কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ধোনির সমালোচনা চলছে বিশ্বজুড়ে!

প্রকাশিত : ২০ জুন ২০১৫
  • ‘ক্যাপটেনকুলে’র মাথা গরমে অবাক ভারতও, মুস্তাফিজ-ধোনির জরিমানা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ম্যাচ শেষ হতেই যখন সংবাদ সম্মেলনে মহেন্দ্র সিং ধোনিকে মিলল, তখন যেন বাংলাদেশ ও ভারত সাংবাদিকদের তড় সইছিল না, কখন মুস্তাফিজকে ধাক্কা মারার কারণ জানতে চাওয়া হবে। অবশেষে প্রশ্ন ছুড়ে গেল। ধোনিও বললেন, ‘আসলে হয়েছে কী, সংঘর্ষটা এড়াতে হলে হয় আমাকে ডানদিকে যেতে হতো, নয়তো ওকে বাঁদিকে সরতে হতো। আমরা দুজনেই ভেবেছিলাম হয়তো অন্যজন সরবে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ব্যাপারটা পথ চলতে চলতে কারও সঙ্গে ধাক্কা খাওয়ার মতো হয়ে গেল।’ যাঁর সঙ্গে সেই ধাক্কা নিয়ে এত কথা, সেই মুস্তাফিজুর রহমানও পরে সংবাদ সম্মেলনে বললেন, আসলে ভুলটা তাঁরই হয়েছিল। বল করার পর তিনিই ভুল জায়গায় গিয়ে দাঁড়িয়েছিলেন। আর সে কারণেই ঘটনাটার জন্য ধোনিকে দুষছেন না বাংলাদেশের তরুণ পেসার। যতই ধোনি সাফাই দিতে চান সবাই দেখেছে কিভাবে ইচ্ছাকৃতি মুস্তাফিজকে ধাক্কা মারা হয়েছে। ভারতীয় মিডিয়াতেও এ নিয়ে তুমুল সমালোচনা হয়েছে। ভারতও অবাক হয়েছে।

একই ধরনের ধাক্কায় ২ ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন শেবাগ। এর আগে এক ম্যাচে ঠিক এভাবেই শেন ওয়াটসনকে আঘাত করেছিলেন বীরেন্দ্র শেবাগ। পরের দিন সব মিডিয়াতে সে দৃশ্য দেখানোও হয়েছিল। শেবাগকে ২ ম্যাচের জন্য নির্বাসিত করা হয়েছিল। কেউ কেউ আবার অতীতের জন স্নো বনাম সুনীল গাভাস্করের ঘটনাকেও তুলে আনলেন। যেখানে সানিকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিয়েছিলেন স্নো। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ঘটনাকে ঘিরে তীব্র প্রতিক্রিয়া হয়েছে। ম্যাচ নিষিদ্ধের শাস্তি হয়নি ধোনির। তবে জরিমানা ঠিকই হয়েছে। সঙ্গে মুস্তাফিজকেও জরিমানা করা হয়েছে।

বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের প্রথম ওয়ানডে চলাকালে মুস্তাফিজকে ধাক্কা দেয়ার ঘটনায় শুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে ভারতীয় অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির ম্যাচ ফি’র ৭৫ শতাংশ এবং বাংলাদেশী পেসার মুস্তাফিজুর রহমানকে ৫০ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে। ভারতীয় ক্রিকেট দলের ম্যানেজার বিশ্বরুপ দে এক টুইট বার্তায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। দুপুরে হোটেল সোনাগাঁওয়ে ওই ম্যাচের আম্পায়ার, ম্যাচ রেফারি এবং ধোনি-মুস্তাফিজের উপস্থিতিতে এ শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। শুনানি শেষে উভয়কে জরিমানা করার সিদ্ধান্ত হয়।

শুধু বাংলাদেশ? ছি-ছিক্কার উঠছে ক্রিকেট বিশ্বেই। এ কী করলেন ধোনি। মাত্রই প্রথম ওয়ানডে খেলতে নামা, এখনও ২০-এ পা না দেয়া একজন তরুণ ক্রিকেটারকে এভাবে ধাক্কা মারবেন! মুস্তাফিজ হয়তো ভুলই করেছেন, কিন্তু বয়সে-অভিজ্ঞতায় এগিয়ে থাকা ধোনি সামান্য ঔদার্র্যটুকু দেখাতে পারলেন না? না হলে কীসের তিনি ‘ক্যাপটেনকুল’? না হলে ক্রিকেট কোন হিসেবে ভদ্রলোকের খেলা? ধোনির ওই ঘটনার পর অনলাইনে বেশ বাহাস হচ্ছিল। পক্ষে-বিপক্ষে চাপান-উতোর। এরই ফাঁকে ক্রিকইনফোর ধারাভাষ্যে একজনের মন্তব্যের পাল্টা জবাবে আড্রিয়ান মেরেডিথ ক্রিকেটের সবচেয়ে খ্যাপাটে চরিত্রদের একজনের উদাহরণ টেনে লিখেছেন, ‘আজকের এবং দশ বছর আগেকার মধ্যে পার্থক্য হলো, আজ যদি এ্যান্ড্রু সাইমন্ডস মাতাল হয়ে মাঠে নামত তবু বোধ হয় কেউ অতটা অবাক হতো না।’

স্বাভাবিকভাবে ভারতীয় সমর্থকদের একটা বড় অংশই ধোনির পক্ষে কথা বলেছেন। তবে তাঁদেরই অনেকে নিরপেক্ষ অবস্থান থেকে ধোনির সমালোচনা করছেন। ধোনির এমন আচরণের সমালোচনা করেছে দেশটির সবচেয়ে বড় পত্রিকা টাইমস অব ইন্ডিয়া। সমালোচনা করা হয়েছে দেশটির সবচেয়ে বড় বাংলা পত্রিকা আনন্দবাজারেও।

‘ক্যাপটেনকুল ধোনি পথরোধ করা বাংলা বোলারকে সজোরে ধাক্কা মারলেন’ শিরোনামে আলাদা একটি প্রতিবেদনই করেছে টাইমস অব ইন্ডিয়ায়। তাতে লিখেছে, ‘ধোনি হয়তো বলতে পারেন, মুস্তাফিজ ইচ্ছায় হোক কিংবা অনিচ্ছায়, তাঁর পথরোধ করার চেষ্টা করেছে। কিন্তু রিপ্লেতে স্পষ্ট দেখা গেছে, ধোনি সরে যাওয়ার চেষ্টা তো করেননি, উল্টো কাঁধ দিয়ে সজোরে ধাক্কা মেরেছেন।’

ধোনির দীর্ঘ ক্রিকেট ক্যারিয়ারে এমন ঘটনা আগে কখনও ঘটেনি। বরং বরাবরই তিনি ক্রিকেটীয় চেতনার কারণে আলাদাভাবে প্রশংসিতই হয়েছেন। সেটিও উল্লেখ করে টাইমস অব ইন্ডিয়া লিখেছে, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ধোনির যে অবস্থান, সেটি বিবেচনায় নিলে এটা অবশ্য খুবই অখেলোয়াড়োচিত একটি আচরণ। যে অভিযোগে ভারত অধিনায়ক তাঁর বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে আগে কখনও অভিযুক্ত হননি।’ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মাঠের দুই আম্পায়ার বিষয়টি ম্যাচ রেফারির কাছে তোলেন কিনা সেটাই এখন দেখার। তবে ধোনি এর জন্য শাস্তি পান আর না-ই পান ক্ষণিকের এই অভব্যতার জন্য ধোনি বিশ্বজুড়েই হাজার হাজার ভক্ত এরই মধ্যে হারিয়ে ফেলেছেন।’

আনন্দবাজারের ম্যাচ প্রতিবেদনে ঘটনাটি উল্লেখ করে লিখা হয়েছে, ‘ভারত অধিনায়ক এদিন যা করলেন তা তাঁকে সাধারণত করতে দেখা যায় না। মুস্তাফিজুরকে ভারত অধিনায়ক ধাক্কা মেরে বসলেন...রান নিতে যাওয়ার সময় ধোনির কাঁধ মুস্তাফিজুরকে এমনভাবে গুঁতিয়ে দিল যে, উনিশের পেসারকে মাঠের বাইরে চলে যেতে হলো সঙ্গে সঙ্গে। প্রত্যুত্তরটাও পেলেন ভারত অধিনায়ক। মুস্তাফিজুর ফিরে এসে ভারতকেই ম্যাচ থেকে ধাক্কা মেরে বার করে দিলেন।’

শুধু ভারত হারেনি। হেরেছেন ধোনিও। হেরে গেছে তাঁর ভাবমূর্তি। শুধু বাংলাদেশ জেতেনি, জিতেছে সাতক্ষীরার এক অখ্যাত তরুণ।

প্রকাশিত : ২০ জুন ২০১৫

২০/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: