আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

যশোরে রাস্তা কালভার্ট নর্দমা নির্মাণে অনিয়ম

প্রকাশিত : ১৬ জুন ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ অনিয়ম, দুর্নীতির মাধ্যমে যশোর উপশহরের রাস্তা সংস্কার এবং ড্রেন ও কালভার্ট নির্মাণ কাজ করা হচ্ছে। দীর্ঘ প্রায় ১৫ বছর পর রাস্তা সংস্কার কাজে হাত দেয়া হলেও সঠিকভাবে কাজ হচ্ছে না বলে এলাকাবাসী অভিযোগ করেছেন। রাস্তায় ব্যবহার করা হচ্ছে তিন নম্বর ইটের খোয়া। ১২ ফিটের রাস্তা ছোট করে সাড়ে ৯ ফুট করা হচ্ছে। পুরনো রাস্তা ভেঙ্গে ডাস্ট বিটুমিন সুরকি মেশানো হচ্ছে খোয়ার সাথে।

জানা গেছে, জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ যশোর অফিস চলতি বছরের ১০ মার্চ উপশহরের ৪ হাজার ৮ শ’ ফুট রাস্তা সংস্কার এবং ১ হাজার ৬শ’ ৯০ ফুট ড্রেন ও ছোট বড় ৭টি কালভার্ট নির্মাণ কাজের টেন্ডার আহ্বান করে। রাস্তার কাজের ৬৬ লাখ ৮৯ হাজার ২শ’ ৯১ টাকা এবং ড্রেন ও কালভার্ট নির্মাণ কাজের ৬৮ লাখ ৪০ হাজার টাকা প্রাক্কলিত ব্যয় নির্ধারণ করা হয়। গত ১২ মে মেসার্স ঝর্না এন্টারপ্রাইজ রাস্তার কাজ এবং মার্ক কনস্ট্রাকশন ড্রেন ও কালভার্ট নির্মাণ কাজের কার্যাদেশ পাওয়ার পর কাজ শুরু হয়।

এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেছেন, কাজে সিডিউলের কোন নিয়ম মানা হচ্ছে না। সিডিউলে পিকেট খোয়া দিয়ে রাস্তা সংস্কারের কথা উল্লেখ থাকলেও দেয়া হচ্ছে পুরাতন তিন নম্বর ইটের খোয়া। পুরনো ইট নিলামে কিনে সেই ইট দিয়ে খোয়া তৈরি করে রাস্তার কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। পুরাতন রাস্তার বিটুমিন মিশ্রিত সুরকি উঠিয়ে ফেলে দেয়ার কথা থাকলেও সেগুলো তিন নম্বর খোয়ার সঙ্গে মিশিয়ে রাস্তার কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। ফলে রাস্তার স্থায়িত্ব নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। এছাড়া পুরাতন রাস্তা চওড়া ১২ ফিট থাকলেও অতিরিক্ত লাভের জন্য সেটি কমিয়ে রাস্তা ছোট করে সাড়ে ৯ ফিট করা হচ্ছে। আর রাস্তার পাশের ম্যাকাডামের পুরাতন ইট তুলে তা দিয়ে খোয়া বানিয়ে রাস্তায় ব্যবহার করা হচ্ছে। এতে যা ভবিষ্যতে এলাকাবাসী চলাচলে সমস্যায় পড়বে। রাস্তা নির্মাণে এসব অনিয়ম দুর্নীতির প্রতিবাদে এলাকাবাসী কাজ বন্ধ করে দেয়। ফলে দুই দিন নির্মাণ কাজ বন্ধ ছিল। পরে ভাল করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে কাজ আবার শুরু করা হয়।

এ ব্যাপারে জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ যশোর অফিসের উপ-সহকারী প্রকৌশলী দিপক কুমার সরকার বলেন, কাজ সঠিকভাবেই হচ্ছে। কাজে অনিয়ম করার কোন সুযোগ নেই। কাজের সাইডে সব সময় আমার দুজন ইঞ্জিনিয়ার তদারকি করেন।

প্রকাশিত : ১৬ জুন ২০১৫

১৬/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: