কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

ব্রহ্মপুত্রের ভাঙ্গন ॥ দেড় শ’ বসতবাড়ি বিলীন

প্রকাশিত : ২০ জুন ২০১৫
  • ‘সউগ শ্যাষ হয়া গেইল ॥ বউ-পোলাপান লইয়া কোন্ডে উডুম’

স্টাফ রিপোর্টার, কুড়িগ্রাম ॥ ও ‘বাপুরে আমাগো সউগ শ্যাষ হয়া গেইল। বউ-পোলাপান লইয়া কোন্ডে উডুম। কী খামু বুঝবার পাইতাছি না। নদীর কিনারে উ™£ান্ত চোখে বসে আছেন মোহনগঞ্জ ইউনিয়নের ব্যাপারীপাড়া গ্রামের মহির উদ্দিন। এবার নিয়ে তাঁকে ৩ বার নদী ভাঙ্গনের শিকার হতে হলো। এখানকার দিয়ারারচরের ফকিরপাড়া গ্রামের আমিনুল ইসলাম, মাঠের ভিটার মহিজল ও ব্যাপারী পাড়ার আদিল চন্দ্র জানান, গত ৭ দিনে ভারি বর্ষণ আর উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে নদী ব্রহ্মপুত্রের ভাঙ্গন তীব্র আকার ধারণ করছে। এতে নদী তীরবর্তী ৫ গ্রামের প্রায় দেড় শ’ বসতবাড়ি বিলীন হয়ে গেছে। এছাড়াও ভাঙ্গনের কারণে এই উপজেলার নয়াচর আলিম মাদ্রাসা, নয়াচর বাজার এমবি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ২টি বিশাল মাঠসহ বিলীন হয়ে যেতে পারে। একই ঝুঁকিতে রয়েছে মোহনগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ ভবন, মোহনগঞ্জ বাজার মসজিদ ও নয়াচর বাজারের ৩ শতাধিক দোকানপাট।

মোহনগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন আনু জানান, গত ১৫ দিনে তার ইউনিয়নের ২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ১টি মসজিদ ও ২ শতাধিক ঘরবাড়িসহ শতাধিক একর ফসলী জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। হুমকির মুখে রয়েছে মোহনগঞ্জ ইউপি ভবন ও তৎসংলগ্ন মোহনগঞ্জ বাজার। নদীভাঙ্গন প্রতিরোধে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া না হলে মানচিত্র থেকে হারিয়ে যেতে পারে মোহনগঞ্জ ইউনিয়ন। তিনি জরুরী ভিত্তিতে নদীভাঙ্গন প্রতিরোধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

প্রকাশিত : ২০ জুন ২০১৫

২০/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: