রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

জামায়াত অধ্যুষিত এলাকায় রেড এ্যালার্ট জারির নির্দেশ, অন্যত্র সর্বোচ্চ সতর্

প্রকাশিত : ১৬ জুন ২০১৫
  • মুজাহিদের রায়

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ মানবতাবিরোধী অপরাধের মৃত্যুদ-প্রাপ্ত জামায়াত সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মুহাম্মদ মুজাহিদের বিরুদ্ধে সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগের চূড়ান্ত রায় ঘোষণা সামনে রেখে সারাদেশে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে। এ রায় ঘোষণাকে সামনে রেখে জামায়াত-শিবির নাশকতা চালাতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে গোয়েন্দা সংস্থা। বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ, গোয়েন্দা সংস্থাসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার পাশাপাশি জামায়াত-শিবির অধ্যুষিত জেলাগুলোতে রেড এলার্ট জারি করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার রায় ঘোষণা উপলক্ষে হাইকোর্ট ভবন এলাকায় নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেয়ার পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। তিন স্তরের নিরাপত্তায় র‌্যাব, সোয়াত, পুলিশ, গোয়েন্দা, দাঙ্গা পুলিশ, বম্ব ডিসপোজাল ইউনিটসহ পুলিশের নিñিদ্র নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হবে। জলকামান, এপিসি, পিপার স্প্রে, টিয়ারগ্যাসসহ সব ধরনের প্রযুক্তির ব্যবহারের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। গোয়েন্দা সংস্থা ও পুলিশের উচ্চ পর্যায় সূত্রে এ খবর জানা গেছে। সূত্র জানার, হাইকোর্ট ভবনের চতুর্দিকে শত র‌্যাব, সোয়াত, পুলিশ, গোয়েন্দা সংস্থা, দাঙ্গা পুলিশ সদস্যরা ঘিরে রাখবে। হাইকোর্ট ভবনের গেট সকাল নয়টার আগেই আটকে দেয়া হবে। কেবলমাত্র অনুমতিপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের প্রবেশাধিকার থাকবে। হাইকোর্ট ভবনের গেটে ও আশপাশের এলাকায় বিপুলসংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হবে। পুলিশের নিরপত্তা বেষ্টনীর আওতায় আনা হয়েছে হাইকোর্ট ভবন এলাকাটি। এছাড়াও রাজধানী ঢাকার মোড়ে মোড়ে তল্লাশি, চেকপোস্ট বসানো, সন্দেহভাজনদের জিজ্ঞাসাবাদ করার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। রাজধানীর পল্টন, বিজয়নগর, কাকরাইল, মগবাজার, ফার্মগেট, মহাখালী, তেজগাঁও, সাতরাস্তা, শাহবাগ, আরামবাগ, মালিবাগ, শাহজাহানপুর, প্রেসক্লাব, দৈনিক বাংলার মোড়, শাপলা চত্বর, কমলাপুর, বায়তুল মোকাররম দক্ষিণ গেট, উত্তর গেটসহ বিভিন্নস্থানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা টহল দেবে।

সূত্র মতে, গোয়েন্দা সংস্থা আশঙ্কা প্রকাশ করেছে যে, মুজাহিদের আপীল বিভাগের চূড়ান্ত রায় ঘোষণার দিন নাশকতা ও ধ্বংসাত্মক কর্মকা- চালাতে পারে জামায়াত-শিবির। এর আগে যতবারই জামায়েতের যুদ্ধাপরাধীর রায় ঘোষণা করা হয়েছে ততবারই জামায়াত-শিবির রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে হরতাল ডেকে নাশকতা ও ধ্বংসাত্মক কর্মকা- চালিয়েছে। এ কারণেই মুজাহিদের রায় ঘোষণার দিনে আবারও জামায়াত-শিবির সন্ত্রাসের তা-বলীলা ও চোরাগোপ্তা হামলা চালাতে পারে। গোয়েন্দা সংস্থার এ ধরনের প্রতিবেদন পাওয়ার পর রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে এবং হাইকোর্ট ভবন এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় ট্রাইব্যুনালে মৃত্যুদ-প্রাপ্ত জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মুহাম্মদ মুজাহিদের বিরুদ্ধে আপীল বিভাগের চূড়ান্ত রায় মঙ্গলবার ঘোষণা করার দিন ধার্য করা আছে। রায় ঘোষণা করবেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিন্হার নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপীল বিভাগের বেঞ্চ। এ বেঞ্চের অপর তিন সদস্য হলেন- বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী। ২০১৩ সালের ১৭ জুলাই মুজাহিদকে মৃত্যুদ- দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২। পরে একই বছরের ১১ আগস্ট খালাস চেয়ে সুপ্রীমকোর্টে আপীল করেন আলী আহসান মুজাহিদ। মঙ্গলবার সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগে মুজাহিদের বিরুদ্ধে রায় ঘোষণা করার দিন ধার্য করা আছে।

পুলিশের একজন উর্ধতন কর্মকর্তা বলেন, জামায়াতের যুদ্ধাপরাধীদের বিরুদ্ধে আদালত থেকে যখনই রায় ঘোষণা করা হয়েছে, তখনই জামায়াত-শিবির আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে হরতাল ডেকে নাশকতা, ধ্বংসাত্মক কর্মকা-সহ সন্ত্রাসের তা-বলীলা চালিয়ে আসছে। এ কারণেই সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগের রায় ঘোষণা উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় থাকার নির্দেশসহ হাইকোর্ট ভবন এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে এবং মানুষের জানমাল রক্ষার্থে আইনশৃঙ্খলা ভঙ্গকারী দুর্বৃত্তদের কঠোর হস্তে দমন করা হবে।

প্রকাশিত : ১৬ জুন ২০১৫

১৬/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: