলাদেশের দূতাবাস খোলা হয়। ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশ ফ্রান্সের সঙ্গে বাংলাদেশের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে সহযোগিতার সম্পর্ক রয়েছে। ১৯৯০ সালে ফরাসী প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসেয়া মিতেরাঁর ঢাকা সফরের পর থেকেই দু’দেশের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কে গতি পায়। ১৯৯৯ সালে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফ্রান্স সফর করেন। গত এক দশকে বাংলাদেশ ও ফ্রান্সের বেশ কয়েকটি উচ্চপর্যায়ের রাজনৈতিক সফর হয়েছে। তার মধ্যে অন্যতম হলো ২০১০ সালে তৎকালীন পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনির সঙ্গে প্যারিসে ফরাসী পররাষ্ট্রমন্ত্রী বার্নাড কুচনারের দ্বিপক্ষীয় বৈঠক।

বর্তমানে ইইউর মাধ্যমে ফ্রান্স বাংলাদেশে বেশকিছু সহযোগিতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করে। বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের চতুর্থ বৃহৎ বাজার ফ্রান্স। সেদেশে ৯০ শতাংশ কাপড় রফতানি হলেও চামড়া, জুতো, হিমায়িত মাছ, সিরামিক ফার্মাসিউটিক্যাল পণ্য রফতানি করা হয়। অন্যদিকে ফ্রান্স থেকে বাংলাদেশ উড়োজাহাজ ও যানবাহনের যন্ত্রাংশ রাসায়নিক পদার্থ ছাড়াও অনেক ক্ষেত্রে সামরিক সরকার আমদানি করে থাকে। ১৯৮০ সালে ২৯ আগস্ট বাংলাদেশ ও ফ্রান্সের মধ্যে শান্তিপূর্ণ ব্যবহারের পারমাণবিক চুক্তি স্বাক্ষর হয়। ১৯৮৫ সালে দু’দেশের মধ্যে বিনিয়োগ চুক্তি হয়। ১৯৮৭ সালে দ্বৈতকর পরিহার বিষয়ক চুক্তি ও সাংস্কৃতিক বিনিময়, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সহযোগিতা বিষয়ক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ১৯৮৮ সালে বিমান সেবা বিষয়ক দু’দেশের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর হয়। এসব বিষয় নিয়ে দু’দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে বিস্তারিত আলোচনা হবে বলে জানা যায়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, সৌদি আরবের জেদ্দায় ওআইসি সম্মেলনে পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক যোগ দিয়েছেন। মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া এই সম্মেলনে ইয়েমেন পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়। ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহী গোষ্ঠীর হামলায় সেখানকার সাধারণ মানুষের জীবন বিপন্ন হয়ে উঠছে বলে মন্তব্য করেন উপস্থিত প্রতিনিধিরা। সম্মেলনে সৌদি আরবের পক্ষ থেকে হুতি বিদ্রোহী দমনে উপসাগরীয় দেশগুলোর সহযোগিতার আহ্বান জানানো হয়।

প্রকাশিত : ২০ জুন ২০১৫, ১২:৩২ এ. এম.

২০/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: