মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পুঁজিবাজারে আতঙ্কের পতন থামল

প্রকাশিত : ১৬ জুন ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ অবশেষে দেশের পুঁজিবাজারে আতঙ্কের পতন থেমেছে। বাজেট প্রস্তাবের পরে উভয় পুঁজিবাজারে দরপতন ও লেনদেন কমলেও বৃহস্পতিবার এবং রবিবারে বিনিয়োগকারীদের আতঙ্কিত করে তুলেছিল। সোমবারেও শুরুতে কিছুটা পতন হলেও প্রাতিষ্ঠানিক এবং ব্যক্তি পর্র্যায়ের বিনিয়োগকারীদের সক্রিয় অবস্থানের কারণে পতনের ধারা থেকে বের হয়ে আসে পুঁজিবাজার। শেষ পর্যন্ত মূল্য সূচকের উত্থানে লেনদেন শেষ হয়েছে পুঁজিবাজারে। তবে এদিন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের পরিমাণ কমে গেছে।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার ও রবিবারের পতনে ডিএসই প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ১০৩ দশমিক ৩২ পয়েন্ট নিচে নেমে যায়। এতে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে এক ধরনের আতঙ্ক রয়েছে। দিনভর মূল্য সূচকের ব্যাপক উঠা-নামা ছিল। শেষ পর্যন্ত সূচকের সামান্য উত্থানে লেনদেন শেষ হয়েছে।

বিশ্লেষকদের মতে, আগের দুই দিনের বড় পতনে বিনিয়োগকারীরা একটু সতর্ক অবস্থানে ছিল। এতে অনেক বিনিয়োগকারী হাতে থাকা শেয়ার বিক্রি করেছেন। আবার কিছু বিনিয়োগকারী শেয়ার বিক্রি করেননি। এতে সোমবার দিনভর মূল্য সূচকের উঠা-নামা ছিল।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, সোমবার ডিএসইতে ৩১৮ কোটি ৬৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে; যা আগের দিনের তুলনায় ৩৪ কোটি ৩৪ লাখ টাকা বা ১০ শতাংশ কম। আগের দিন এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ৩৫৩ কোটি ২ লাখ টাকার শেয়ার।

ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩১১টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৮৯টির, কমেছে ৮৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টির শেয়ার দর।

সকালে সূচকের সামান্য বৃদ্ধি দিয়ে দেশের পুুঁজিবাজারে লেনদেন শুরু হলেও কিছুক্ষণ পরেই সূচক আবার কমে যায়। তবে তা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। এভাবে সূচকের উঠা-নামা শেষে ডিএসইর সার্বিক সূচক বা ডিএসইএক্স ২৪ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৪৭৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৭ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ৯৪ পয়েন্টে। ডিএস ৩০ সূচক ১০ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৭৩০ পয়েন্টে।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হলো- ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ, হাইডেলবার্গ সিমেন্ট, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি, গ্রামীণফোন, ফার কেমিক্যাল, সামিট পাওয়ার, বেক্সিমকো, ফ্যামিলি টেক্স, ইউপিজিডিসিএল এবং আরএকে সিরামিক।

ডিএসইর দর বৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : হাক্কানী পাল্প, এটলাস বাংলাদেশ, রিপাবলিক, স্ট্যান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্স, বিএসআরএম লিমিটেড, ঢাকা ইন্স্যুরেন্স, জাহিন স্পিনিং, এপেক্স ফুটওয়ার, বিএসআরএম স্টিল ও সামিট পাওয়ার।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : গ্রীন ডেল্টা, আইসিবি এপ্লয়িজ ১ম মিউচুয়াল ফান্ড, ইউনাইটেড এয়ার, ট্রাস্ট ব্যাংক, ইউনাইটেড ইন্স্যুরেন্স, আইসিবি ১ম এনআরবি, শ্যামপুর সুগার মিলস, অগ্রণী ইন্স্যুরেন্স ও ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্স।

সোমবার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৫৩ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ১১৯ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৮০০ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২২২টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১২২টির, কমেছে ৬২টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৮টির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, এসিআই, ইউনাইটেড এয়ার, ফার কেমিক্যাল, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন এ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, বেক্সিমকো, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেড, ফ্যামিলি টেক্স, সামিট পাওয়ার এবং বিএসআরএম লিমিটেড।

প্রকাশিত : ১৬ জুন ২০১৫

১৬/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: