মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সব ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারে এজেন্ট ব্যাংকিং সেবা

প্রকাশিত : ১৮ জুন ২০১৫
  • এটুআই ও মধুমতি ব্যাংকের সঙ্গে চুক্তি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের সব ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারে এখন থেকে স্বল্পপরিসরের এজেন্ট ব্যাংকিং সেবা পাওয়া যাবে। এই সেবা দিতে এক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) কর্মসূচীর সঙ্গে একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষর করেছে বেসরকারী খাতের মধুমতি ব্যাংক লিমিটেড।

বুধবার রাজধানীর পূর্বাণী হোটেলে এমওইউ স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, বাংলাদেশ ব্যাংকের গবর্নর ড. আতিউর রহমান, মধুমতি ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির, নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস।

নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন মধুমতি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মিজানুর রহমান ও এটুআই কর্মসূচীর প্রকল্প পরিচালক কবির বিন আনোয়ার। এই চুক্তির আওতায় মধুমতি ব্যাংক ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারগুলোকে এজেন্ট পয়েন্ট হিসেবে ব্যবহার করে গ্রাহকদের ব্যাংক হিসাব খোলা, টাকা জমা ও উত্তোলন, টাকা ট্রান্সফার, ইউটিলিটি বিল পরিশোধ, বৈদেশিক রেমিট্যান্স, ব্যালান্স অনুসন্ধানসহ বাংলাদেশ ব্যাংক অনুমোদিত বেশকিছু সেবা দিতে পারবে।

গবর্নর ড. আতিউর রহমান বলেন, সমাজের সকল স্তরের মানুষকে আর্থিক কর্মকা-ে অন্তর্ভুক্ত করতে এজেন্ট ব্যাংকিং চালু করা হয়েছে। এর সুবিধা পাচ্ছে সমাজের সকল স্তরের মানুষ। এখন ব্যাংকের মাধ্যমে গ্রাহকরা এই সুবিধা পাচ্ছে। তিনি বলেন, টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়ন, উচ্চতর প্রবৃদ্ধি অর্জন ও ২০২১ সালের মধ্যে একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করার রূপকল্প বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক গত ছয় বছরে প্রচলিত ব্যাংকিংয়ের ধারা অক্ষুণœ রেখে অন্তর্ভুক্তিমূলক ব্যাংকিং, দারিদ্র্য লাঘব, নারীর ক্ষমতায়ন ও সামাজিক দায়বদ্ধতার এক নয়া ধারা চালু করেছে। এর ফলে দেশের আর্থিক খাত পেয়েছে এক মানবিক চেহারা। দেশে কৃষি, ক্ষুদ্র, মাঝারি, নারী উদ্যোক্তা ও সবুজ ব্যাংকিংয়ের বিকাশ আজ সহজেই দৃশ্যমান।

গবর্নর আরও বলেন, সমাজের সকল স্তরের মানুষকে আর্থিক কর্মকা-ে অন্তর্ভুক্ত করতে এজেন্ট ব্যাংকিং চালু করা হয়েছে। এর সুবিধা পাচ্ছে সমাজের সকল স্তরের মানুষ। এখন ব্যাংকের মাধ্যমে গ্রাহকরা এই সুবিধা পাচ্ছে। আগামীতে জাতীয় পরিচয়পত্রের আদলে একটি কার্ড আনা হবে। যার মাধ্যমে পেমেন্ট সিস্টেম আরও নিরাপদ হবে। আশা করি সরকারের সহযোগিতা পেলে খুব দ্রুতই এ কাজ শুরু করা সম্ভব হবে। দেশের ৫টি ব্যাংককে এজেন্ট ব্যাংকিং কার্যক্রম শুরু করার অনুমোদন দেয়া হয়েছে, যার মধ্যে নতুন প্রজন্মের মধুমতি ব্যাংক একটি। ফলে মধুমতি ব্যাংক সর্বশেষ আধুনিক প্রযুক্তির সঙ্গে যুক্ত হতে যাচ্ছে বলেন তিনি।

এটুআই গ্রোগ্রামের প্রকল্প পরিচালক কবির বিন আনোয়ার বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশের আধুনিক রূপ হচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশ। আর সেই ভিশন বাস্তবায়নের সঙ্গে এটুআই প্রকল্প গভীরভাবে সম্পৃক্ত। আমরা সকলকে সেবা দেয়ার জন্যে কাজ করে যাচ্ছি। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে আমরা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করছি। কোন ব্যাংকের সঙ্গে এটাই প্রথম চুক্তি।

অনুষ্ঠানে ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মিজানুর রহমান বলেন, বর্তমানে আমাদের ১২টি শাখা রয়েছে। শাখাগুলোর মাধ্যমে আমরা গ্রাহকদের সেবা দিয়ে যাচ্ছি। এজেন্ট ব্যাংকিং চালু হওয়ায় গ্রাহকদের স্বল্প খরচে আর্থিক সেবা দিতে পারব। মধুমতি ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে গ্রাহকরা এ্যাকাউন্ট খোলা, টাকা জমা, উত্তোলন ও ট্রান্সফার ইউটিলিটি বিল, রেমিটেন্স আহরণসহ গ্রাহকদের বিভিন্ন সুবিধা প্রদান করা হবে। মধুমতি ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং চালুর ফলে ইউনিয়ন পর্যায়ে ব্যাংকের গ্রাহক সেবা বাড়বে। আর্থিক সেবা সহজলভ্য হবে। ভবিষ্যতে তাদের ডাকঘরের মাধ্যমেও এজেন্ট ব্যাংকিং করার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানান ব্যাংকের চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির।

প্রকাশিত : ১৮ জুন ২০১৫

১৮/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: