কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

চীনা প্রস্তাবে হংকংয়ের ভেটো

প্রকাশিত : ১৯ জুন ২০১৫
  • দ্বীপটির প্রধান নির্বাহী নির্বাচনে বেজিংয়ের পরিকল্পনা আইনসভায় অগ্রাহ্য

হংকংয়ের আইনসভা বৃহস্পতিবার বেজিং-সমর্থিত এক রাজনৈতিক সংস্কার প্রস্তাবে ভেটো দিয়েছে। গণপ্রজাতন্ত্রী আইন প্রণেতারা ওই বিভাজনমূলক নির্বাচনী রোডম্যাপ ভোটের মাধ্যমে প্রত্যাখ্যান করতে ঐক্যবদ্ধ হন। এ রোডম্যাপকে কেন্দ্র করে ব্যাপক গণবিক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছিল। খবর এএফপি, বিবিসি, নিউইয়র্ক টাইমস ও ইয়াহু নিউজের।

হংকংবাসী কিভাবে তাদের ভূ-খ-ের শীর্ষ কর্মকর্তা নির্বাচন করবেন, আইন প্রণেতারা সেই পদ্ধতি পরিবর্তনের পরিকল্পনা প্রত্যাখ্যান করেছেন। বেজিং সমর্থিত এ পরিকল্পাটির বিরুদ্ধে গতবছর রাস্তায় রাস্তায় প্রচ- বিক্ষোভ দেখানো হয়েছিল। পরিকল্পনাটিতে হংকংয়ের ৫০ লাখ যোগ্য ভোটারকে পূর্বেই বাছাই করা দু’বা তিন প্রার্থীর মধ্য হতে ভূ-খ-ের প্রধান নির্বাহী নির্বাচনের সুযোগ দিতে চাওয়া হয়। এ পরিকল্পনায় ২০১৭ সালে কার্যকর হওয়ার কথা ছিল। এ ব্যবস্থা পাস হতে হলে হংকংয়ের আইনসভা লেজিসলেটিভ কাউন্সিলের অন্তত দু-তৃতীয়াংশ সদস্যের সমর্থন থাকার প্রয়োজন হয় এবং সেটি সেই সমর্থন পেতে ব্যর্থ হয়। খবরে বলা হয়, ভোট গ্রহণের কয়েক মুহূর্ত আগেই বহুসংখ্যক এস্টাব্লিশমেন্টপন্থী ও বেজিংপন্থী আইনপ্রণেতা হঠাৎ আইনসভা কক্ষ থেকে ওয়াক আউট করেন। তখন বিলটি ভোটে পরাজিত হবে বলে মনে হয়েছিল। আইনসভার ৭০ সদস্যের মধ্যে মাত্র ৩৭ জন ভোট গ্রহণের সময় উপস্থিত থাকেন। তাদের মধ্যে ২৮ জন সংস্কার পরিকল্পনার বিপক্ষে এবং ৮ জন পক্ষে ভোট দেন, আর একজন ভোট দেননি। এটি পাস হতে হলে এরপক্ষে ৪৭ ভোট পড়ার প্রয়োজন ছিল। শহরের লেজিসলেটিভ কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট জাসপার সাং বলেন, প্রস্তাবটি দু-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোট পায়নি। প্রস্তাবটিতে ভেটো দেয়া হয়েছে বলে আমি ঘোষণা করছি। সংস্কার পরিকল্পনায় হংকংয়ের নেতা নির্বাচনে প্রার্থীদের পূর্বাহ্নেই বাছাই করার অধিকার চীনকে দেয়া হয়। হংকং সরকারের এ পরিকল্পনায় ২০১৭ সালে প্রধান নির্বাহী নির্বাচন করতে ভোট দেয়ায় অধিকার প্রথমবারের মতো সব বাসিন্দাকে প্রদান করতে চাওয়া হয় কিন্তু এতে প্রার্থীদের নাম অবশ্যই বেজিং অনুগত এক কমিটি কর্তৃক অনুমোদিত হতে হবে বলেও বিধান রাখা হয়। বিরোধী আইনপ্রণেতা ও গণতন্ত্রপন্থীরা ওই নতুন পরিকল্পনাকে ‘ভুয়া গণতন্ত্র’ বলে অভিহিত করেন। বৃহস্পতিবারের ভোটাভুটির ফলে হংকংয়ের পরবর্তী প্রধান নির্বাহী আগের মতোই ১২০০ সদস্যের এক কমিটি কর্তৃক নির্বাচিত হবে।

এ কমিটির অধিকাংশ সদস্যই বেজিং অনুগত। পরিকল্পনার বিরোধীরা যুক্তি দেখান যে, ব্যালটপেপারে কার নাম থাকতে পারবে, সে ব্যাপারে চীনা আইন সভায় আরোপিত বাধা-নিষেধ ভোটারদের জন্য প্রকৃতপক্ষে পছন্দের কোন সংযোগই রাখবে না।

প্রকাশিত : ১৯ জুন ২০১৫

১৯/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: