কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ফতুল্লায় ভাল-মন্দ মিলিয়ে সাকিব

প্রকাশিত : ১৫ জুন ২০১৫

মোঃ মামুন রশীদ ॥ ফতুল্লা টেস্টে বৃষ্টির কারণে ভুগতে হয়েছে উভয় দলকে। ব্যাট-বলের খেলার চেয়ে প্রকৃতির খেলাটাই ছিল বেশি। উভয় দল একটি করে ইনিংস শেষ করতে পেরেছে। তবে ফলোঅনে পড়ে বাংলাদেশকে দ্বিতীয় ইনিংসেও ব্যাট করার জন্য নামতে হয়েছে। সেদিক থেকে বৃষ্টির আশীর্বাদেই ফতুল্লা টেস্ট ড্র করেছে স্বাগতিকরা। তবে এর মধ্যেও কিছু অর্জন রয়েছে। মুমিনুল হক টানা ১২ টেস্টে অর্ধশতাধিক রানের ইনিংস খেলার বিশ্বরেকর্ড ছুঁতে না পারলেও তামিম ইকবাল দেশসেরা ব্যাটসম্যান হয়ে গেছেন। তিনি এখন বাংলাদেশের পক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে সর্বাধিক রানের মালিক। তবে সবচেয়ে আকর্ষণীয় এবং কালেভদ্রে ঘটে এমন একটি অর্জন করে দেখিয়েছেন সাকিব আল হাসান। বিশ্বসেরা এ টেস্ট অলরাউন্ডার বল হাতে দারুণ নৈপুণ্য দেখিয়ে ফতুল্লা টেস্টে বাংলাদেশের পক্ষে সফলতম বোলার হিসেবে ৪ উইকেট শিকার করেন। এর মাধ্যমে তিনি বাংলাদেশের মাটিতে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে এক শ’ উইকেট শিকারের মর্যাদা লাভ করেন। আর গতকাল ব্যাট করতে নেমে রান করার আগেই দিনের খেলা শেষ হয়ে যায়। পঞ্চম দিনে তিনি আহামরি কিছুই করতে পারেননি ব্যাট হাতে। তবে ৯ রান করেই অন্যরকম এক রেকর্ড গড়েছেন। বাংলাদেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ঘরের মাটিতে টেস্টে ১০০ উইকেট ও ২ হাজার রানের মালিক হয়ে গেছেন তিনি। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে এটি সপ্তম ঘটনা হলেও অন্য ৬ ক্রিকেটারের চেয়ে সাকিব অনেক কম টেস্ট খেলে এ নজির দেখালেন।

দেশের মাটিতে ২৭ টেস্টে ১৯৯৫ রান নিয়ে খেলতে নেমেছিলেন সাকিব। আর ৫ রান প্রয়োজন ছিল তার নিজ দেশের মাটিতে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ২০০০ রান করার জন্য। সেটা তিনি ইশান্ত শর্মার বলে এক রান নিয়ে পূর্ণ করেন নতুন এক গৌরবের মালিক হয়ে যান। ব্যাটে-বলে অভিষেকের পর থেকেই দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখানোর সুবাদে অনেক আগেই সাকিব হয়ে গেছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। দেশের জন্য অনেক রেকর্ডই তার মাধ্যমেই জন্ম নিয়েছে। ফতুল্লা টেস্টের তৃতীয় দিনই তিনি নতুন এক রেকর্ড গড়ে ফেলেন। বাংলাদেশের মাটিতে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে বল হাতে ১০০ উইকেট শিকারের গৌরব দেখান। আরেকটি মাইলফলক তাকে হাতছানি দিচ্ছিল। সেটাও করে ফেললেন। ব্যাট হাতে ব্যর্থ হয়েছেন মাত্র ৯ রান করেই অশ্বিনের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরে। কিন্তু এর মধ্যেই নতুন এক রেকর্ডের জন্ম দিয়ে ফেলেন সাকিব। ৯ রানের ছোট্ট ইনিংস খেলার পথেই বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে দেশের মাটিতে দুই হাজার রানের মাইলফলক ছাড়িয়ে যান। এখন বাংলাদেশের মাটিতে ২৮ টেস্টে ৪২.৬৩ গড়ে ২ সেঞ্চুরি ও ১৪ হাফসেঞ্চুরিসহ তার সংগ্রহ ২০০৪ রান। সাকিবের পেছনেই আছেন তামিম। তিনি এখন পর্যন্ত দেশের মাটিতে ২৬ টেস্টে করেছেন ১৮৯৭ রান। তিন নম্বরে থাকা মুশফিকুর রহীমের রান ২৭ টেস্টে ১৪৫৪। দেশের মাটিতে ১০০ উইকেট ও ২০০০ রান, স্বাভাবিকভাবেই একই কারণে দেশের মাটিতে একাধারে বল হাতে ১০০ উইকেট এবং ব্যাট হাতে ২ হাজার রান করা আকর্ষণীয় এক কীর্তিরও প্রথম কারিগর হয়ে গেছেন তিনিই।

বাংলাদেশের পক্ষে এমন কীর্তি প্রথম ঘটনা হলেও টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে আছে আরও। তবে ১২৮ বছরের টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে এমন কীর্তি নিজ দেশের পক্ষে বিশ্ব ক্রিকেটে করে দেখাতে পেরেছেন ৬ ক্রিকেটার। সেদিক থেকে টেস্ট ইতিহাসে এ ঘটনার জন্ম দেয়া সপ্তম ক্রিকেটার সাকিব। এমন কীর্তির প্রথম নজির সৃষ্টি করেছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক অলরাউন্ডার স্যার গ্যারি সোবার্স। তার অবশ্য ৪৪ টেস্ট খেলতে হয়েছে সে জন্য। ৪৪ টেস্টে তিনি করেছিলেন ৪০৭৫ রান ও শিকার করেছিলেন ১০৭ উইকেট। পরবর্তীতে একে একে এমন কীর্তি গড়েন ইংল্যান্ডের পক্ষে স্যার ইয়ান বোথাম, ভারতের কপিল দেব, দক্ষিণ আফ্রিকার জ্যাক ক্যালিস, ইংল্যান্ডের এ্যান্ড্রু ফ্লিন্টফ ও নিউজিল্যান্ডের ড্যানিয়েল ভেট্টরি। রান করার দিক থেকে এক্ষেত্রে সবচেয়ে এগিয়ে ক্যালিস। তিনি ৮৮ টেস্টে ৭০৩৫ রান করেছেন। তার উইকেট ১৬৫। তবে দেশের মাটিতে উইকেট নেয়ার দিক থেকে সবার ওপর বোথাম। তিনি ৫৯ টেস্টে ২২৬ উইকেট নিয়েছেন। মাত্র ২৮ টেস্টেই এমন কীর্তি গড়া ২৮ বছর বয়সী সাকিবের অবশ্য এখনও অনেক সময় আছে সবাইকে ছাড়িয়ে যাওয়ার।

প্রকাশিত : ১৫ জুন ২০১৫

১৫/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: