কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সাকিব-মাশরাফির সামনে নতুন মাইলফলক

প্রকাশিত : ১৮ জুন ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালের পর এই প্রথম আবারও ওয়ানডে ক্রিকেটে মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত। বাংলাদেশ সফরে ভারতের তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে বিশ্ববাসীর আলাদা নজর থাকছে। কারণ বিশ্বকাপের ওই ম্যাচটি নিয়ে অনেক বিতর্ক-সমালোচনা হয়েছিল বিশ্বব্যাপী। বাজে আম্পায়ারিং ম্যাচের ভাগ্য ঘুরিয়ে দিয়েছিল এমনটাই দাবি অনেকের। আজই দু’দলের মধ্যে মাঠের লড়াই। তবে এ ম্যাচে আরও কিছু ব্যক্তিগত অর্জন হাতছানি দিচ্ছে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের। অধিনায়ক মাশরাফি বিন মতুর্জা ও সহ অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের নতুন মাইলফলক ছোঁয়ার সুযোগ এ সিরিজে। বাঁহাতি স্পিনার আব্দুর রাজ্জাকের পর এ দু’জনেরও সুযোগ ওয়ানডেতে বাংলাদেশের হয়ে ২০০ উইকেট শিকারি ক্লাবে যোগ দেয়ার। সে জন্য মাশরাফির প্রয়োজন ৭ উইকেট আর সাকিবের দরকার ৫ উইকেট। এছাড়াও ব্যতিক্রমী আরেকটি অর্জনের সামনে দাঁড়িয়ে মাশরাফি। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের পক্ষে ওয়ানডেতে সর্বাধিক ৪৭ ক্যাচ ধরেছেন তিনি। আর তিন ক্যাচ ধরতে পারলেই প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে ৫০ ক্যাচের মালিক হবেন তিনি। একইদিনে দেশের চতুর্থ ক্রিকেটার হিসেবে ১৫০তম ওয়ানডে খেলার গৌরব অর্জন করতে যাচ্ছেন টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম। বাংলাদেশের পক্ষে সর্বাধিক ১৭৫ ওয়ানডে খেলেছেন ওপেনার মোহাম্মদ আশরাফুল। তিনি ২০০১ সালে অভিষেক হওয়ার পর থেকে ২০১৩ পর্যন্ত এই ১২ বছরে এ পরিমাণ ম্যাচ খেলেছেন। রাজ্জাক ১৫৩, মাশরাফি ১৫১ ও সাকিব ১৫০ ওয়ানডে খেলেছেন। তবে মাশরাফি বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে ১৪৯ ম্যাচ খেলেছেন। তিনি এশিয়া একাদশের হয়ে আফ্রিকা একাদশের বিরুদ্ধে দুটি ওয়ানডে খেলেন। সেদিক থেকে আজ তারও বাংলাদেশের হয়ে ১৫০তম ম্যাচ। বাংলাদেশের পক্ষে সর্বপ্রথম ১৫০তম ওয়ানডে খেলেছেন আশরাফুল। এরপরই রাজ্জাক ও সাকিব। এবার মুশফিকের পালা। ২০০৬ সালের ৬ আগস্ট হারারেতে জিম্বাবুইয়ের বিরুদ্ধে ওয়ানডে অভিষেক ঘটে তার। এরপর থেকে টানা খেলেছেন তিনি দলের হয়ে। গত ৯ বছর ধরে একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন ১৪৯টি। ৩১.৩৭ গড়ে ৩৬৭১ রান করেছেন ৩ সেঞ্চুরি ও ২২ হাফসেঞ্চুরি। এর মধ্যে অধিনায়ক হিসেবে মুশফিক খেলেছেন ৩৭ ম্যাচ, করেছেন ৩৪.৩৫ গড়ে ১০৬৫ রান। বাংলাদেশের একমাত্র বোলার হিসেবে ওয়ানডে ক্রিকেটে ২০০ উইকেট শিকার করেছেন অভিজ্ঞ বাঁহাতি স্পিনার রাজ্জাক। ১৫৩ ওয়ানডে খেলে তিনি ২৯.২৯ গড়ে এ পরিমাণ উইকেট শিকার করেছেন। এখন পর্যন্ত আর কোন বাংলাদেশী বোলার এ কৃতিত্ব দেখাতে পারেননি। তবে ভারতের বিরুদ্ধে ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজেই সেটা হয়ে যেতে পারে। কারণ ১৫১ ওয়ানডে খেলা মাশরাফির ঝুলিতে আছে ৩০.৭৩ গড়ে ১৯৩ উইকেট। তিন ম্যাচ থেকে ৭ উইকেট নিতে পারলেই তিনিও হয়ে যাবেন ২০০ উইকেট শিকারি ক্লাবের গর্বিত সদস্য। আর সাকিবের প্রয়োজন মাত্র ৫ উইকেট। তিনি ১৫০তম ওয়ানডে খেলেছন গত এপ্রিলে সফরকারী পাকিস্তানের বিরুদ্ধে। ২৮.২৫ গড়ে তার শিকার সংখ্যা ১৯৫। সে কারণে আজ থেকে অধিনায়ক-সহ অধিনায়কের মধ্যে একটা ভিন্ন লড়াই শুরু হচ্ছে।

প্রকাশিত : ১৮ জুন ২০১৫

১৮/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: