আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সিয়াম সাধনার পবিত্র মাহে রমজান শুরু

প্রকাশিত : ১৯ জুন ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রমজানুল মোবারক। এক বছর পেরিয়ে আবার এলো মাহে রমজান। মাসব্যাপী সিয়াম সাধনা ও আত্মশুদ্ধির মাস। আজ থেকে দিনের ভাগে উপোস থেকে আল্লাহ্র কাছে আত্মসমর্পণ করবেন বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মুসলমানরা। রমজানের সিয়াম সাধনা পালনে মুসলমানদের ঘরে ঘরে শুরু হয়েছে উৎসবের আমেজ। সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যে বৃহস্পতিবার শুরু হয়েছে মাহে রমজান।

এদিকে পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া পৃথক বাণী দিয়েছেন। বাণীতে তাঁরা মুসলিম উম্মাহর শান্তি, সম্প্রীতি কামনা ও ভ্রাতৃত্ব প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানিয়েছেন। পবিত্র মাহে রমজান নির্বিঘেœ পালনের জন্য সরকারে পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি। দেশব্যাপী নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। বিদ্যুত পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে নেয়া হয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা।

গত বুধবার রমজান মাসের চাঁদ দেখা না যাওয়ায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে আজ শুক্রবার থেকে রমজান শুরুর ঘোষণা দেয়া হয়। এ ঘোষণা অনুযায়ী বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে সেহ্রি খাওয়ার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে রমজানের আনুষ্ঠানিকতা। এর আগে দেশের সব মসজিদে তারাবীর জামাতে শরীক হন মুসলমানরা। এ উপলক্ষে ঢাকার প্রায় প্রতিটি মসজিদে তারাবীর নামাজে ছিল উপচে পড়া ভিড়। তিল ধারণের ঠাঁই ছিল না মসজিদগুলোতে। তারাবীর জামাত মসজিদ ছেড়ে রাস্তায় চলে আসে।

এদিকে পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে রোজাদারদের স্বাগত জানাতে রাজধানীর হোটেল, রেস্টুরেন্ট ও বিপণি বিতানগুলোতে বিশেষ আয়োজন পরিলক্ষিত হয়। ইতোমধ্যে রোজাদারদের আকর্ষণ করতে এসব হোটেল, রেস্টুরেন্টে প্যান্ডেল শামিয়ানা টানিয়ে ইফতারের বিশেষ ব্যবস্থা করা হয়েছে। দীর্ঘ এক বছর পর আবারও বাহারি আয়োজনে আজ থেকে চকবাজারে বসছে ঐতিহ্যবাহী ইফতারির পসরা। এছাড়া রাজধানীর অলিগলি ও ফুটপাথে ইফতারির পসরা বসছে আজ থেকে। পবিত্র রমজান উপলক্ষে রাজধানীর মার্কেট ও শপিংমলগুলোও নতুন করে সাজছে।

রমজান উপলক্ষে পাঁচতারা হোটেলগুলোতে ইফতারের বিশেষ আয়োজন শুরু হয়েছে। রোজাদারদের আকৃষ্ট করতে এসব হোটেলের পক্ষ থেকে রমজানের আগেই প্রচার চালানো হয়েছে। এ উপলক্ষে গত ১৫ জুন হোটেল সোনারগাঁওয়ে আয়োজন করা হয় ইফতার মেলার। হোটেল সোনার গাঁওয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয় রোজাদার ও বিদেশী পর্যটকদের জন্য প্রতিবছরের মতো এবারও থাকছে ইফতারের বিশেষ আয়োজন।

এদিকে পবিত্র রমজান উপলক্ষে দেয়া বাণীতে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বলেন, রহমত, মাগফেরাত ও নাজাতের মাস পবিত্র মাহে রমজান। সিয়াম ধনী গরীব সকলের মাঝে পারস্পরিক সহমর্মিতা সম্প্রীতি ও ভ্রাতৃত্ববোধ প্রতিষ্ঠায় অনন্য ভূমিকা পালন করে। তিনি পবিত্র রমজান পবিত্রতা ও তাৎপর্য উপলব্ধির মাধ্যমে ব্যক্তি ও সমাজজীবনে প্রতিফলন ঘটিয়ে সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, পবিত্র রমজানে সমাজ থেকে সকল প্রকার অন্ধকার ও কুসংস্কার দূর হবে এটাই কাম্য। একইসঙ্গে তিনি রমজান উপলক্ষে দেশবাসীসহ সমগ্র মুসলিম উম্মাহকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ জানান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর বাণীতে পবিত্র রমজানের শিক্ষায় উদ্বুদ্ধ হয়ে যাবতীয় ভোগবিলাস, হিংসা-বিদ্বেষ উচ্ছৃঙ্খলতা ও সংঘাত পরিহার করে ব্যক্তিগত ও সমাজ জীবনে শান্তি, সম্প্রীতি বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, আত্মসংযম, অনুকম্পা ও ক্ষমা লাভের মাস মাহে রমজান। এ মাসে ত্যাগ স্বীকারের শিক্ষার মাধ্যমে আত্মার পরিশুদ্ধি ঘটে, সর্র্বশক্তিমান আল্লাহ্র নৈকট্যলাভের সুযোগ সৃষ্টি হয়। তিনি রমজানে জীবনের সর্বস্তরে পরিমিতিবোধ, ধৈর্য্য ও সংযম প্রদর্শনের মাধ্যমে এ মাসের পবিত্রতা রক্ষা করার আহ্বান জানিয়ে মুসলিম উম্মাহর প্রতি আন্তরিক মোবারকবাদ জানান।

বেগম খালেদা জিয়া তাঁর বাণীতে বলেন, মাহে রমজান প্রতিটি মুসলমানের জীবনে বয়ে আনুক শান্তি ও সুখের বার্তা, সবার জীবন হয়ে উঠুক মঙ্গলময়। রোজা মানুষকে হিংসা-বিভেদ, অন্যায়-অবিচার ও লোভ-লালসা থেকে বিরত থাকার মহান শিক্ষা দেয়। এ শিক্ষাকে বুকে ধারণ করে নিজেদের পবিত্র মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে আমাদের ব্রতী হতে হবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

বিদ্যুত পরিস্থিতি ॥ এদিকে রমজান উপলক্ষে মুসল্লিদের সেহ্রি ও ইফতার নির্বিঘœ করতে নেয়া হয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা। সেহ্রি ইফতার এবং তারাবীর নামাজের সময় রোজাদারদের নিরবচ্ছিন্নভাবে বিদ্যুত সরবরাহ নিশ্চিত করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী জানান, রমজানে কারও যাতে বিদ্যুতের কোন সঙ্কট না হয় সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সকলের সহায়তায় পরিস্থিতি ভাল থাকবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। বিদ্যুত বিভাগ জানিয়েছে, রমজানে দীর্ঘক্ষণ যাতে গ্রাহক বিদ্যুত বিচ্ছিন্ন না থাকে সে ব্যবস্থা করা হয়েছে। বিদ্যুত সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে প্রতিবছরের মতো এবারও শিল্প কারখানায় গ্যাস সরবরাহ রেশনিং করা হতে পারে। বিতরণ কোম্পানি ইতোমধ্যে রমজানের আগেই অধিক ত্রুটিপূর্ণ বিতরণ লাইন পরিবর্তন শুরু করেছে।

বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা ॥ পবিত্র মাহে রমজানে সারাদেশে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি রাজধানীজুড়ে থাকছে অতিরিক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা। রমজানে ও পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরকে সামনে রেখে বিভিন্ন মার্কেট, বিপণীবিতান, কাঁচাবাজার, আড়তের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। ব্যাংক থেকে প্রচুর পরিমাণ নগদ অর্থ উত্তোলনের ক্ষেত্রে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। ইফতার, তারাবী নামায ও সেহ্রির সময় থাকছে বিশেষ নিরাপত্তা। এছাড়া স্পর্শকাতর স্থান, সড়ক, স্থাপনা, মার্কেট, বাসস্ট্যান্ড, রেল স্টেশন, লঞ্চ টার্মিনালে অতিরিক্ত র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে রমজানে মার্কেটগুলোর সামনে সীমিত আকারে গাড়ি পার্কিং করে নিরাপত্তার জন্য প্রত্যেক মার্কেটের সামনে সিসিটিভি সংযোগের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়া চাঁদাবাজি, মলমপার্টি ও অজ্ঞান পার্টির চক্রকে সার্বক্ষণিক তদারকিতে রাখা হবে বলে জানানো হয়েছে।

প্রকাশিত : ১৯ জুন ২০১৫

১৯/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: